ঢাকা, শনিবার 21 July 2018, ৬ শ্রাবণ ১৪২৫, ৭ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

উদ্বোধনী জুটিতে বিশ্বরেকর্ড গড়লেন পাকিস্তানের ইমাম-জামান

স্পোর্টস রিপোর্টার : ওয়ানডে ক্রিকেটে উদ্বোধনী উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ রানের বিশ্বরেকর্ড গড়লেন পাকিস্তানের দুই ওপেনার ইমাম-উল-হক ও ফখর জামান। গতকাল বুলাওয়েতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডে ম্যাচে উদ্বোধণী জুটিতে ২৫২ বলে ৩০৪ রান করেন ইমাম-জামান। এর আগে উদ্বোধনী জুটিতে সর্বোচ্চ রানের মালিক ছিলেন শ্রীলংকার সনাথ জয়সুরিয়া ও উপুল থারাঙ্গা। ২০০৬ সালে লিডসে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শ্রীলংকার দুই ওপেনার থারাঙ্গা ও জয়সুরিয়ার উদ্বোধণী জুটিতে ১৯১ বলে ২৮৬ রান করে বিশ্ব রেকর্ডে করেন। ১২ বছর পর ওয়ানডেতে উদ্বোধণী জুটিতে নতুন বিশ্বরেকর্ডের জন্ম দিলেন পাকিস্তানের ইমাম-জামান। ইমাম-জামানের ৩০৪ রানের জুটি বিশ্ব রেকর্ডের তালিকায় চতুর্থস্থানে। ওয়ানডে ক্রিকেটে জুটি বেঁধে সর্বোচ্চ রান বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল ও মারলন স্যামুয়েলস। ২০১৫ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপের পুল ‘বি’র ম্যাচে ক্যানবেরায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় উইকেটে অবিচ্ছিন্ন ৩৭২ রান যোগ করেন গেইল-স্যামুয়েলস জুটি। দ্বিতীয় ও তৃতীয়স্থান দখলে রয়েছে ভারতের। ১৯৯৯ সালে হায়দারাবাদে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় উইকেটে ৩৩১ রান যোগ করেন ভারতের শচীন টেন্ডুলকার ও রাহুল দ্রাবিড়। শুধুমাত্র উদ্বোধণী জুটিতেই নয়, পাকিস্তানের হয়ে যেকোন উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডও এখন ইমাম-জামানের দঝখলে। পাকিস্তানের হয়ে যেকোন উইকেটে এর আগে রেকর্ডটি ছিলো আমির সোহেল ও ইনজামাম-উল-হকের। ১৯৯৪ সালে শারজাহতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় উইকেটে ২৬৩ রান করেছিলেন সোহেল-ইনজামাম জুটি। তবে গতকাল সোহেল-ইনজামামের রেকর্ড জুটিও ভেঙ্গে ফেললেন ইমাম-জামান। একই বছর ওয়ানডে বিশ্বকাপে টনটনে শ্রীলংকার বিপক্ষে দ্বিতীয় উইকেটে ৩১৮ রান যোগ করেন ভারতের সৌরভ গাঙ্গুলী ও দ্রাবিড়। গতকাল সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং বেছে নেয় পাকিস্তান। ব্যাট হাতে নেমে অবলীলায় রান তুলেছেন পাকিস্তানের দুই ওপেনার ইমাম-জামান। ১০৬ বলে শতরান, ১৯০ বলে দু’শত এবং ২৫০ বলে ৩’শত রানের জুটি গড়েন ইমাম-জামান। ইনিংসের ২৫২তম বলে স্কোর বোর্ডে ৩০৪ রান রেখে বিচ্ছিন্ন হন তারা। এরমধ্যে ইমাম-জামান দু’জনই স্বাদ নেন সেঞ্চুরির। ৮টি চারে ১২২ বলে ১১৩ রান করে আউট হন ইমাম। তবে ওয়ানডেতে পাকিস্তনের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ডাবল-সেঞ্চুরি তুলে নেন জামান। শেষ পর্যন্ত ২৪টি চার ও ৫টি ছক্কায় ১৫৬ বলে অপরাজিত ২১০ রান করেন জামান। ওয়ানডে ক্রিকেটে এটাই পাকিস্তানের পক্ষে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি।  আর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চতুর্থ ওয়ানডেতে দেশের হয়ে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন ওপেনার ফখর জামান। এতদিন পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ওয়ানডে ইনিংসের রেকর্ড ছিল সাঈদ আনোয়ারের। ১৯৯৭ সালে চেন্নাইয়ে ভারতের বিপক্ষে তিনি করেছিলেন ১৯৪। শুক্রবার অপরাজিত ২১০ রান করে সাঈদ আনোয়ারের ২১ বছরের অক্ষত রেকর্ডটা ভেঙে দিলেন ফখর জামান। সাঈদ আনোয়ারের আরো একটি রেকর্ড ভেঙেছেন ফখর। তার ১৫৬ বলের ইনিংসে বাউন্ডারি ছিল ২৯টি (২৪ চার, ৫ ছক্কা), যা এক ইনিংসে পাকিস্তানের কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ। সাঈদ আনোয়ারের ১৯৪ রানের ইনিংসে বাউন্ডারি ছিল ২৭টি (২২ চার, ৫ ছক্কা)। ফখরের ২১০ রান ওয়ানডে ইতিহাসে পঞ্চম সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস। ২৬৪ রান করে সবার ওপরে আছেন ভারতের রোহিত শর্মা। ওয়ানডেতে ডাবল সেঞ্চুরির সংখ্যা দাঁড়াল ৮টি। এর মধ্যে রোহিত একাই করেছেন তিনটি! শচীন টেন্ডুলকার, বীরেন্দর শেবাগ, ক্রিস গেইল এবং মার্টিন গাপটিলের একটি করে। রেকর্ড গড়া এই ম্যাচে ৫০ ওভারে পাকিস্তান ১ উইকেট হারিয়ে তুলেছে ৩৯৯ রান। ওয়ানডেতে এটিই পাকিস্তানের সর্বোচ্চ দলীয় স্কোর। ২০১০ সালে ডাম্বুলায় বাংলাদেশের বিপক্ষে ৭ উইকেট হারিয়ে করা ৩৮৫ রান ছিল আগের সর্বোচ্চ। চলতি বছরের জুনে নটিংহামে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ৪৮১ রান করে বিশ্বরেকর্ড গড়ে ইংলিশরা। পাকিস্তানের দেয়া ৩৯৯ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে জিম্বাবুয়ে ৪২.৪ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৫৫ রান করে। ফলে পাকিস্তান জয় পায় ২৪৪ রানে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ