ঢাকা, সোমবার 16 July 2018, ১ শ্রাবণ ১৪২৫, ২ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

শুক্রবার সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ করবে বিএনপি

স্টাফ রিপোর্টার: কারাবন্দী দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে আগামী শুক্রবার ঢাকাসহ সারাদেশে জেলা ও উপজেলা সদরে বিক্ষোভ সমাবেশের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। গতকাল রোববার সকালে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনের দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।
তিনি বলেন, গত কয়েকদিন ধরে দেশনেত্রী জ্বরে আক্রান্ত ও তার হাটুর ব্যথা বেড়ে গেছে বলে স্বজনরা শনিবার তার সাথে দেখা করতে পারেননি। আজকে প্রায় ১৩ দিন তার স্বজনদের সাথে দেখা-সাক্ষাৎ হচ্ছে না। আমরা আবারো সরকারকে বলছি, অবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন ও তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করুন।
 দেশনেত্রীর চিকিৎসা না দেয়া, কারামুক্তি না দেয়া এবং তার সঙ্গে ভঅবর্ণনীয় ও অমানবিক আচরণ করার প্রতিবাদে আগামী শুক্রবার ২০ জুলাই ঢাকাসহ সারাদেশে জেলা ও উপজেলা সদরে বিক্ষোভ সমাবেশ হবে। ঢাকায় বিকেল তিনটায় আমাদের নয়া পল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ আহবান করছি। অসুস্থ খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার কিছু হলে এর দায়-দায়িত্ব সরকারকেই বহন করতে হবে বলেও হুশিয়ারি দেন বিএনপি মহাসচিব।
শনিবার পুরানো ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দী খালেদা জিয়ার জ্বর ও ব্যথায় আক্রান্ত হওয়ার কারণে তার স্বজনরা সাক্ষাৎ না পাওয়ার বিষয়টিও তুলে ধরেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, আমরা বুঝি না কোন ধরণের রাজনীতি, কোন ধরনের প্রতিহিংসা হলে এতো বড় প্রতিহিংসা একজন অসুস্থ মানুষ, ৭৩ বছর বয়স তাকে চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। পৃথিবীর কোনো সভ্য দেশে এই ধরনের ব্যবস্থা চলতে পারে না। এরা বর্বরোচিত আচরণ করছে। এদের আচরণ বর্বরের সাথে তুলনা করা যায় অন্য কারো সাথে নয়। দেশনেত্রীকে একটা নির্জন কারাবাসে রাখা হয়েছে- এটা কখনো গ্রহনযোগ্য হতে পারে না। এটা মানবাধিকার লঙ্ঘন।
প্রধানমন্ত্রী একতরফাভাবে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, উনি(প্রধানমন্ত্রী) ইচ্ছামতো ঘুরে বেড়াচ্ছেন এবং জনসভা করছেন। জনসভার মধ্যে তার যে প্রচারনা, সেই প্রচারনা চালাচ্ছেন। অন্যদিকে বিরোধী দলকে তারা কোনো স্পেস দিতে চান না, দিচ্ছেন না। গতকাল জিয়া পরিষদের ছোট একটা প্রোগ্রাম, সেটাও করতে দেয়নি। কোথাও কোনো জনসভা, কোথাও কোনো মিছিল তারা করতে দিচ্ছে না। এটা অসহনীয় পরিবেশ, এর থেকে আমাদের মুক্ত হতে হবে। এই অবস্থা থেকে উত্তরণে জনগনকে সংগঠিত করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ