ঢাকা, বৃহস্পতিবার 19 July 2018, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ৫ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

এবার ট্রাইব্যুনালে ৩০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের মামলা

খুলনা অফিস : খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন কেন্দ্রে জাল ভোট, ভোটের হারে গড়মিল ও কারচুপিসহ ভোট গ্রহণে নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর মুহা. আমানউল্লাহ আমান বাদী হয়ে খুলনার নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে (যুগ্ম-জেলা দায়রা জজ আদালত-১) মঙ্গলবার মামলাটি দায়ের করেন।
মামলায় উল্লিখিত ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর এসএম মোজাফ্ফর রশিদী রেজা ও কেসিসি নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসারকে বিবাদী করা হয়েছে। আগামী ১৭ আগস্ট মামলার পরবর্তী দিন ধার্য করা হয়েছে।
মামলায় বাদীপক্ষের আইনজীবী নুরুল হাসান রুবা বিষয়টি নিশ্চিত করে এ প্রতিবেদককে বলেন, ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের বিএনপি মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী ও বর্তমান কাউন্সিলর মুহা. আমানউল্লাহ আমান বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় ১৫ মে অনুষ্ঠিত খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে রূপসা স্কুলসহ বিভিন্ন কেন্দ্রে জাল ভোট প্রদান, কেন্দ্র থেকে মারধর করে প্রার্থী (বাদী) সহ এজেন্টদের বের করে দেয়া, মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলরের প্রদত্ত ভোটের হিসেবে গড়মিলসহ ভোট গ্রহণে নানা অনিয়মের অভিযোগ আনা হয়েছে। এছাড়া ব্যালট পেপার ও মুড়ি বইয়ের সীল-সই অমিল এবং জাল ভোটের বিভিন্ন চিত্র মামলায় তুলে ধরা হয়েছে বলেও জানান তিনি। আদালত আরজিটি আমলে নিয়ে গ্রহণযোগ্যতা শুনানির জন্য আগামী ১৭ আগস্ট পরবর্তী দিন ধার্য করেছেন।
মামলার বাদী বর্তমান কাউন্সিলর মুহা. আমানউল্লাহ আমান বলেন, ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের রূপসা স্কুল, কলেজিয়েট গার্লস স্কুল, দারোগাপাড়া ও চাঁনমারি আহম্মদিয়া স্কুল-মাদরাসা কেন্দ্রসহ ওয়ার্ডের ১৪টি কেন্দ্রের মোট ৭৬টি বুথের মধ্যে ৭৫টি বুথেই জাল ভোট পড়েছে। বিশেষ করে রূপসা স্কুলে সীলমারা ব্যালট পেপার গণমাধ্যমে প্রচারও হয়েছে। এমনকি তাকেসহ তার পোলিং এজেন্টদেরও লাঞ্ছিত করে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়া হয়। তারপরও নির্বাচন কর্মকর্তারা কোনো পদক্ষেপ নেননি। এ কারণেই তিনি ন্যায় বিচার পেতে আদালতের শরণাপন্ন হয়েছেন।
উল্লেখ্য, এর আগে ১১ জুলাই মহানগর বিএনপি সভাপতি ও কেসিসির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু বাদী হয়ে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেন। মামলায় নির্বাচন কমিশন কর্তৃক আওয়ামী লীগ প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেককে কেসিসি’র মেয়র ঘোষণা বাতিলের দাবি জানানো হয়। আগামী ৬ আগস্ট এ মামলার পরবর্তী দিন ধার্য রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ