ঢাকা, বুধবার 18 July 2018, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ৪ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কুষ্টিয়ায় ছাত্রলীগ নেতা রাজিব ইয়াবা ও গুলীসহ গ্রেফতার

কুষ্টিয়া সংবাদদাতা : কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি রাজিব আহম্মেদের (২২)  শোয়ার ঘর থেকে মাদক ও গুলী উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১২)। এই ঘটনায় পরে দুটি মামলা দায়ের করে তাঁকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। মঙ্গলবার তাঁকে আদালতে মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।
 সোমবার বিকেল সোয়া পাঁচটায় কুষ্টিয়া সদর উপজেলার খাজানগর এলাকায় রাজিবের বাড়িতে এ অভিযান চালায় র‌্যাব।
মামলার বরাত দিয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সঞ্জয় কুমার কুন্ডু বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খাজানগর এলাকায় রাজিবের বাড়িতে র‌্যাব অভিযান চালায়। একপর্যায়ে রাজিবের শোয়ার ঘর থেকে দুটি এয়ারগান, ৫২৮টি গুলী, একটি স্প্রিং, ১০৭টি ইয়াবা বড়ি ও শটগানের ২৩টি গুলী পাওয়া যায়। এ সময় রাজিববে আটক করে র‌্যাব ক্যাম্পে নেওয়া হয়। পরে রাত সাড়ে ১১টায় তাঁকে কুষ্টিয়া মডেল থানায় সোপর্দ করে র‌্যাব। র‌্যাবের কুষ্টিয়া ক্যাম্পের ডিএডি শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে রাজিবকে একমাত্র আসামী করে অস্ত্র ও মাদকদ্রব্য আইনে পৃথক দুটি মামলা করেন। গ্রেপ্তার হওয়ার রাজিব আহম্মেদ।
জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইয়াসির আরাফাত তুষার বলেন, ‘রাজিব জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি। তিনি মূলত সাধারণ সম্পাদক সাদ আহমেদের সঙ্গে চলাফেলা করতেন। এর আগেও তাঁর বিরুদ্ধে মাদকের ব্যবসা করার অভিযোগ ছিল। এবার র‌্যাবের হাতে ধরা পড়েছেন। সংগঠন বিরোধী কাজ করায় তাঁকে দল থেকে বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে সুপারিশ করা হয়েছে। আশা করা যাচ্ছে খুব দ্রুত সময়ে কেন্দ্র থেকে একটা সিদ্ধান্ত জানাবে।’
রাজিব খাজানগর গ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ এর পুত্র।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ