ঢাকা, সোমবার 16 July 2018, ১ শ্রাবণ ১৪২৫, ২ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চাটখিলে রাতভর সন্ত্রাসী তাণ্ডব অগ্নিসংযোগ ভাংচুর॥ গুলীবিদ্ধ ২

চাটখিল (নোয়াখালী) সংবাদদাতা : এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে নোয়াখালী জেলার চাটখিলে ৯নং খিলপাড়া ইউনিয়নের শ্রীপুর এবং শিবপুর গ্রামে গতকাল শনিবার রাতভর সন্ত্রাসী তাণ্ডব চালিয়েছে ২টি সন্ত্রাসী গ্রুপ। এতে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে ২টি বসতঘরে, ভাংচুর, লুটপাট করা হয়েছে আরো ২টি বসতঘর ও ১টি দোকান।
গুলীবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছে শিবপুর ব্যাপারী বাড়ির শাহজাহান (৪০) এবং তার স্ত্রী ছালেহা বেগম (৩৫)। এ ঘটনার পর এলাকার লোকজনের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাতে ২০/২৫ জনের একদল সশস্ত্র মুখোশধারী সন্ত্রাসী রাত সাড়ে ১০ টার দিকে শ্রীপুর গ্রামে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান, মুক্তিযোদ্ধা হানিফের বাড়িতে হামলা করে। এ সময় সন্ত্রাসীরা চেয়ারম্যান হানিফের সাথে অশোভনীয় আচরণ করে তার ঘরের মালামাল ভাংচুর ও লুটপাট করে এবং হানিফের ছেলে স্থানীয় যুবলীগ নেতা ও ব্যবসায়ী কামরুলকে খুঁজতে থাকে। এখান থেকে যাওয়ার সময় সন্ত্রাসীরা বাড়ির সামনে দরজার পাশে খলিল ও আজমের ঘর তল্লাশি করে। ফাঁকা গুলী ছুঁড়তে ছুঁড়তে আবিরপাড়া বাজারে গিয়ে কামরুলের রড, সিমেন্টের দোকানে হামলা করে ভাংচুর করে ক্যাশে থাকা নগদ টাকা লুট করে নিয়ে যায়।
এর আধা ঘণ্টা পর আরেক সন্ত্রাসী গ্রুপ একত্রিত হয়ে শিবপুর গ্রামে নতুন বাড়ির শাহজাহান এবং শ্রীপুর মান্দারী বাড়ির হারুনের ঘরে অগ্নিসংযোগ করে। শিবপুরে সন্ত্রাসীদের গুলীতে ব্যাপারী বাড়ির শাহজাহান ও তার স্ত্রী ছালেহা বেগমকে গুলী করে আহত করে।
তাদেরকে প্রথমে চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে সেখান থেকে চিকিৎসার জন্য অন্যত্র নিয়ে যায়। শাহজাহান এবং হারুন বিএনপির সমর্থক। যুবলীগ নেতা কামরুল জানায়, বিএনপি সন্ত্রাসীরা তাকে হত্যা এবং এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জন্য পরিকল্পিতভাবে এ হামলা করে এলাকায় নারকীয় তা-ব চালিয়েছেন। তাছাড়া এ ঘটনার জের ধরে গতকাল রোববার দুপুরে সন্ত্রাসীরা শ্রীপুর মন্দার বাড়ীর আলমগীরের ঘরে গিয়ে অস্ত্র ঠেকিয়ে তার ছেলে মেয়েকে মারধর করে এবং ১ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বিএনপির স্থানীয় প্রভাবশালী নেতা এ অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, বিএনপি সমর্থিত শাহজাহান ও হারুনের ঘরে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে। রাতভর এলাকা থেকে টহল দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ ইমাউল হক জানান, এলাকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে, ভুক্তভোগী যে কেউ অভিযোগ করলে তিনি আইনগত ব্যবস্থা নিবেন এবং সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করবেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ