ঢাকা, রোববার 15 July 2018, ৩১ আষাঢ় ১৪২৫, ১ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বিশ্বকাপের আগের ২০ ফাইনাল

স্পোর্টস ডেস্ক : চলতি বিশ্বকাপ ফুটবলের আগে বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলে ১২ দেশ। তার মধ্যে আটটি দেশ  বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়। এখন পর্যন্ত ইউরোপ ও লাতিন আমেরিকার বাইরে কোনো দেশই বিশ্বকাপের ফাইনালে পৌঁছাতে পারেনি।

২০১৪: আর্জেন্টিনাকে অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ম্যাচে ১-০ গোলে হারায় জার্মানি।

২০১০: অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ম্যাচে নেদারল্যান্ডসকে ১-০ গোলে হারায় স্পেন।

২০০৬: ফ্রান্সকে টাইব্রেকারে ৫-৩ গোলে হারায় ইতালি। অতিরিক্ত সময়ের পর ম্যাচ ১-১ গোলে ড্র ছিল।

২০০২: জার্মানিকে ২-০ গোলে হারায় ব্রাজিল।

১৯৯৮: ব্রাজিলকে ৩-০ গোলে হারায় ফ্রান্স।

১৯৯৪: পেনাল্টি শুটআউটে ইতালিকে ৩-২ গোলে হারায় ব্রাজিল। অতিরিক্ত সময়ে ম্যাচ ০-০ গোলে ড্র ছিল।

১৯৯০: আর্জেন্টিনাকে ১-০ গোলে হারায় পশ্চিম জার্মানি।

১৯৮৬: পশ্চিম জার্মানিকে ৩-২ গোলে হারায় আর্জেন্টিনা।

১৯৮২: পশ্চিম জার্মানিকে ৩-১ গোলে হারায় ইতালি।

১৯৭৮: অতিরিক্ত সময়ে  নেদারল্যান্ডসকে ৩-১ গোলে হারায় আর্জেন্টিনা।

১৯৭৪: নেদারল্যান্ডসকে ২-১ গোলে হারায় পশ্চিম জার্মানি।

১৯৭০: ইতালিকে ৪-১ গোলে হারায় ব্রাজিল।

১৯৬৬: অতিরিক্ত সময়ে  পশ্চিম জার্মানিকে ৪-২ গোলে হারায় ইংল্যান্ড।

১৯৬২: চেকোস্লোভাকিয়াকে ৩-১ গোলে হারায় ব্রাজিল।

১৯৫৮: সুইডেনকে ৫-২ গোলে হারায় ব্রাজিল।

১৯৫৪: হাঙ্গেরিকে ৩-২ গোলে হারায় পশ্চিম জার্মানি।

১৯৫০: ব্রাজিলকে ২-১ গোলে হারায় উরুগুয়ে।

১৯৩৮: হাঙ্গেরিকে ৪-২ গোলে হারায় ইতালি।

১৯৩৪: অতিরিক্ত সময়ে  চেকোস্লোভাকিয়াকে ২-১ গোলে হারায় ইতালি।

১৯৩০: আর্জেনন্টিনাকে ৪-২ গোলে হারায় উরুগুয়ে।   

* ১৯৫০ সালের বিশ্বকাপের নিয়মটা ছিল একটু আলাদা। প্রাথমিক গ্রুপ পর্বের পর সেরা চার দল ব্রাজিল, উরুগুয়ে, স্পেন ও সুইডেনকে নিয়ে রাউন্ড রবিন পদ্ধতিতে হয় আরেকটি পর্ব। এতে উরুগুয়ে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে স্পেন ও সুইডেনকে হারায়। সুইডেনের বিপক্ষে জয় পাওয়া উরুগুয়ে স্পেনের সঙ্গে ড্র করায় ব্রাজিলের চেয়ে ১ পয়েন্ট পিছিয়ে ছিল। শেষ ম্যাচে উরুগুয়ের মুখোমুখি হয় ব্রাজিল। মারাকানায় ড্র করলেই চ্যাম্পিয়ন হতো ব্রাজিল। কিন্তু ম্যাচটি ২-১ গোলে হেরে যায় ব্রাজিল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ