ঢাকা, রোববার 22 July 2018, ৭ শ্রাবণ ১৪২৫, ৮ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অনুমোদন সত্ত্বেও মিলছে না রেস্ট হাউস

২১ জুলাই, ডন : কর্তৃপক্ষের অনুমোদন সত্ত্বেও কারাগার ছেড়ে অপেক্ষাকৃত বেশি সুযোগ-সুবিধার রেস্ট হাউসে থাকার সুযোগ হচ্ছে না কারাদ-প্রাপ্ত পাকিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের। শিহালা পুলিশ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের একটি রেস্টহাউসকে সাবজেল ঘোষণা করে কারাদ-প্রাপ্ত নওয়াজ, তার মেয়ে মরিয়ম ও তার স্বামী সফদার আলীকে সেখানে রাখার নির্দেশ দেন ইসলামাবাদের চিফ কমিশনার। তবে রেস্ট হাউস কর্তৃপক্ষ বলছে, হাই প্রোফাইল কারাবন্দীদের জন্য প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা আয়োজন না থাকায় তাদের সেখানে নেয়া হচ্ছে না। লন্ডনে কেনা চারটি বিলাসবহুল ফ্ল্যাটের মূল্য পরিশোধে দেওয়া অর্থের উৎস দেখাতে ব্যর্থ হওয়ার দায়ে ৬ জুলাই নওয়াজ শরিফকে ১০ বছরের কারাদ- দেয় পাকিস্তানের একাউন্টিবিলিটি আদালত। মেয়ে মরিয়মকে দেওয়া হয় ৭ বছরের সশ্রম কারাদ-। ১৩ জুলাই লন্ডন থেকে আবুধাবি হয়ে দেশে ফিরে গ্রেফতার হলে নওয়াজ ও মরিয়মকে আদিয়ালা জেলে পাঠায় আদালত। একই মামলায় দ- পাওয়া মরিয়মের স্বামী ক্যাপ্টেন (অব) সফদার আলীও একই কারাগারে রয়েছেন।

গত ১৪ জুলাই কারাগারে বাবার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে নওয়াজের পুত্র হুসেইন নওয়াজ অভিযোগ তোলেন, কারাগারে তার বাবাকে ঘুমানোর খাট পর্যন্ত দেওয়া হয়নি। ব্যবহার করতে দেওয়া হয়েছে নোংরা বাথরুম। এর কয়েকদিনের মাথায় গত বৃহস্পতিবার সকালে কারাগারে নিজের ব্যারাক প্রাঙ্গণে হাঁটতে বের হওয়ার পর নওয়াজ কারাবন্দীদের ক্ষোভের মুখে পড়ার খবর প্রকাশ করে ডন। এমন পরিস্থিতিতে নওয়াজ পরিবারের তিনজনকে আদিয়ালা কারাগার থেকে শিয়ালা পুলিশ প্রশিক্ষণ কলেজের অভ্যন্তরে অবস্থিত রেস্ট হাউজকে সাবজেলে রূপান্তর করে সেখানে স্থানান্তর করতে সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন ইসলামাবাদের চিফ কমিশনার। আইন অনুযায়ী সংশ্লিষ্টদের এই ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি। তবে রেস্ট হাউস কর্তৃপক্ষের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সূত্র ডনকে জানিয়েছে, নওয়াজ পরিবারের জন্য যথেষ্ট নিরাপদ নয় এই রেস্টহাউস। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ছয়টি কক্ষ ও প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা থাকলেও বাড়িটির কোনও সীমানা প্রাচীর নেই।

সরকারি সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে ডন জানিয়েছে, নওয়াজ পরিবারকে রেস্ট হাউসে সরানোর পরিবর্তে আদিয়ালা কারাগার থেকে কয়েকজন বিপদজনক বন্দিকে প্রদেশের অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার বিষয় বিবেচনা করে দেখছেন তারা। নওয়াজ পরিবারের নিরাপত্তার সমস্যা সমাধানের পথ হিসেবে এই বিষয় বিবেচনা হচ্ছে বলে জানায় ওই সূত্রটি।

কারাগারে নওয়াজ শরিফকে ব্যক্তিগত পোশাক, বাথরুম সামগ্রী ও বিছানাপত্র ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। একজন রান্নার লোক তার প্রয়োজন অনুযায়ী রান্না করে দিচ্ছেন। এসব খরচ কারাবন্দীদের জন্য থাকা একাউন্টের মাধ্যমে নিজেই যোগাচ্ছেন নওয়াজ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ