ঢাকা, রোববার 15 July 2018, ৩১ আষাঢ় ১৪২৫, ১ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সিলেটে ‘নিরপেক্ষ নির্বাচনের গ্যারান্টি’

সিলেট ব্যুরো : সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদেরকে শতভাগ নিরপেক্ষ নির্বাচনের নিশ্চয়তা দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, সিকি নির্বাচনে প্রার্থীরা স্বাধীনভাবে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন, মেয়র প্রার্থী যেমন হয়রানির সম্মুখীন হচ্ছেন না, কাউন্সিলররাও স্বাধীনভাবে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। সিলেটে সিটি কর্পোরেশনে সার্বিক নির্বাচনী পরিস্থিতি অত্যন্ত সুন্দর। কোন রকম অনিয়ম নেই। প্রার্থীরা স্বাধীনভাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন। কোন বাধা-বিঘ্নতা সৃষ্টি করা হচ্ছে না।
গতকাল শনিবার নগরীর কাজী নজরুল ইসলাম অডিটোরিয়ামে সকল প্রার্থীর সাথে বৈঠককালে তিনি এসব কথা বলেন। নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম বলেছেন, সিলেটের সার্বিক নির্বাচন পরিস্থিতি অত্যন্ত ভালো। এই ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে হবে। এজন্য নির্বাচন কমিশন, জেলা ও পুলিশ প্রশাসন একযোগে কাজ করছে। তারপরও প্রার্থীরা যে অভিযোগ-অনুযোগ জানাচ্ছেন তার একটিও থাকবে না যদি প্রত্যেক প্রার্থী প্রতিটি কেন্দ্রে এজেন্ট নিয়োগ দেন। প্রার্থীর এজেন্টরা যদি যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করেন তবে আমি ১০০ ভাগ গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারি সিলেটে সম্পূর্ণ সুষ্ঠু, স্বচ্ছ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
রফিকুল ইসলাম আরোও বলেন, তারপরেও যদি কোন প্রার্থীর কোনরকম সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকে তবে আমাদেরকে লিখিতভাবে জানান। আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নেবো। যদি কোন কর্মকর্তা ব্যবস্থা না নেন তবে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।
সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ২০১৮ প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সাথে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন সিলেটের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মো. আলীমুজ্জামান।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার নাজমানারা খানুম, বাংলাদেশ পুলিশের সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি কামরুল আহসান, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার গোলাম কিবরিয়া ও সিলেটের জেলা প্রশাসক নুমেরী জামান।
মতবিনিময় সভায় প্রার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী, আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরান, নাগরিক ফোরামের প্রার্থী, সিলেট মহানগর জামায়াতের আমীর এহসানুল মাহবুব জুবায়ের, নাগরিক কমিটি মনোনীত বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী বদরুজ্জামান সেলিম, ইসলামী আন্দোলন মনোনীত প্রার্থী কেন্দ্রীয় সদস্য ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন, সিপিবি-বাসদ মনোনীত প্রার্থী আবু জাফর ও হরিণ প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী এহসানুল হক তাহের এবং সাধারণ ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত আসনে নারী কাউন্সিলর পদপ্রার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা আবদুল খালিক, রেজওয়ান আহমদ, সৈয়দ তৌফিকুল হাদি, নিলুফার সুলতানা চৌধুরী লিপি, পারুল মজুমদার, মখলিছুর রহমান কামরান, শামীমা স্বাধীন, শেখ তোফায়েল আহমদ সেপুল, ইব্রাহিম খান সাদেক, সেলিম আহমদ রনি, এমদাদ হোসেন চৌধুরী, লায়েক আহমদ চৌধুরী, রাজিক মিয়া, আফতাব হোসেন খান।
এছাড়া মতনিনিময় সভায় নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী ১৯৬ প্রার্থী উপস্থিত ছিলেন।

সিলেটে ‘হাতপাখা’য় ভোট
চাইলেন চরমোনাই’র পীর
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতি সৈয়দ মো. রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, শাহজালালের পুন্যভূমি সিলেট নগরীকে সন্ত্রাসী, দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত একটি মডেল সিটি গড়তে প্রফেসর ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন খানকে হাতপাখা মার্কায় ভোট দিন।
পথসভায় উপস্থিত জনতার উদ্দেশে তিনি বলেন, শাহজালাল (রহ.) চিন্তা চেতনায় যে আদর্শ লালন করেছিলেন তা আমরা বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করছি। স্বাধীনতার ৪৭ বছরে আমরা দেখেছি বাংলাদেশ ৫ বার দুর্নীতিতে প্রথম হয়েছে। রক্ষক যখন ভক্ষক হয় দেশের মানুষ তখন শান্তি পায় না। এর যুক্তিসঙ্গত স্বচ্ছ কোন বিচারও দেখি নাই। দেশের মধ্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ রাজনৈতিক শক্তিতে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। নেতা নির্বাচনের ক্ষেত্রে সৎ ও যোগ্য ন্যায়নীতিবান লোককে গ্রহণ করতে হবে।
সিসিক নির্বাচনে হাতপাখা প্রতীকের সমর্থনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সিলেট মহানগরের উদ্যোগে গতকাল শনিবার দুপুর ২টায় সিলেট নগরীর আম্বরখানা পয়েন্টে এক নির্বাচনী পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি কথাগুলো বলেন।
মহানগর সভাপতি নজির আহমদের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারী মাওলানা মাহমুদুল হাসানের পরিচালনায় প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন সিসিক মেয়র প্রার্থী, সংগঠনের কেন্দ্রীয় সদস্য প্রফেসর ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন খান।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সিলেট জেলার সভাপতি মাওলানা সাঈদ আহমদ, ইসলামী যুব আন্দোলন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. রিয়াজুল ইসলাম, ইসলামী আন্দোলন সিলেট জেলা সেক্রেটারী মাওলানা ইমাদ উদ্দিন, ইশা ছাত্র আন্দোলন সিলেট মহানগর সভাপতি মো. শিহাব উদ্দিন, ইসলামী যুব আন্দোলন জেলা সভাপতি মো. নজির আহমদ, বামুক জেলা সভাপতি মুফতি মো. ফখরুদ্দিন, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন সিলেট জেলা সভাপতি আব্দুল জলিল, ইশা ছাত্র আন্দোলন সিলেট মহানগর সম্পাদক মো. ইসমাঈল হোসেন প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ