ঢাকা, মঙ্গলবার 17 July 2018, ২ শ্রাবণ ১৪২৫, ৩ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ফাইনাল খেলতে পেরেই খুশি ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্ট

ক্রোয়াটদের প্রেসিডেন্ট কালিনদা গ্রাবার কিতারোভিচ। বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল ছাড়া সবগুলো ম্যাচই মাঠে বসে উপভোগ করে দলকে প্রতিনিয়িত সাহস জুগিয়েছেন এই ৫০ বছর বয়সী নারী প্রেসিডেন্ট। বিশ্বকাপের ফাইনালে হারলেও ক্রোয়েশিয়া প্রথমবারের মত ফাইনালে ওঠাতেই খুশি কিতারোভিচ। বিশ্বকাপের ম্যাচ শুরুর আগে আরটি নিউজে দেওয়া এক তাৎক্ষণিক বার্তায় কিতারোভিচ বলেন, ‘বিশ্বকাপে আমরা স্বর্ণ জিতলাম নাকি রৌপ্য জিতলাম সেটা কোন বিষয় না, আমরা বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠতে পেরেছি এটাই বড় বিষয়। আমি আমার দেশকে নিয়ে গর্বিত। ফাইনালের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী ইমানুয়েল ম্যাক্রোর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন কিতারোভিচ। এ সময় দু’দলের খেলোয়াড়দেরকেই আলিঙ্গন করে শুভকামনা জানান। কিতারোভিচ আবেগ ধরে রাখতে পারছিলেন না। তবুও ক্রোয়েশিয়ার খেলোয়াড়দের সান্তনা দিয়েছেন দেশটির ইতিহাসের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট।ইন্টারনেট

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ