ঢাকা, সোমবার 16 July 2018, ১ শ্রাবণ ১৪২৫, ২ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সম্পত্তির ‘ব্যক্তিমালাকানার’ স্বীকৃতি দেবে কিউবা

১৫ জুলাই, রয়টার্স : ব্যক্তিগত সম্পত্তিকে পুঁজিবাদের নিদর্শন হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে প্রত্যাখ্যানের পর অবশেষে সাংবিধানিকভাবে স্বীকৃতি দিতে যাচ্ছে কমিউনিস্ট কিউবা।

নতুন একটি সংবিধানে এ স্বীকৃতি দেওয়ার পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর পদও সৃষ্টি করা হচ্ছে বলে শনিবার জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কিউবার সোভিয়েত আমলের সংবিধানে শুধু রাষ্ট্রীয়, সমবায়, কৃষক, ব্যক্তিগত ও যৌথ উদ্যোগভুক্ত সম্পত্তির স্বীকৃতি আছে। 

অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার লক্ষ্যে ও কিউবার সমাজতন্ত্রকে আরও টেকসই করে তুলতে দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট রাউল কাস্ত্রো অর্থনৈতিক সংস্কার কার্যক্রম শুরু করেছিলেন। এরপর ২০১০ থেকে দেশটির কয়েক লাখ নাগরিক ব্যক্তিগত ব্যবসা শুরু করে স্বাবলম্বী হওয়ার চেষ্টা শুরু করেন। এভাবে দেশটিতে রেস্তোরাঁ থেকে শুরু করে বিউটি পার্লারসহ বিভিন্ন ব্যক্তিগত মালিকানাধীন ব্যবসার প্রসার হয়।

দেশটির ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির সংবাদপত্র গ্রানমা শনিবার নতুন সংবিধানের একটি সারসংক্ষেপ প্রকাশ করেছে। নতুন সংবিধানের খসড়ায় ২২৪টি আর্টিকেল আছে বলে জানিয়েছে গ্রানমা। আগের সংবিধানে ১৩৭টি আর্টিকেল ছিল।

এক অনুষ্ঠানে নতুন সংবিধানে মুক্ত বাজার ও ব্যক্তিগত সম্পত্তি, উভয়ের স্বীকৃতি সন্নিবেশিত হয়েছে বলে জানিয়েছে গ্রানমা। তাৎক্ষণিকভাবে এর বাইরে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

এর মাধ্যমে কিউবার নব্য উদ্যোক্তা ও বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আরও অধিক আইনি সুরক্ষা দেওয়া হতে পারে বলে মন্তব্য রয়টার্সের।

তবে গ্রানমা জানিয়েছে, এসব সংস্কারের পরও কেন্দ্রীয় পরিকল্পনা ও রাষ্ট্রীয় উদ্যোগই সর্বিকভাবে কিউবার অর্থনীতির স্তম্ভ হিসেবে থেকে যাবে। পাশাপাশি কিউবার নিয়ন্ত্রণকারী রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে কমিউনিস্ট পার্টির ভূমিকাও অব্যাহত থাকবে বলে উল্লেখ করেছে গ্রানমা।

কিউবার সংবিধানের এসব সংস্কারের বিষয়ে ওয়াশিংটনভিত্তিক ‘সেন্টার ফর ডেমোক্র্যাসি ইন দ্য আমেরিকাস’ এর কিউবা বিশেষজ্ঞ কার্লোস বাতিস্তা বলেছেন, ব্যক্তিগত সম্পত্তির স্বীকৃতি মানেই ব্যক্তিগত উদ্যোগকে সরকার বড় ধরনের ভূমিকা পালন করতে দিতে চায় এমনটি নাও হতে পারে।

তিনি উল্লেখ করেছেন, গত সপ্তাহের শেষের দিকে কিউবার সরকার এক সেট বিধিনিষেধ প্রকাশ করেছে, যেখানে স্বনির্ভর খাতের ওপর নিয়ন্ত্রণ জোরদার করা হয়েছে এবং সম্পত্তি বাজেয়াপ্তসহ সম্ভাব্য জরিমানার পরিমাণ বৃদ্ধি করা হয়েছে।  

গ্রানমা জানিয়েছে, নতুন সংবিধান প্রণয়নে নিয়োজিত সরকারি কমিশন আগামী সপ্তাহে তাদের খসড়া জাতীয় পরিষদের বৈঠকে উপস্থাপন করবে। জাতীয় পরিষদের অনুমোদিত সংবিধান নিয়ে গণভোট অনুষ্ঠিত হবে, যা চলতি বছরের পরবর্তী কোনো এক সময় অনুষ্ঠিত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সংবিধান প্রণয়ন কমিশনের প্রধান হিসেবে আছেন ৮৭ বছর বয়সী নেতা রাউল কাস্ত্রো। তিনি দেশটির কমিউনিস্ট পার্টিরও প্রধান। কিউবার নতুন প্রেসিডেন্ট মিগেল দিয়াস-কানেলও সংবিধান প্রণয়ন কমিশনের সদস্য হিসেবে আছেন।

নতুন সংবিধানে প্রধানমন্ত্রী পদ সৃষ্টি করার পাশাপাশি রাষ্ট্রপ্রধান ও সরকার প্রধানের ভূমিকাও পৃথক করে দেওয়া হবে। প্রেসিডেন্ট জাতীয় পরিষদ প্রধান হবেন এবং পাঁচ বছর মেয়াদে পর পর দুই বার প্রেসিডেন্ট পদে থাকতে পারবেন।

দেশের রাজনৈতিক পদ্ধতিকে আধুনিক করার লক্ষে ২০১১ সালে প্রেসিডেন্টের মেয়াদ নির্দিষ্ট করে দেওয়ার প্রস্তাবটি করেছিলেন সাবেক প্রেসিডেন্ট রাউল কাস্ত্রো।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ