ঢাকা, বুধবার 18 July 2018, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ৪ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সনি নর্দেসহ তিন হাইতিয়ান ফুটবলার বসুন্ধরা কিংসে!

স্পোর্টস রিপোর্টার: হাইতিয়ান তারকা সনি নর্দেকে ঢাকায় আনতে এবার চেষ্টা করছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগের নবাগত দল বসুন্ধরা কিংস। এর আগেও তিনি ঢাকায় খেলে গেছেন। সর্বশেষ কোলকাতা মোহনবাগানের হয়ে খেলেছেন। এর আগে বাংলাদেশের শেখ রাসেল ও শেখ জামালের জার্সিতে দুই মৌসুম খেলেছিলেন হাইতিয়ান এই তারকা ফুটবলার। দুর্দান্ত গতি আর স্কিলের মিশেলে অল্প সময়েই ব্যাপক পরিচিতি পান। অনেকেই তাঁকে বাংলাদেশের ফুটবলে অন্যতম সেরা বিদেশির তকমা দিয়েছিলেন। ২০১৪ সালের শুরুতে কলকাতার আইএফএ শিল্ডে শেখ জামালকে প্রায় একাই ফাইনালে তুলেছিলেন। ভারতের মাটিতে নর্দের সেই দুরন্ত পারফরম্যান্সই কাল হয়েছিল শেখ জামালের জন্য। সে বছরই মোটা টাকায় কোলকাতা মোহনবাগান তাঁকে কিনে নেয়। এবার  ঢাকার ফুটবলে আবারও দেখা যেতে পারে এই হাইতিয়ান তারকাকে। নর্দেকে এই মৌসুমে দলে নিতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে প্রিমিয়ারে নতুন আসা দল বসুন্ধরা কিংস।

মোহনবাগানে দারুণ কয়েকটি মৌসুম কাটিয়েছেন নর্দে। কলকাতার ক্লাবটিকে এনে দিয়েছেন বহু প্রতীক্ষিত আই লিগের শিরোপা। গত বছর পর্যন্ত ছিলেন ভাল খেললেও  মৌসুমের মাঝপথেই ইঞ্জরী আক্রান্ত হন নর্দে। এই চোটের কারণে তাঁকে ক্লাব ছাড়তে হয়। এখন পুরোপুরি সুস্থ হলেও ভারতীয় ক্লাবগুলোর কাছে নতুন মৌসুমে দল বদলের বাজারে আগের সেই কদরটা নাকি পাচ্ছেন না সনি।

 এ সুযোগটিই নিতে যাচ্ছে বসুন্ধরা। ইতিমধ্যেই তাঁকে দলে নেওয়ার কাজ প্রায় চূড়ান্ত হওয়ার পথে বলে জানালেন ক্লাবটির সাধারণ সম্পাদক মিনহাজুল ইসলাম।তিনি বললেন ‘আমাদের সঙ্গে নর্দের কথাবার্তা খুবই ইতিবাচক। আশা করি সে এবার আমাদের দলের হয়েই খেলবে।’ 

প্রিমিয়ার ফুটবলে নবাগত দলটির ইচ্ছা হাইতির জাতীয় দলের তিন ফুটবলারকে দলে নেয়ার। তাই শুধু নর্দেই নন তাঁর সঙ্গে আসতে পারেন হাইতির জাতীয় দলের হয়ে খেলা আরও দুজন। তাঁরা হলেন গত মৌসুমে ভারতীয় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্লাব জামশেদপুরের হয়ে খেলা স্ট্রাইকার কেলভোন বেলফোর্ট ও ইকুয়েডর লিগে খেলা ডিফেন্ডার জুদেলিন আভাসকা। স্বাভাবিকভাবে তাঁদের মধ্যে বোঝাপড়াটা ভালো থাকবে বলে মনে করেন বসুন্ধরা কিংসের সাধারণ সম্পাদক, ‘নর্দের পরামর্শ মতোই আমরা হাইতি জাতীয় দলের আরও তিনজন ফুটবলারের সঙ্গে কথা বলছি। এদের মধ্যে স্ট্রাইকার বেলফোর্ট ও আভাসকাকেই বেশি পছন্দ হয়েছে। আশা করি সেপ্টেম্বরেই তাঁরা ঢাকা চলে আসবে।’ শুধু ভালো খেলোয়াড়ই নয়, ভালো মানের কোচের দিকেও হাত বাড়িয়েছে ক্লাবটি। গত মৌসুমে ইস্টবেঙ্গলের কোচের দায়িত্বে থাকা খালিদ জামিলকে দেখা যেতে পারে ক্লাবটির ডাগআউটে। এই খালিদ ২০১৫-১৬ মৌসুমে অখ্যাত আইজল এফসিকে ভারত-সেরা ক্লাব বানিয়ে চমক দিয়েছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ