ঢাকা, মঙ্গলবার 24 July 2018, ৯ শ্রাবণ ১৪২৫, ১০ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খুলনায় ওসির বিরুদ্ধে ইয়াবা দিয়ে ব্যবসায়ীকে ফাঁসানোর অভিযোগ

খুলনা অফিস: হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের হরিণটানা থানা সভাপতি ও ব্যবসায়ী বিকাশ কুমার দে’কে হরিণটানা থানা পুলিশ ইয়াবা দিয়ে মিথ্যাভাবে মাদক মামলায় ফাঁসানোর প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।  গত মঙ্গলবার খুলনা প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের মহানগর শাখার নেতৃবৃন্দ এ প্রতিবাদ জানান। তবে, তাদের অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবি করেছে হরিণটানা থানার ওসি নাসিম খান।
সাংবাদিক সম্মেলনে ঐক্য পরিষদের সভাপতি বীরেন্দ্রনাথ ঘোষের সঞ্চালনায় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সাধারণ সম্পাদক গোপাল চন্দ্র সাহা।
লিখিত বক্তৃতায় তিনি বলেন, গত ৯ জুন খুলনা বিকাশ কুমার দে’কে হরিণটানা থানা পুলিশ একটি নন জি.আর.ও মামলার ওয়ারেন্টের আসামী হিসাবে তার নিজ বাসভবন থেকে ভোর ছয়টায় গ্রেফতার করে। একইসাথে কৈয়া বাজারে কয়েকজনকে ডেকে বলা হয়, বিকাশকে ওয়ারেন্টের আসামী হিসাবে থানায় নিয়ে যাচ্ছি তোমরা এই কাগজে স্বাক্ষর কর। এই কথা বলে কয়েকজনের কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়া হয়।
অতঃপর হরিণটানা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ নাসিম খান তাকে ৫২ পিস ইয়াবা দিয়ে মিথ্যা মাদক মামলা দিয়ে আদালতে চালান দেয়। একইসাথে বিকাশের ব্যাপারে কোন রকম আন্দোলন বা কোন কথা বলা যাবে না বলে সতর্ক করে পুলিশ। বাড়াবাড়ি করলে তাদের ক্রসফায়ারেরও হুমকি দেওয়া হয়। সম্মেলনে আরও বলা হয়, বিকাশের পরিবারের সদস্যদের থানায় ডেকে নিয়ে হরিণটানা থানা অফিসার ইনচার্জ এ নিয়ে কোন বাড়াবাড়ি করতে নিষেধ করেন এবং বাড়াবাড়ি করলে বিকাশের আরও ভয়ঙ্কর ক্ষতি হবে বলেও জানান।
উল্লেখ্য বিকাশ কৈয়া বাজার এলাকার একজন জনপ্রিয় ব্যক্তি এবং কৈয়া বাজার ব্যবসায়ী কমিটির বিপুল ভোটে নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক। এছাড়া সে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান এবং বিভিন্ন সামাজিক প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ পদে প্রতিষ্ঠিত আছেন।
এ ব্যাপারে হরিণটানা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  মো. নাসিম খান বলেন, গ্রেফতারকৃত বিকাশ কুমার দে অস্ত্র ও ধর্ষণসহ একাধিক মামলার আসামী।
গ্রেফতারের সময় তার কাছে ৫২ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। এ মামলার চার্জশীট দেয়ার প্রস্তুতি চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ