ঢাকা, সোমবার 16 July 2018, ১ শ্রাবণ ১৪২৫, ২ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

৪৬ বছরেও রত্নাই নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণ হয়নি

দীর্ঘ ৪৬ বছরেও নির্মিত হয়নি ১টি সেতু অথচ একটি সেতু বদলে দিতে পারে ১৫ হাজার মানুষের ভাগ্য লালমনিরহাট সদর উপজেলার ২ নং কুলাঘাট ইউনিয়নের শিবির কুটি বেলের ভিটার ঘাট এলাকায় একটি সেতু নির্মাণ করা হয়নি। বছরের কিছুদিন বাঁশের সেতু দিয়ে চলাচল, আবার রত্নাই নদীর পানি বৃদ্ধি হলে নৌকায় পারাপার করতে হয়। স্থানীয় জনপ্রতিনিধরা সেতু নির্মাণের আশ্বাস দিলেও দীর্ঘ ৪৬ বছরেও কোন বাস্তবায়ন হয়নি। শিবির কুটি গ্রামের মোঃ শওকত আলী (৬৫) জানান, প্রায় ১৫ হাজার মানুষের যাতায়াতের একমাত্র পথ সেতু নির্মাণ জরুরী। শিবিরকুটির বাসিন্দা রূপালী ব্যাংক কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল হক নিজের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে বলেন, উচ্চ শিক্ষা অর্জনে সরকারী চাকুরী পেয়েছি, কিন্তু উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা না থকায় ভালো কোনও পরিবারে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে পারিনি।
জীবন যাপন উন্নয়নের জন্য সেতু নির্মানের জোর দাবী জানান। কুলাঘাট ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের সদস্য মোঃ আনিছুর রহমান সবুজ বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকা রত্নাই দ্বারা বিচ্ছিন্ন অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার কারনে এলাকার প্রায় ১৫ হাজার মানুষের কাঙ্খিত জীবনযাপন উন্নয়ন হচ্ছে না। যোগাযোগ ব্যবস্থা না থাকায় সহজে শিক্ষা, চিকিৎসা ও উৎপাদিত কৃষিপণ্য বাজারে নিতে পারছে না। এজন্য জরুরী ভিত্তিতে সেতু নির্মানের দাবী জানান। ০২ নং কুলাঘাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ইদ্রিস আলী এ প্রতিবেদক কে জানান, সদর উপজেলার মাসিক উন্নয়ন সমন্বয় সভায় সেতু নির্মাণের কথা একাধিকবার উপস্থাপন করা হলেও অজ্ঞাত কারণে আজও সেতু নির্মান হয়নি। ফলে শিকিরকুটির লোকজনকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। লালমানরহাট এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলীর দপ্তরে যোগাযোগ করা হলে একজন ইঞ্জিনিয়ার জানান শিবিরকুটির সেতু নির্মানের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। কিন্তু বরাদ্ধ মিলছে না। লালমনিরহাট-৩ (সদর উপজেলা) আসনের সংসদ সদস্য আবু সালেহ মোহাম্মাদ সাঈদ বলেন, স্থানীয় গনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসীর স্বাক্ষরিত আবেদনসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে ডিও লেটার দেওয়া হয়েছে।
রত্নাই নদীতে সেতু নির্মানের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। অপরদিকে সেতুটি নির্মাণ না হওয়ায় ৭ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধিকাংশ শিক্ষার্থী ও শিক্ষকের চলাচলের চরম দুর্ভোগে পড়েছে। শিবিরকুটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বনগ্রাম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, দক্ষিণ শিবিরকুটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরখারুয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, শিবিরকুটি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, শিবির কুটি কমিউনিটি ক্লিনিক, শিবিরকুটি আশ্রয়ন প্রকল্প ও বাজার সব মিলে ১,২,ও ৩ নং ওয়ার্ডের প্রায় ১৫ হাজার মানুষের যাতায়াতের একমাত্র পথ রত্নাই নদীর উপরে ১টি সেতু নির্মাণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ