ঢাকা, বুধবার 25 July 2018,১০ শ্রাবণ ১৪২৫, ১১ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

একনজরে পাক নির্বাচনের খুঁটিনাটি

পাকিস্তানের নির্বাচনের প্রধান তিন প্রতিদ্বন্দ্বী বিলাওয়াল ভুট্টো, ইমরান খান, ও শেহবাজ শরীফ

২৪ জুলাই, কলকাতা : আজ বুধবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচন। প্রধানমন্ত্রীর পদে থাকাকালীন কেউই নিজের কার্যকালের মেয়াদ সম্পূর্ণ করতে পারেননি এ যাবৎ। পাশাপাশি বর্তমান পরিস্থিতিকে মাথায় রেখে এই নির্বাচন যে যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ তা বলাই যায়।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক পাক নির্বাচনের হাল হকিকত।

১) ব্যালট পেপারে হতে চলেছে এই নির্বাচন। সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে সন্ধ্যে ৬টা পর্যন্ত চলবে। ৬টার পরেই পোলিং বুথে উপস্থিত ভোটকর্মীরা ভোটগণনার কাজ শুরু করবে।

২) রাত্রি ৯টা থেকেই নির্বাচনী ফলাফল সংক্রান্ত খবর প্রকাশ্যে আসতে থাকবে। যদিও ছবি স্পষ্ট হবে মধ্যরাতে।

৩) পাকিস্তান ইলেকশন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, দেশে প্রায় ১০.৫ কোটি রেজিস্টার্ড ভোটার রয়েছে।

৪) পাকিস্তানের চারটি প্রান্ত- পঞ্জাব, বেলুচিস্তান, খাইবার পাখতুনখওয়া এবং সিন্ধু এই নির্বাচন হতে চলেছে। জাতীয় সংসদে ২৭২টি আসন রয়েছে। সংরক্ষিত আসন ৭০ (যার মধ্যে মহিলাদের জন্য ৬০ এবং সংখ্যালঘুদের জন্য ১০ আসন রয়েছে)

৫) সরকার গড়তে যুদ্ধ হচ্ছে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জেলবন্দী নওয়াজ শরিফের দল বনাম অন্যতম বিরোধী নেতা ইমরান খান ও প্রয়াত বেনজির ভুট্টোর পুত্র বিলাওয়াল ভুট্টোর মধ্যে।

৬) কোনও দলের সরকার গঠনের জন্য কমপক্ষে ১৩৭ আসনে জয় লাভ করতেই হবে। এই নির্বাচনে ত্রিকোণ যুদ্ধ হবে পিএমএল-এন, পিটিআই এবং পিপিপি-র মধ্যে।

৭) পাকিস্তান মুসলিম লীগ নওয়াজের প্রধান সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ভাই শাহবাজ শরিফ।

৮) পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ-এর প্রধান সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খান।

৯) পাকিস্তান পিপলস্ পার্টির প্রধান প্রয়াত সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর পুত্র বিলাওয়াল ভুট্টো।

১০) গ্লোবাল টেররিস্টের তালিকাভুক্ত হাফিজ সাইদও মিল্লি মুসলিম লীগ নামের একটি দল গঠন করে প্রায় ২০০ প্রার্থী নির্বাচনী ময়দানে নামালেও পাক ইলেকশন কমিশন এখনও একে ছাড়পত্র দেয়নি বলেই জানা গিয়েছে।

একনজরে পাক জাতীয় নির্বাচন:

জাতীয় সংসদ ও প্রাদেশিক আইনসভা মিলে ৮৪৯টি আসনে ভোট ১১৮৫৫ জন প্রার্থী। জাতীয় সংসদে আসন ২৭২ এবং প্রাদেশিক আইনসভায় আসন ৫৭৭। জাতীয় সংসদের মোট ৬০ আসন সংরক্ষিত (মহিলাদের জন্য)। ২৭২টি আসনে সরাসরি ভোট পাঞ্জাবে পড়ছে ১৪৮টি আসন, সিন্ধ প্রদেশে ৬১ আসন, খাইবার পাখতুনখোয়ার ৩৫টি আসন, বেলুচিস্তানে আছে ১৪টি আসন, উপজাতি অধ্যুষিত এলাকার (ফাটা) ১২টি আসন, জাতীয় রাজধানী (ইসলামাবাদ) সংলগ্ন ২টি আসন, সংখ্যালঘুদের জন্য ১০ আসন রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ