ঢাকা, বুধবার 18 July 2018, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ৪ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নিহত সন্তানদের দাফনের অধিকার দাবিতে ফিলিস্তিনীদের বিক্ষোভ

ইসরাইলি হামলায় নিহত ফিলিস্তিনী কিশোরদের ছবি হাতে লাশ ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ স্বজনদের

১৭ জুলাই, আল জাজিরা : ইসরাইীল হামলায় নিহত সন্তানদের লাশ ফেরত পাওয়ার দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছেন ফিলিস্তিনীরা। ইসরাইলী বাহিনীর হাতে নিহত ১০ ফিলিস্তিনীর লাশ ফেরত পাওয়ার দাবিতে করা মামলা নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার ইসরাইলের সুপ্রিম কোর্টের এক অধিবেশনের আগে রামাল্লায় তারা এই বিক্ষোভ করেছেন।

২০১৫ সাল থেকে এসব ফিলিস্তিনীদের হত্যার পর তাদের লাশ ফেরত দেয়নি ইহুদিবাদী ইসরাইল।

রামাল্লার মূলকেন্দ্র আল মানারা চত্বর থেকে নিহতদের বাবা-মা ও স্বজনরা বিক্ষোভ মিছিল শুরু করেন। এ সময়ে তাদের স্লোগান দিতে দেখা যায়-আমরা আমাদের শিশুদের ফেরত চাই, আমাদের শহীদদের স্বাধীনতা চাই।

বিক্ষোভকারীদের হাতে নিহত স্বজন ও সন্তানদের ছবি সম্বলিত প্লেকার্ড ছিল।

আয়োজকদের একজন আজহার আবু শ্রুর বলেন, স্বজনদের মরদেহ ফেরত পাওয়া আমাদের অধিকার। আমাদের সন্তানদের কী হয়েছে, তা জানার অধিকার আমাদের আছে।

সন্তান হারানো এক ফিলিস্তিনী মা বলেন, দখলদাররা সবসময় আমাদের অন্ধকারে রাখতে চায়। আমরা আমাদের কিশোর সন্তানদের মর্যাদার সঙ্গে কবর দিতে পারিনি কিংবা তাদের বিদায় দেয়ারও সুযোগ দেয়া হয়নি।

তিনি বলেন, এটা ভয়াবহ অপরাধ। এজন্য দখলদারদের জবাবদিহিতার আওতায় নিয়ে আসা দরকার।

ফিলিস্তিনী নেতৃবৃন্দের সঙ্গে দর কষাকষির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে দখলদার ইসরাইল তাদের মরদেহ আটকে রেখেছে। ইসরাইল দাবি করছে, তাদের মরদেহ ফেরত দিলে দাফনের সময় সহিংসতা দেখা দিতে পারে।

আবু শ্রুর বলেন, একজন মা হিসেবে আপনি সন্তান লালন করেছেন। তাদের শিক্ষার ব্যবস্থা করেছেন। তাদের বেড়ে উঠতে দেখেছেন। কিন্তু তারা শহীদ হওয়ার পর আপনার পূর্ণ দায়িত্ব হচ্ছে মর্যাদার সঙ্গে তাদের দাফন করা।

নিহত ১০জনের মধ্যে চারজনকে ইসরাইলী সেনাবাহিনীর সমাধিতে দাফন করা হয়েছে। বাকি ছয়জেনর মরদেহ তেল আবিবের আবু কাবির ইনস্টিটিউটের মর্গে রাখা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ