ঢাকা, বুধবার 25 July 2018,১০ শ্রাবণ ১৪২৫, ১১ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আজ কুড়িগ্রাম-৩ উলিপুর আসনের উপ-নির্বাচন

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা : আজ বুধবার কুড়িগ্রাম-৩ উলিপুর আসনের উপ-নির্বাচন। গতকাল পর্যন্ত সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের অধ্যাপক এম এ মতিন ও লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টির অধ্যাপক ডাঃ আক্কাছ আলী সরকার এ উপ-নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। গত কয়েকদিনের নির্বাচনী সংহিংসতার কারণে ভোট কেন্দ্রে ভোটারদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এজন্য ২৫ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ৪ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেয়া হয়েছে। কুড়িগ্রাম-৩ আসনে উলিপুর উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ১টি পৌরসভা ও চিলমারী উপজেলার ৪টি ইউনিয়নের ৩ লাখ ৬৩ হাজার ৭৫ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৭৬ হাজার ৪ শত ৭৭ ও নারী ভোটার ১ লাখ ৮৬ হাজার ৫ শত ৯৮ জন। এজন্য উলিপুর উপজেলার ১৩০টি ও চিলমারী উপজেলায় ২৯টি ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ চলছে। কেন্দ্রগুলোর সার্বক্ষণিক নিরাপত্তার জন্য প্রতিটি কেন্দ্রে একজন পুলিশ অফিসারসহ ২২ থেকে ২৬জন সশস্ত্র পুলিশ ও আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। স্ট্রাইকিং ফোর্সে র‌্যার ১৩’র ৩০টি টহল টিমে ৩শত ৪৬জন সদস্য, ১৩ প্লাটুন বিজিবিতে ২ শত ৬৩ জন জওয়ান এর পাশাপাশি বিপুল সংখ্যক অস্ত্রধারী পুলিশ ও আনসার সদস্য নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছেন। ভোটগ্রহণের জন্য ১ শত ৫৯টি কেন্দ্রে ৭ শত ৬৭টি ও অস্থায়ী ১শত ২১টি বুথে দায়িত্ব পালনের জন্য ১শত ৫৯ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৭শত ৬৭ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও ১ হাজার ৫৩৪ জন পোলিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণের জন্য প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। রিটার্নিং অফিসার ও রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসার জিএম সাহাতাব উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠানের জন্য সকল প্রস্ততি নেয়া হয়েছে। যাতে সম্মানিত ভোটারবৃন্দ নির্বিঘেœ ভোট কেন্দ্রে গিয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন। এদিকে র‌্যাব-১৩ এর কমাডিং অফিসার অতিরিক্ত ডিআইজি খন্দকার মোজাম্মেল হক শহরের গতকাল মসজিদুর হুদা মোড়ে সাংবাদিকদের বলেন, ভোট কেন্দ্রের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অন্যান্য বাহিনীর সাথে র‌্যাব কাজ করছে। যাতে ভোটাররা নির্বিঘেœ ভোট কেন্দ্রে এসে ভোট দিতে পারেন। আমরা একটি অবাধ, নিরপক্ষে ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন নিশ্চিত করতে সর্বাত্মকভাবে কাজ করছি। এদিকে গত কয়েকদিনে দুই প্রার্থীর কমীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার কারণে প্রশাসনের এমন উপস্থিতি সাধারণ ভোটারদের মাঝে কতটুকু আতংকা কাটিয়ে ভোটার উপস্থিতি কেমন হয় সেটাই লক্ষনীয় বলে মন্তব্য করছেন এলাকার সাধারণ ভোটারগণ। উল্লেখ্য, গত ১০ মে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এ কে এম মাঈদুল ইসলামের মৃত্যুজনিত কারণে কুড়িগ্রাম-৩ আসনটি শূন্য হয়। এই আসনে গত ১০ জুন নির্বাচন কমিশন উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন। ঘোষিত তফশিল অনুযায়ী ৪ জুলাই প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ