ঢাকা, মঙ্গলবার 24 July 2018, ৯ শ্রাবণ ১৪২৫, ১০ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

এশিয়ান গেমসের প্রস্তুতি নিতে আজ দঃ কোরিয়া যাচ্ছে হকি দল

স্পোর্টস রিপোর্টার : আসন্ন এশিয়ান গেমসকে সামনে রেখে ভাল প্রস্তুতির লক্ষ্যে দক্ষিন কোরিয়া যাচ্ছে বাংলাদেশ হকি দল।এশিয়ান গেমস হকিতে বাংলাদেশের গ্রুপ প্রতিপক্ষ পাকিস্তান, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া ও ওমান। ১২ জাতির এ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের লক্ষ্য ৬ষ্ট স্থান। সেই লক্ষ্য নিয়েই প্রস্তুতি শুরু করেছেন জিমি-চয়নদের মালয়েশিয়ান কোচ ইমান গোপিনাথন কৃষ্ণমূর্তি।আগামী মাসে ইন্দোনেশিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য এশিয়ান গেমসের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে ইতিমধ্যেই ভারত সফরে অনুশীলনের পাশাপাশি ৬ টি প্রস্তুতি ম্যাচও খেলেছে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। সবগুলো ম্যাচই হেরেছে বড় ব্যবধানে।তাই চীন সফর বাতিল করে দ.কোরিয়ায় দল পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন। মালয়েশিয়ান কোচ গোপিনাথনের পরামর্শেই এই সিদ্ধান্ত। কোচ এশিয়ান গেমসের আগে কোরিয়া সফরকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন। গ্রুপে যে ৫ প্রতিপক্ষ আছে তাদের মধ্যে পাকিস্তান ও মালয়েশিয়াকে হারানোর কোন সম্ভাবনা নেই বাংলাদেশের। বাংলাদেশের চেয়ে র‌্যাংকিংয়ে পিছিয়ে থাকা দুই দল থাইল্যান্ড ও ইন্দোনেশিয়াকে হারানোর পরিকল্পনা কোচের। এর বাইরে থাকা ওমান এখন বাংলাদেশের কঠিন প্রতিপক্ষ। এ ম্যাচ জিতলে ৬ নম্বর হওয়ার পথ তৈরি হবে বাংলাদেশের।গতকাল সোমবার জাতীয় হকি দলের মালয়েশিয়ান কোচ গোপিনাথন কোরিয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়ার আগে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন। তিনি বললেন,‘ভারত সফরে আমরা অনেক ভুল করেছি। অনেক দূর্বলতাও চোখে পড়েছে খেলোয়াড়দের। দেশে ফিরে সেগুলো সংশোধনে কাজ করেছি। কতটুকু কাজ হলো সেটাই দেখবো দক্ষিণ কোরিয়া গিয়ে। সেখানে অনুশীলনের পাশপাশি কয়েকটি প্রস্তুতি ম্যাচও খেলবো’।

‘কোরিয়া সফরটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যখন অনুশীলন ম্যাচ খেলবেন তখন নতুন কিছু শিখবেন, নিজেদের দূর্বলতা চিহ্নিত করতে পারবেন। তারপর আরো ম্যাচ খেললে আগের ভুলত্রুটিগুলো সংশোধন করতে পারবেন। দক্ষিণ কোরিয়াতে আমরা সেটাই করতে চাই’ -বলেছেন গোপিনাথন। এশিয়ান গেমসে বাংলাদেশের লক্ষ্য প্রসঙ্গে মালয়েশিয়ান কোচ বলেছেন, ‘যে দলগুলো র‌্যাংকিংয়ে আমাদের নিচে আছে তাদের হারাতে হবে। আর যারা বেশি শক্তিশালী তাদের সঙ্গে ভালো লড়াই করতে হবে। মালয়েশিয়া ও পাকিস্তানের সঙ্গে আমরা ভালো হকি খেলে লড়াই করতে চাই। আমরা এশিয়ান র‌্যাংকিংয়ে এখন ৮ এ আছি। যদি এখান থেকে দুই ধাপ ওপরে ওঠা যায় সেটা হবে আমাদের জন্য খুব ভালো।’ ওমান এখন বাংলাদেশেন চেয়ে উপরের র‌্যাংকিংয়ে। এ দেশটিকে হারানো সম্ভব কিনা সে প্রসঙ্গে জাতীয় দলের কোচ বলেছেন,‘ওমান এখন অনেক ভালো দল। সাম্প্রতিক সময় ওমান বাংলাদেশকে অনেক ম্যাচে হারিয়েছে। তারা এ দলটির প্রস্তুতিতে অনেক অর্থও ব্যয় করেছে। দলটিকে নেদারল্যন্ডস পাঠিয়ে অনুশীলন করানো হয়েছে। তারপরও আমরা তাদের সহজে ছাড় দেব না। আমরা তাদের হারানোর মানসিক প্রস্তুতি নিয়েই যাবো।’বাংলাদেশের খেলোয়াড়ের যোগ্যতা সম্পর্কে মালয়েশিয়ান কোচ বলেছেন,‘ভারতে প্রাকটিস ম্যাচের পর আমি মনে করি ছেলেরা সাহসী হয়েছে। তারা জানে মাঠে তাদের কি করতে হবে। আমার মনে হয় বাংলাদেশ-ওমান ম্যাচটি হবে ফিফটি ফিফটি।’ উল্লেখ্য এশিয়ান গেমসে বাংলাদেশের ম্যাচগুলো ২০ আগস্ট ওমানের, ২২ আগস্ট ইন্দোনেশিয়ার, ২৪ আগস্ট মালয়েশিয়ার, ২৬ আগস্ট থাইল্যান্ডের ও ২৮ আগস্ট পাকিস্তানের বিরুদ্ধে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ