ঢাকা, সোমবার 16 July 2018, ১ শ্রাবণ ১৪২৫, ২ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সাতক্ষীরা ও ভালুকায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

সাতক্ষীরা সংবাদদাতা : সাতক্ষীরায় পুলিশের সাথে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছে। শনিবার মধ্যরাতে সদর উপজেলার বাঁশদহা গ্রামের কয়ারবিল ব্রিজের পাশে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ একটি ওয়ান শুটার গান, এক রাউন্ড গুলী ও বেশকিছু মাদকদ্রব্য উদ্ধার করার কথা জানিয়েছে। এ ঘটনায় ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে  বলে পুলিশের  দাবি। ময়মনসিংহের ভালুকায় ১ জন নিহত হয়েছে।
গুলীবিদ্ধ নিহত মাদক ব্যবসায়ীরা হলেন, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বাঁশদহা গ্রামের আব্দুল গণির ছেলে দেলোয়ার হোসেন (৩৮) ও কলারোয়া উপজেলার কেড়াগাছি গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে আবুল কালাম আজাদ (৪০)। তারা দুজনেই আন্তঃজেলা মাদক ব্যবসায়ী বলে জানিয়েছে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে কয়েকটি মামলাও রয়েছে বলে পুলিশ জানায়।
আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন, এসআই রিয়াদুল, এএসআই সুমন, এএসআই মাজেদুল ও দুই কনস্টেবল রুবায়েত ও তুহিন।
সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মারুফ আহমেদ জানান, শনিবার বিকালে মাদক ব্যবসায়ী দেলোয়ার ও আবুল কালামকে কিছু গাঁজা ও ফেনসিডিলসহ গোয়েন্দা পুলিশ বাঁশদহা বাজার থেকে আটক করে। রাতে জিজ্ঞাসাবাদের সময় তারা স্বীকার করে যে শনিবার রাতে মাদকের একটি বড় চালান ভারত থেকে আসবে। তাদেরকে নিয়ে মাদকের চালান উদ্ধারে যায় পুলিশ।
তিনি জানান, বাঁশদহার কয়ার বিল এলাকায় পৌঁছাতেই আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা তাদের সহযোগীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলী ছোড়ে। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলী ছোড়ে। তিনি আরো জানান, গোলাগুলীর এক পর্যায়ে তাদের দু’জনকে গুলীবিদ্ধ হয়ে পড়ে থাকতে দেখা যায়। গ্রামবাসীর সহায়তায় তাদের উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদের মৃত ঘোষণা করেন। তাদের কাছ থেকে এ সময় একটি ওয়ান শুটার গান, ১ রাউন্ড গুলী ও বেশ কিছু মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়।
এদিকে, আহত পুলিশ সদস্যদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে বলে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান। নিহত দেলওয়ারের পরিবাবের দাবি সে মটর সাইকেলে যাত্রী বহন করতো। গত শনিবার সন্ধ্যায় পুলিশ তাকে ধরে নিয়ে যায়। রাতে কোনো এক সময়ে বন্দুকযুদ্ধের কথা বলে তাদের গুলী করে হত্যা করে।
কলারোয়া উপজেলার কেড়াগাছি গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে আবুল কালাম আজাদকেও গতকাল সন্ধায় আটক করা হয় বলে তাদের পরিবারের দাবি।
ময়মনসিংহ সংবাদদাতা জানান, গত শনিবার ভালুকায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মুরাদ (৩০) নামে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের এক সদস্য পুলিশের গুলীতে নিহত হয়। এতে ভালুকা মডেল থানার দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ