ঢাকা, সোমবার 23 July 2018, ৮ শ্রাবণ ১৪২৫, ৯ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাজশাহীতে একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচন উপহার দেবে মহানগর পুলিশ

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী পুলিশ কমিশনার একেএম হাফিজ আকতার বিপিএম বলেছেন, আমাদের মূল লক্ষ্য আসন্ন ৩০ তারিখের নির্বাচন। এখানে যাতে এ ধরণের ঘটনা না ঘটে, যেই করুক, যে কোন লোকই করুক, আমরা তা প্রতিহত করবো। আগামী ৩০ তারিখে একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচন আমরা উপহার দিব। বিএনপি’র প্রচারণায় ককটেল হামলার সাথে যারাই জড়িত আছে তাদের সকলকে অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হবে।
গতকাল রোববার আরএমপি সদর দপ্তরের কনফারেন্স রুমে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি। এ সময় তিনি গণসংযোগে ককটেল হামলার ঘটনার মামলায় গ্রেফতার জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মন্টুর কথোপকথনের অডিও বার্তার রেকর্ড শোনান। পুলিশ কমিশনার বলেন, ককটেল হামলার বিষয়ে আমরা রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ সর্বোচ্চ গুরুত্ব এবং অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আমরা একটি চৌকশ অফিসারদের সমন্বয়ে একটি বিশেষ টিম গঠন করি। ঘটনার সম্পৃক্ত সন্দেহে তখনই পুলিশ একজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে আমরা কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাই। তদন্তের এক পর্যায়ে মামলার স্বার্থেই ফোনের কথপোকথন একটি অডিও রেকর্ড হাতে পাই। যেখানে রাজশাহী জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক একেএম মতিউর রহমান মন্টু, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা তাইফুল ইসলামকে ককটেল হামলায় নিজেদের সম্পৃক্ততার বিষয়টি আলোচনা করেন এবং তিনি ঘটনার সাথে জড়িত দুইজন নিজেদেরই ব্যক্তির নাম উল্লেখ করেন। যা সুষ্ঠু নির্বাচন ব্যহত বা প্রশ্নবিদ্ধ করার লক্ষ্যে জনগণের সহমর্মিতা অর্জন করতে এবং জনগণকে নিজেদের দিকে টানতে নিজেরাই পরিকল্পিতভাবে এ ককটেল বিস্ফোরণটি ঘটায়। প্রকৃত ঘটনার জন্য আমরা একেএম মতিউর রহমান মন্টুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আমাদের হেফাজতে নিই। উল্লিখিত ঘটনায় জড়িত সকল ব্যক্তি, যারা পরিকল্পনাকারী, মদদদাতা এবং সহযোগীদের গ্রেফতারপূর্বক প্রচলিত আইনে বিচারের আওতায় আনতে তৎপর রয়েছি। আমাদের নিকট সে অডিও টেপটি আছে। যারাই জড়িত আছে তাদের অবশ্যই আইনের আওতায় আনতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ