ঢাকা, বুধবার 18 July 2018, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ৪ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নগরীর যতো উন্নয়ন হয়েছে সব বিএনপি আমলেই -বুলবুল

রাজশাহী : গতকাল রাজশাহীতে (বামে) বিএনপির বুলবুলের জনসংযোগ ও (ডানে) আ’লীগের লিটনের সাংবাদিক সম্মেলন -সংগ্রাম

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী সিটি নির্বাচনে ২০ দলীয় জোট প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর পর্যন্ত ১৫ নং ওয়ার্ড এবং বিকেল থেকে রাত অবধি ২২ ও ২৩ নং ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন।
এসময় বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা, সাবেক মেয়র ও এমপি মিজানুর রহমান মিনু, মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক এ্যাড.শফিকুল হক মিলন, মতিহার থানা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মতিন, ১৫নং ওয়ার্ড বিএনপি’র সভাপতি হায়াতুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ পারভেজ,, মহানগর যুবদলের সাবেক সভাপতি ওয়ালিউল হক রানা, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান রিটন, জেলা যুবদলের সভাপতি মোজাদ্দেদ জামানী সুমন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি জাকির হোসেন রিপন, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি আসাদুজ্জামান জনি ও সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রবিসহ ওয়ার্ডগুলোর বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সমাজসেবক, বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ এবং সহস্রাধিক সমর্থক উপস্থিত ছিলেন। গণসংযোগকালে বুলবুল বলেন, দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ধানের শীষ ততোই এগিয়ে যাচ্ছে। জনসমর্থন দিন দিন বেড়েই চলছে। এ অবস্থা দেখে আওয়ামী লীগ মিথ্যাচার শুরু করেছে। তাদের মিথ্যাচারে মানুষ ভোটারগণ ভুলছে না। ধানের শীষের গণজোয়ার দেখে আওয়ামী লীগের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। তারা এখন ধানের শীষের গণসংযোগে বোমা হামলা করছে। ব্যানার, পোস্টার ও ফেস্টুন ছেঁড়া অব্যাহত রেখেছে। এগুলো খুলে ড্রেনে ফেলে দিচ্ছে। আওয়ামী লীগ সর্বদা প্রতিহিংসার রাজনীতি করে। তারা খুন, নির্যাতন, গুম, মামলা, গ্রেফতার ছাড়া কোন কর্মকা- নাই। হামলা চালিয়ে কোন লাভ নেই। তারা কোটি কোটি টাকা দুর্নীতি করে টাকার পাহাড় গড়ে তুলেছে। কিন্তু বিএনপি হচ্ছে উন্নয়নের রূপকার। রাজশাহীর যত ধরনের উন্নয়ন হয়েছে সব কিছুই বিএনপি আমলে হয়েছে। তিনি নির্বাচিত হলে আরো চলমান উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত রাখবেন। এছাড়াও ২০৫০ সাল নাগাদ রাজশাহীকে বিশ্বের অন্যতম সিটিতে পরিণত করা হবে। সেইসাথে ট্যাক্সের বোঝা কমিয়ে আনা হবে।

রাজশাহীতে ইসি শাহাদাত
সাজানো মামলায় বা
পরোয়ানা ছাড়া কাউকে
গ্রেফতার করা নয়
রাজশাহী অফিস : নির্বাচনে সহিংসতা রোধে আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যেদের সজাগ থাকার নির্দেশ দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে বিভাগীয় সমন্বয় সভায় এ নির্দেশ দেন তিনি।
শাহাদাত হোসেন বলেন, নির্বাচনী পথসভায় যে ঘটনা ঘটেছে এ ধরনের যেন কোন ঝুঁকিপূর্ণ ঘটনা ঘটাতে বা প্রভাবিত করতে না পারে সে জন্য আইনশৃখলা বাহিনী সজাগ থাকবে। নির্বাচন কমিশনার বলেন, কোন সাজানো মামলায় বা গ্রেফতারী পরোয়ানা ছাড়া কাউকে গ্রেফতার করা যাবে না। প্রয়োজনে পোলিং এজেন্টদের তালিকা নির্বাচন কমিশন ও পুলিশের কাছে দিতে হবে। যাতে তারা হয়রানির হাত থেকে রক্ষা পান। রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর-রহমানের সভাপতিত্বে সভায় নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদসহ রাজশাহী প্রশাসন ও আইনশৃখলা বাহিনীর প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন। বিকেলে নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী।

নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ করে
মাঠ থেকে সরে যেতে
চায় বিএনপি -লিটন
রাজশাহী অফিস : নৌকার জোয়ার দেখে পরাজয় নিশ্চিত জেনে নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ করে ভোটের মাঠ থেকে সরে যেতে বিএনপি’র পথসভায় বোমা হামলা হয়েছে বলে দাবি করেন মহাজোটের প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।
মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে লিটন বলেন, বিএনপির মেয়র প্রার্থীর পথসভায় দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর ইন্ধনেই বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। তিনি বিএনপি নেতা দুলুকে গ্রেফতারেরও দাবি জানান। দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এসএম কামাল হোসেন বলেন, রাজশাহীর নির্বাচনের মাঠ ভালো আছে। আচরণবিধি মেনে প্রচারে নেমেছেন আ’লীগের প্রার্থী লিটন। নগরে নৌকার জোয়ার উঠেছে। এ কারণে নির্বাচনের পরিবেশ বিনষ্ট করতে পরিকল্পিতভাবে বিএনপি নিজেদের সভায় বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটিয়ে এর দায় আওয়ামী লীগের কাঁধে চাপানোর চেষ্টা চালাচ্ছে। মহানগর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার বলেন, নাটোরের ত্রাস দুলু রাজশাহীতে এসে ভোটের মাঠ উত্তপ্ত করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চাইছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ