ঢাকা, বৃহস্পতিবার 19 July 2018, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ৫ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অধিকাংশ কোম্পানির দর কমলেও বেড়েছে সূচক ও লেনদেন

স্টাফ রিপোর্টার : দেশের শেয়ারবাজারে সূচক ও লেনদেন উভয় বেড়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আট পয়েন্ট এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) দুই পয়েন্ট বেড়েছে। তবে দুই বাজারেই কমেছে লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম।
গতকাল বুধবার ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১৩৭ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৬৯টির। আর ৩৫টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।
বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দাম কমার পরও ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৮ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৩৩৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দু’টি মূল্য সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ৫ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৮৯৯ পয়েন্টে অবস্থা করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২৬৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।
এদিকে মূল্য সূচকের পাশাপাশি লেনদেনেও লেগেছে ইতিবাচক প্রভাব। ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৮৬৩ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ৭৮৬ কোটি ৫ লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ৭৭ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে কেডিএস এক্সসরিজের শেয়ার। কোম্পানিটির ৩২ কোটি ৩৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা আমান ফিডের ২৫ কোটি ৮৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ২৪ কোটি ৮২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বসুন্ধরা পেপার। লেনদেনে এরপর রয়েছে- বিবিএস কেবলস, পেনিনসুলা চিটাগাং, মুন্নু সিরামিক, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন, লিগাসি ফুটওয়ার, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং এবং শাশা ডেনিম।
অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএসসিএক্স ২ পয়েন্ট বেড়ে ৯ হাজার ৯০৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। লেনদেন হয়েছে ৬০ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৫৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১১৩টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১২২টির। আর অপরিবর্তিত ছিল ১৮টি কোম্পানির দর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ