ঢাকা, সোমবার 23 July 2018, ৮ শ্রাবণ ১৪২৫, ৯ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বিশ্বকাপ জিততে চান অনূর্ধ্ব-১৯ দলের নতুন কোচ নাভিদ নাওয়াজ

স্পোর্টস রিপোর্টার : বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের নতুন কোচ হিসেবে যোগ দিয়েছেন শ্রীলংকার নাভিদ নওয়াজ। আগামী যুব বিশ্বকাপকে সামনে রেখে তাকে নিয়োগ দেয়া হয়। দুই বছর পর দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে শিরোপা উপহার দেওয়াই তার টাগেট। গত সপ্তাহে তরুণ ক্রিকেটারদের দায়িত্ব নিয়েই খুলনায় চলে যান নওয়াজ। হাই পারফরম্যান্স দলের বিপক্ষে শিষ্যদের তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শেষে এখন তিনি ঢাকায়। গতকাল মিরপুর শরে বাংলা স্টেডিয়ামে প্রথম বারের মতো সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে আশার কথাই শুনিয়েছেন তিনি। নাভিদ বলেন, ‘বাংলাদেশকে আমি বিশ্বকাপের শিরোপা এনে দিতে চাই। সামর্থ্য অনুযায়ী বাংলাদেশ দলের পক্ষে বিশ্বকাপ জেতা সম্ভব। কারণ ছেলেরা যথেষ্ট দক্ষ। সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ, ছেলেদের কন্ডিশন অনুযায়ী প্রস্তুত করা। সর্বশেষ বিশ্বকাপ হয়েছিল নিউজিল্যান্ডে। আর নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশন বাংলাদেশের চেয়ে সম্পূর্ণ ভিন্ন। আগামী বিশ্বকাপ দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলতে হবে আমাদের। সেখানকার কন্ডিশন আবার অন্যরকম। তাই ছেলেদের দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য প্রস্তুত করতে হবে।’ শিরোপার ভাবনা থাকলেও ধীরে-ধীরে এগোনোর লক্ষ্য শ্রীলংকার এই সাবেক ব্যাটসম্যানের। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য নক আউট পর্বে জায়গা করে নেওয়া। পাশাপাশি শিরোপা জয়ের ভাবনা তো আছেই। তবে আমাদের ধাপে ধাপে এগোতে হবে। এখনও ছেলেদের খুব কাছ থেকে দেখা হয়নি। তবে আমি নিশ্চিত, বাংলাদেশের ছেলেদের প্রতিভা আছে। আশা করি, ওদের ঠিকমতো তৈরি করতে পারবো।’ একটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে খেলা নওয়াজ বলেন, ‘আমি খুলনায় ছেলেদের তিনটি ম্যাচ দেখে তাদের সম্পর্কে কিছুটা ধারণা পেয়েছি। আমার পরিকল্পনা ২০২০ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে। আমাদের দলে সাত/আট জন পেসার রয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকায় ভালো পেস আক্রমণ সাফল্যের চাবিকাঠি। আমি তাই দলের জন্য শক্তিশালী পেস আক্রমণ গড়ার কথাই ভাবছি।’ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সেরা সাফল্য তৃতীয় স্থান। দুই বছর আগে ঘরের মাঠে তৃতীয় হয় বাংলাদেশ যুবদল। অনেক সম্ভাবনাময় দল নিয়েও ফাইনালে উঠতে পারেনি লাল-সবুজের দল। আর এ বছর নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে পঞ্চম স্থান নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে সাইফ-আফিফদের। সোনালী ট্রফি আজও তরুণ ক্রিকেটারদের অধরা। তবে নতুন কোচ এবার শুনালেন আশার বাণী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ