ঢাকা, রোববার 22 July 2018, ৭ শ্রাবণ ১৪২৫, ৮ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে হাইটেক পার্ক হবে চট্টগ্রামে

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রামে সিঙ্গাপুর-ব্যাংকক মার্কেটে সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক স্থাপনের লক্ষে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এবং বাংলাদেশ হাই টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের মধ্যে এক সমঝোতা স্মারক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরে হোটেল রেডিসন ব্লু’র বে -ভিউ-তে এই স্মারক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তি পত্রে বাংলাদেশ হাই টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম এনডিসি এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের পক্ষে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা স্বাক্ষর করেন। চট্টগ্রাম ওয়াসা ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ কে এম ফজলুল্লাহ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. হানিফ সিদ্দিকি, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক প্রকল্প পরিচালক আজিজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক অথরিটি এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মধ্যে যে চুক্তি সম্পাদিত হতে যাচ্ছে তা ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের অংশ মাত্র। ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক অথরিটি একটি শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি বন্দরনগরী চট্টগ্রামের গুরুত্ব উপলব্ধি করে এ নগরীতে তথ্য প্রযুক্তির বিকাশ ও সম্প্রসারণের লক্ষ্যে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের অধীন আগ্রাবাদস্থ সিঙ্গাপুর ব্যাংকক মার্কেট এর ৬ হতে ১১ তলা পর্যন্ত সম্প্রসারণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে ৩০ (ত্রিশ) কোটি টাকা বিনিয়োগের মাধ্যমে সম্প্রসারিত ৫টি ফ্লোরে সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক স্থাপন করা হবে। এই হাইটেক পার্ক সফটওয়্যার ডেভেলবমেন্ট ও আইসিটি পণ্য উদ্ভাবনের মাধ্যমে  আমাদের কাংখিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে সক্ষম হবে।চট্টগ্রাম নগরীতে হাইটেক পার্ক সফটওয়্যার পল্লী’র নির্মাণের কথা উল্লেখ করে মেয়র বলেন এই প্রকল্পের আওতায় চান্দগাঁও বিএফআইডিসি রোডস্থ বড়ুয়া পাড়া এলাকায় চসিক’র নিজস্ব ১১ একর জায়গা রয়েছে। এই জায়গাতেই বঙ্গবন্ধুর পুত্র ‘শেখ কামাল আ্ইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার’ প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেয়ার জন্য বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষকে প্রস্তাব দেন।
অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে হাই টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম বলেন, চট্টগ্রামকে হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ অতীতে যেমন গুরুত্ব দিয়েছে,বর্তমানেও দিচ্ছে। আগামীতেও তা সমান গুরুত্ব দিয়ে যাবে।
আইসিটি’র জন্য চট্টগ্রাম একটি উত্তম জায়গা। বর্তমান সময়ের প্রেক্ষিতে আইসিটি ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। এই সত্য অনুধাবন করে বর্তমান সরকার ধারাবাহিক ভাবে ৬৪ জেলায় আইটি পার্ক,সফটওয়্যার টেকনোলজি সেন্টার, ট্রেনিং সেন্টার নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। 
পরে সিটি মেয়র, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এবং চসিক শীর্ষ কর্মকর্তাবৃন্দ চান্দগাঁও বড়ুয়া পাড়াস্থ চসিক’র নিজস্ব জায়গাটি সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে মেয়র হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষকে সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক নির্মাণের জন্য চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কাছে আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব পাঠানোর পরামর্শ দিয়েছেন। অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ কে এম ফজলুল্লাহ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. হানিফ সিদ্দিকি, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক প্রকল্প পরিচালক আজিজুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ত্রিমাত্রিক’র সিইও প্রকৌশলী সাইদ মোশাররফ আলী নিশাদ পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে উপস্থাপন করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ