ঢাকা, বুধবার 18 July 2018, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ৪ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চকরিয়া পৌরসভার উদ্যোগে ময়লা ফেলার পরিবেশবান্ধব গার্বেজ ডাম্পিং স্টেশন চালু

চকরিয়া পৌরশহরকে ময়লা-আবর্জনামুক্ত করতে পরিবেশবান্ধব গার্ভেজ ডাম্পিং স্টেশন উদ্বোধন করছেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাফর আলম

শাহজালাল শাহেদ, চকরিয়া : জনদুর্ভোগ আর নয়; এবার আবর্জনামুক্ত পৌর এলাকা গড়তে চকরিয়া পৌর প্রশাসন হাতে নিয়েছেন বিশাল উদ্যোগ। সুনির্দিষ্ট স্থানে চালু করা হয়েছে গার্ভেজ ডাম্পিং স্টেশন। সেই নান্দনিক উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ও পৌরবাসী। এমন উদ্যোগ বাস্তবায়নও করেছেন মেয়র মোহাম্মদ আলমগীর চৌধুরীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে চকরিয়া পৌর প্রশাসন। চকরিয়া পৌরসভা প্রতিষ্ঠা হয়েছে ১৯৯৪ সালে। প্রতিষ্ঠার পর দীর্ঘ ২৪ বছর ধরে ময়লা-আবর্জনা নিয়ে ভোগান্তিতে নাকাল ছিলো পৌরসভার সর্বস্তরের জনসাধারণ। ময়লা অপসারণে স্থায়ী তথা সুনির্দিষ্ট জায়গায় ডাম্পিং স্টেশন না থাকার কারণে পৌরশহরের অলিগলিতে যত্রতত্র আবর্জনা স্তুপ করে রাখতে বাধ্য হতো পৌর কর্তৃপক্ষ। এ অবস্থার কারণে দুষিত হয়ে পড়ছিল আবহাওয়া এবং চরম বিপর্যয়ের মুখে পড়ে পরিবেশ। অবশেষে লক্ষাধিক পৌরবাসির সেই ভোগান্তি লাঘবে পৌর প্রশাসন গ্রহণকৃত পরিবেশবান্ধব পরিকল্পিত উদ্যোগ বাস্তবায়ন করে দেখিয়েছেন।এরই প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার দুপুরে পৌরশহর থেকে অন্তত দুই কিলোমিটার দূরে ইসলামনগর এলাকার পাহাড়ি জনপদে চালু করা হয়েছে ‘গার্ভেজ ডাম্পিং স্টেশন’র আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম। যেখানে ফেলা হবে পৌর এলাকা থেকে অপসারণকৃত বিশাল অংশের ময়লা-আবর্জনা।
‘গার্ভেজ ডাম্পিং স্টেশন’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাফর আলম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র মো. আলমগীর চৌধুরী, পৌরসভার প্যানেল মেয়র বশিরুল আইয়ুব, লক্ষ্যারচর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা কাইছার, চকরিয়া পৌরসভার সচিব মাস-উদ মোর্শেদ ও বিএমচর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বদিউল আলম। এসময় পৌরসভার কাউন্সিলর রেজাউল করিম, কাউন্সিলর মুজিবুল হক, কাউন্সিলর জিয়াবুল হক, কাউন্সিলর জাফর আলম কালু, কাউন্সিলর ফোরকানুল ইসলাম তিতু, কাউন্সিলর জামাল উদ্দিন, কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, নারী কাউন্সিলর রাশেদা বেগম, আঞ্জুমান আরা বেগম, তরুণ ঠিকাদার হাসানুল ইসলাম আদর, পৌরসভা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শেফায়েত হোসেন ওয়ারেসী, পৌর মৎস্যজীবিলীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল হামিদসহ পৌরসভার সকল বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।
চকরিয়া পৌরসভার সচিব মাস-উদ মোর্শেদ বলেন, পৌরসভার দুই কিলোমিটার অদূরে লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের ইসলামনগর এলাকায় ৪ একর জমির উপর স্থাপন করা হয়েছে গার্ভেজ ডাম্পিং স্টেশন। এই স্টেশন চালু করতে পৌরসভার মেয়র ও লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান চুক্তি বাস্তবায়ন করেছেন।
চকরিয়া পৌরসভার মেয়র মো. আলমগীর চৌধুরী বলেন, প্রতিষ্ঠার ২৪বছর পর চকরিয়া পৌরসভাকে আবর্জনামুক্ত করে পরিবেশবান্ধব করতে গার্ভেজ ডাম্পিং স্টেশনের শুভ সুচনা হলো। অচিরেই পৌরসভার শহর এলাকায় গণশৌচাগারের কার্যক্রমও শুরু হবে।
উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথি চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাফর আলম বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের সার্বিক সহযোগিতায় উন্নয়নের মাধ্যমে এগিয়ে যাচ্ছে চকরিয়া পৌরসভার প্রতিটি জনপদ। সরকারের সফল উদ্যোগের ফলে আজ পৌরসভার লক্ষাধিক জনগণের ভোগান্তি লাঘব করতে ও ময়লা আর্বজনামুক্ত তথা সত্যিকার অর্থে উন্নতমানের নগরী গড়তে আনুষ্ঠানিকভাবে গার্ভেজ ডাম্পিং স্টেশনের সূচনা হয়েছে। যেটি স্বপ্নের মেগাসিটি বির্নিমাণের সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। যানজটমুক্ত চকরিয়া পৌরসভা গড়ার কাজ চলছে। ইতোমধ্যে যানজট নিরসনকল্পে চকরিয়ার চিরিঙ্গা সেতু থেকে ভেন্ডিবাজার পর্যন্ত তিন কিলোমিটার এলাকায় আধুনিকমানের উড়াল সেতু (ফ্লাইওভার) নির্মাণ প্রকল্প একনেকে অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ