ঢাকা, রোববার 15 July 2018, ৩১ আষাঢ় ১৪২৫, ১ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ভূমি অফিস দুর্নীতিমুক্ত রাখতে নানাবিধ পদক্ষেপ

কুমারখালী উপজেলা ভূমি অফিস দুর্নীতিমুক্ত ও স্বচ্ছ রাখতে ভূমি বিষয়ক প্রশিক্ষণ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্লাস গ্রহণ, লিফলেট বিতরণসহ নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ মুছাব্বেরুল ইসলাম। বিভিন্ন কর্মসূচির অংশ হিসেবে এবার তার কার্যালয়ে সততা বক্স চালু করেছেন তিনি। তার ভাষায়, ভূমিসেবা প্রদানের ক্ষেত্রে আমরা সর্বদা চাই একজন সেবা প্রত্যাশী নিজের সেবা নিজে গ্রহণ করবেন। সেবা সংক্রান্ত আবেদন থেকে শুরু করে যাবতীয় প্রক্রিয়া সেবাগ্রহীতা নিজে করলে জমি-জমা নিয়ে হয়রানি ও ভোগান্তি কমে যাবে এবং একই সাথে মধ্যস্বত্বভোগী দালাল বা প্রতারকদের দৌরাত্ম দূর হবে। এ লক্ষ্যে সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে আমি নিজে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভূমিসেবা সংক্রান্ত ক্লাস পরিচালনাসহ সাধ্যমতো ক্যাম্পেইন করার চেষ্টা করছি।
জানা যায়, নিয়ম অনুযায়ী অধিকাংশ ভূমিসেবা গ্রহণের প্রক্রিয়া শুরু  হয় সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর আবেদন দাখিলের মাধ্যমে। আর এই সকল আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের সাথে দিতে হয় ২০ টাকার কোর্ট ফি। আর এই আবেদনের নমুনা বা ফরমেট গ্রহণের জন্য প্রক্রিয়ার শুরুতেই ধারণা নিতে হয় দালালদের কাছে। এই বিষয়টি নিরসন করার লক্ষ্যে সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর আবেদনের বিভিন্ন নমুনা নিজ উদ্যোগে হাজার হাজার কপি ছাপিয়েছেন।
উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ মুছাব্বেরুল ইসলাম জানান, আবেদন জমা দেয়ার একমাত্র জায়গা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়। কোনো ক্রমেই কোনো ইউনিয়ন ভূমি অফিস নয়। প্রয়োজনে সরাসরি সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর সাথে কথা বলা যাবে এই ০১৭৩০৪৭৩৬৩৬ নম্বরে। অনুগ্রহ করে কোনো দালাল বা প্রতারককে গ্রাহকের অজ্ঞতার সুযোগ গ্রহণ করতে না দেওয়ার জন্য তিনি সকলের প্রতি অনুরোধ করেছেন।  তিনি  আরো বলেন, নিজের কাজ নিজে জানার এবং করার চেষ্টা করতে হবে। আমরা আপনাকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা প্রদানে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ মুছাব্বেরুল ইসলামের এই উদ্যোগ কুমারখালীতে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। জনসেবার জন্য প্রশাসন এটা যেন তাই বাস্তবায়ন বলে অনেকেই মন্তব্য করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ