ঢাকা, বৃহস্পতিবার 19 July 2018, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ৫ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ইসরাইলকে কঠোর পরিণতি ভোগের হুঁশিয়ারি

১৮ জুলাই, স্পুটনিক : ইসরাইলকে কঠোর পরিণতি ভোগ করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ফিলিস্তিনী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস। অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় তেল সরববাহ বন্ধ করার মাধ্যমে ইসরাইল গাজায় অমানবিক অবরোধ আরো তীব্র করার পরিপ্রেক্ষিতে হামাস এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করলো।

ইসরাইল গত ৯ জুলাই গাজার ওপর নতুন করে অবরোধ আরোপ করেছে। হামাসের ওপর আরো দমন পীড়ন চালানোর অংশ হিসেবে এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে তেল আবিবের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ গাজার প্রধান বাণিজ্য পথ কেরেম শ্যারোম ক্রসিং বন্ধ করে দিয়েছে। এই ক্রসিং পথ দিয়ে জ্বালানী তেল, খাদ্য এবং ওষুধ ছাড়া অন্য কিছু বহন করা যাবে না বলে ইসরাইল নির্দেশ দিয়েছে।

ইসরাইলের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, যতদিন ফিলিস্তিনী বিক্ষোভকারীরা ইসরাইলের দিকে বিস্ফোরক ভর্তি বেলনু উড়ানোর কাজ অব্যাহত রাখবে ততদিন পর্যন্ত এ বাণিজ্য ক্রসিং বন্ধ থাকবে। সোমবার ইসরাইলের যুদ্ধমন্ত্রীর দফতর এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এভিগদোর লিবারম্যান সিদ্ধান্ত দিয়েছেন যে মঙ্গলবার সকাল থেকে আগামী রোববার পর্যন্ত গাজায় তেল সরবরাহ স্থগিত থাকবে। হামাসের কার্যক্রম বন্ধ করতেই এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে বিবৃতিতে দাবি করা হয়েছে। তবে কেরেম শ্যালোম ক্রসিং দিয়ে কেবল খাদ্য ও ওষুধ সরবরাহ করা যাবে বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

গাজা সিটি দখলে নেয়ার হুমকি : ইসরাইলি ভূখ-ে জ্বলন্ত ঘুড়ি হামলা চালানো বন্ধ করতে গাজার নিয়ন্ত্রণকারী হামাসকে শুক্রবার পর্যন্ত দিযেেছ দখলদার দেশটি। অন্যথায়, গাজা সিটি দখল করে নেয়ার হুমকি দেয়া হয়েছে। এব্যাপারে ইসরাইলের পার্লামেন্ট প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুকে যুদ্ধ ঘোষণার অধিকার প্রদান করেছে বলে ‘টাইম অব ইসরাইল’ এর উদ্ধৃতি দিয়ে ‘চ্যানেল-১০’ এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলতি সপ্তাহের মধ্যে ঘুড়ি আক্রমণ বন্ধ না হলে গাজা উপত্যকায় অভিযান চালাতে ইসরাইলি বাহিনীকে প্রস্তুতি নেয়ার জন্য নিন্দেশ দিয়েছে দেশটির নেতৃত্ব।

রিপোর্ট অনুযাযী, জ্বলন্ত ঘুড়ি ও বেলুন হামলা বন্ধ করতে হামাসকে শুক্রবার পর্যন্ত সময় দিয়েছে ইহুদিবাদী ইসরাইল। হামাস ইসরাইলের এই নিন্দেশ পালনে ব্যর্থ হলে, গাজায় বড় ধরনের সামরিক অভিযান শুরু করবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ