ঢাকা, শুক্রবার 20 July 2018, ৫ শ্রাবণ ১৪২৫, ৬ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কমেছে পাসের হার ও জিপিএ-৫

 

সামছুল আরেফীন : এইচএসসি, আলিম ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল গতকাল বৃহস্পতিবার প্রকাশিত হয়েছে। গতবারের মতো এবার পাসের হার ও জিপিএ-৫ দু’টোই কমেছে। এবারে ১০ বোর্ডের গড় পাসের হার ৬৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ, যা গতবার ছিল ৬৮ দশমিক ৯১ শতাংশ। এবার মোট ১২ লাখ ৮৮ হাজার ৭৫৭ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন। এর মধ্যে পাস করেছে ৮ লাখ ৫৮ হাজার ৮০১ জন। কমেছে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্রছাত্রীর সংখ্যাও। গতবারের তুলনায় কমেছে ৮ হাজার ৭০৭ জন। কমেছে শতভাগ পাস করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যাও। গতবারের তুলনায় কমেছে ১৩২টি। এবার পাসের দিক থেকে এগিয়ে রয়েছে বরিশাল বোর্ড। আর দিনাজপুর বোর্ড থেকে সবচেয়ে কম শিক্ষার্থী পাস করেছে।

বিজ্ঞানে জোর দিতে গিয়ে মানবিকের ফল অপেক্ষাকৃত খারাপ হয়েছে। আর খাতা ভালো করে দেখার কারণেই এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ফল নিম্নমুখী। সব মিলিয়ে গুণগতমান ঠিক রাখতেই এ অবস্থা হয়েছে বলে মনে করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ পরীক্ষার ফলাফল শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করেন। এর আগে সকালে মন্ত্রী বোর্ড চেয়ারম্যানদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে পরীক্ষার ফলাফলের অনুলিপি হস্তান্তর করেন। এবার ১০ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ১২ লাখ ৮৮ হাজার ৭৫৭ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। ২ এপ্রিল পরীক্ষা শুরু হয়ে ২৪ মে শেষ হয়। 

ঢাকা বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ঢাকায় এবার পরীক্ষার্থী ছিল ৩ লাখ ৬৯ হাজার ৭৬০ জন। এর মধ্যে ছাত্র ১ লাখ ৮৬ হাজার ৮৪২ জন এবং ছাত্রী ১ লাখ ৮২ হাজার ৯১৮ জন। পাস করেছে ২ লাখ ৪৪ হাজার ৫১২ জন। এর মধ্যে ছাত্র ১ লাখ ১৮ হাজার ৩৯৯ জন এবং ছাত্রী ১ লাখ ২৬ হাজার ১১৩ জন। পাসের হার ৬৬ দশমিক ১৩ শতাংশ, যা গত বছর ছিল ৬৯ দশমিক ৭৪ ভাগ, তার আগের বছর ৭৩ দশমিক ৫৩ শতাংশ। 

বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৯০ হাজার ৭৫৫ জন, পাস করেছে ৭৪ হাজার ২৫৪ জন, মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ১ লাখ ৭৩ হাজার ৬১১ জন, পাস করেছে ৯৫ হাজার ৮৭৭ জন এবং ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ১ লাখ ৫ হাজার ৩৯৪ জন, পাস করেছে ৭৪ হাজার ৩৮১ জন। 

রাজশাহী বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, রাজশাহীতে এবার পরীক্ষার্থী ছিল ১ লাখ ৩৯ হাজার ৩৩০ জন পরীক্ষার্থী। মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৭৬ হাজার ২২৯ জন ছাত্র এবং ৬৩ হাজার ১০১ জন ছাত্রী ছিল। পাস করেছে ৯২ হাজার ৬৭৪ জন। পাসের হার কমে দাড়িয়েছে ৬৬ দশমিক ৫১ শতাংশ। এ বোর্ডে ২০১৪ সাল থেকে ক্রমাগতভাবে পাসের হার কমছে। ২০১৭ সালে ছিল ৭১ দশমিক ৩০ শতাংশ, ২০১৬ সালে ছিল ৭৫ দশমিক ৪০ শতাংশ, ২০১৫ সালে ছিল ৭৭ দশমিক ৫৪, ২০১৪ সালে ছিল ৭৮ দশমিক ৫৫ শতাংশ। 

বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৩৪ হাজার ২২৬ জন, পাস করেছে ২৭ হাজার ৭৩ জন, মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৮৩ হাজার ৯৯৬ জন, পাস করেছে ৫১ হাজার ৪১৩ জন এবং ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ২১ হাজার ১০৮ জন, পাস করেছে ১৪ হাজার ১৮৮ জন।

কুমিল্লা বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, কুমিল্লায় এবার পরীক্ষার্থী ছিল ১ লাখ ৩ হাজার ৬৬৬ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৪৭ হাজার ৮৩১ জন এবং ছাত্রী ৫৫ হাজার ৮৩৫ জন। পাস করেছে ৬৭ হাজার ৮২০ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৩০ হাজার ৩৬৮ জন এবং ছাত্রী ৩৭ হাজার ৪৫২ জন। পাসের হার ৬৭ দশমিক ৪২ শতাংশ, যা গতবছর ছিল ৪৯ দশমিক ৫২ শতাংশ, তার আগের বছর ছিল ৬৪ দশমিক ৪৯ শতাংশ। 

বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ২২ হাজার ৪৮৭ জন, পাস করেছে ১৮ হাজার ৬৭৬ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৪৩ হাজার ৭৫৮ জন, পাস করেছে ২৪ হাজার ৭৭৩ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ৩৭ হাজার ৪২১ জন, পাস করেছে ২৪ হাজার ৩৭১ জন।

যশোর বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, যশোরে এবার পরীক্ষার্থী ছিল ১ লাখ ৯ হাজার ৬৯২ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৫৬ হাজার ৮২০ জন এবং ছাত্রী ৫২ হাজার ৮৭২ জন। পাস করেছে ৬৬ হাজার ২৫৮ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৩১ হাজার ৬৫২ জন এবং ছাত্রী ৩৪ হাজার ৬০৬ জন। পাসের হার ৬০ দশমিক ৪০শতাংশ। যা গতবার ছিল ৭০ দশমিক ২ শতাংশ, তার আগের বছর ছিল ৮৩ দশমিক ৪২ শতাংশ। 

বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ১৯ হাজার ৩০৪ জন, পাস করেছে ১৫ হাজার ৬১৮ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৬৮ হাজার ৮৯৮ জন, পাস করেছে ৩৫ হাজার ৭২৮ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ২১ হাজার ৪৯০ জন, পাস করেছে ১৪ হাজার ৯১২ জন।

চট্টগ্রাম বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, চট্টগ্রামে এবার পরীক্ষার্থী ছিল ৯৬ হাজার ৮৫৮ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৪৭ হাজার ৬২৮ জন এবং ছাত্রী ৪৯ হাজার ২৩০ জন। পাস করেছে ৬০ হাজার ৭৫৫ জন। এর মধ্যে ছাত্র ২৮ হাজার ৩২৬ জন এবং ছাত্রী ৩২ হাজার ৪২৯ জন। পাসের হার ৬২ দশমিক ৭৩ শতাংশ, যা গতবার ছিল ৬১ দশমিক ৯ শতাংশ। 

বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ২০ হাজার ৪৯৯ জন, পাস করেছে ১৪ হাজার ৯৮৬ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৩৭ হাজার ৭৭৬ জন, পাস করেছে ১৯ হাজার ৫২৮ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ৩৮ হাজার ৫৮৩ জন, পাস করেছে ২৬ হাজার ২৪১ জন।

বরিশাল বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, বরিশালে এবার পরীক্ষার্থী ছিল ৬২ হাজার ১৭৩ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৩১ হাজার ৮১৭ জন এবং ছাত্রী ৩০ হাজার ৩৫৬ জন। পাস করেছে ৪৩ হাজার ৮৬১ জন। এর মধ্যে ছাত্র ২০ হাজার ৭৯১ জন এবং ছাত্রী ২৩ হাজার ৭০ জন। পাসের হার শতকরা ৭০ দশমিক ৫৫ শতাংশ, যা গতবার ছিল ৭০ দশমিক ২৮ শতাংশ। 

বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ১২ হাজার ৫৩৯ জন, পাস করেছে ৯ হাজার ৪৮২ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৩৩ হাজার ৪১ জন, পাস করেছে ২১ হাজার ৯৬৬ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ১৬ হাজার ৫৯৩ জন, পাস করেছে ১২ হাজার ৪১৩ জন।

সিলেট বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, সিলেটে এবার পরীক্ষার্থী ছিল ৭১ হাজার ৪২ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৩২ হাজার ৫৬১ জন এবং ছাত্রী ৩৮ হাজার ৪৮১ জন। পাস করেছে ৪৪ হাজার ১২৭ জন। এর মধ্যে ছাত্র ১৯ হাজার ১৮৬ জন এবং ছাত্রী ২৪ হাজার ৯৪১ জন। পাসের হার কমে হয়েছে ৬২ দশমিক ১১ শতাংশ, যা গতবার ছিল ৭২ শতাংশ। 

বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ১২ হাজার ১৪৫ জন, পাস করেছে ১০ হাজার ১০০ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৪৭ হাজার ১১৪ জন, পাস করেছে ২৬ হাজার ৩ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ১১ হাজার ৭৮৩ জন, পাস করেছে ৮ হাজার ২৪ জন।

দিনাজপুর বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, দিনাজপুরে এবার পরীক্ষার্থী ছিল ১ লাখ ১৯ হাজার ৫০৭ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৬২ হাজার ৪৫ জন এবং ছাত্রী ৫৭ হাজার ৪৬২ জন। পাস করেছে ৭১ হাজার ৯৫১ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৩৪ হাজার ৮৮৪ জন এবং ছাত্রী ৩৭ হাজার ৬৭ জন। পাসের হার শতকরা ৬০ দশমিক ২১ শতাংশ, যা গতবার ছিল শতকরা ৬৫ দশমিক ৪৪ শতাংশ। 

বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ২৬ হাজার ৯৪৮ জন, পাস করেছে ১৮ হাজার ৮৮৯ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৭৬ হাজার ৩৭ জন, পাস করেছে ৪৩ হাজার ২৫৬ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ১৬ হাজার ৫২২ জন, পাস করেছে ৯ হাজার ৮০৬ জন।

কমেছে জিপিএ-৫ : এবার ১০ বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৯ হাজার ২৬২ জন। যা গতবার ছিল ৩৭ হাজার ৯৬৯ জন। ২০১৬ সালে ছিল ৫৮ হাজার ২৭৬ জন। ২০১৫ সালে এ সংখ্যা ছিল ৪২ হাজার ৮৯৪ জন, ২০১৪ সালে ৭০ হাজার ৬০২ জন, ২০১৩ সালে ৫৮ হাজার ১৯৭ জন, ২০১২ সালে ৬১ হাজার ১৬২ জন এবং ২০১১ সালে ছিল ৩৯ হাজার ৭৬৯ জন।

এবার জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের মধ্যে ছাত্র ১৫ হাজার ৫৮১ জন এবং ছাত্রী ১৩ হাজার ৬৮১ জন। ঢাকা বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৯৩৮ জন, রাজশাহী বোর্ডে ৪ হাজার ১৩৮ জন, কুমিল্লা বোর্ডে ৯৪৪ জন, যশোর বোর্ডে ২ হাজার ৮৯ জন, চট্টগ্রাম বোর্ডে ১ হাজার ৬১৩ জন, বরিশাল বোর্ডে ৬৭০ জন, সিলেট বোর্ডে ৮৭৩ জন, দিনাজপুর বোর্ডে ২ হাজার ২৯৭ জন, মাদ্রাসা বোর্ডে ১ হাজার ২৪৪ জন, কারিগরি বোর্ডে ২ হাজার ৪৫৬ জন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ