ঢাকা, শুক্রবার 27 July 2018,১২ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৩ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অন্যদের আগেই কেন্দ্রের দখল নিতে নেতা-কর্মীদের নির্দেশ লিটনের

 রাজশাহী অফিস : অন্যদের আগেই কেন্দ্রের দখল নিতে নেতা-কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন রাজশাহী সিটি নির্বাচনে আ’লীগ প্রার্থী ও রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। নেতাকর্মীদের সকাল ৬টায় ভোটকেন্দ্রে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সকাল সকাল ভোটকেন্দ্রে আসতে না পারলে বিএনপি-জামায়াত ভোটকেন্দ্র দখল নিতে পারে। বিএনপি-জামায়াতের কাউকে ভোটকেন্দ্র দখল নিতে দেয়া হবে না। 

গত মঙ্গলবার বিকেলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ মিলনায়তনে মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত নির্বাচনী মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ৩০ জুলাই যুদ্ধের দিন। যুদ্ধ হবে স্বাধীনতা, শহীদদের, উন্নয়ন ও অর্জনের প্রতীক নৌকার সঙ্গে জাতি ও উন্নয়নের চিরশত্রু ধানের শীষের। এদিন আমাদের জিততে হবে। এবার নৌকার পক্ষে যে জোয়ার সৃষ্টি হয়েছে, তাতে মনে হচ্ছে ৩০ জুলাই আমাদের পরাজিত হতে হবে না। বিজয় আসবে। নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়ে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ভোটাদের অনুরোধ করে ভোটকেন্দ্রে নিয়ে আসতে হবে। যারা ভাসমান ভোটার, তাদের ভোট যেন ধানের শীষে না যায়, সেটি খেয়াল রাখতে হবে। লিটন আরো বলেন, রাজশাহীত এখন আর বিএনপি জামায়াতের ঘাঁটি নেই। আমাদের ৩০০ কর্মী থেকে এখন ৩০ হাজার কর্মী হয়েছে। যতদিন আমরা জেগে থাকবো, ততদিন রাজশাহী আর বিএনপি-জামায়াতের ঘাঁটি হবে না।

এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে নগরীর ১৬নং ওয়ার্ডে এক নির্বাচনী পথসভায় খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘২০১৩ সালের নির্বাচনে ভুল করে হোক বা আশা নিয়ে হোক মানুষ বিএনপির প্রার্থীকে মেয়র নির্বাচিত করেছিলো। কিন্তু তার ফলে কী হলো, রাজশাহী পিছিয়ে গেলো। কোনো উন্নয়ন হলো না। এবারের সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন রাজশাহীবাসীর জন্যে অগ্নিপরীক্ষা। কারণ সঠিক সিদ্ধান্ত না নিলে উন্নয়ন হবে না।’ লিটন বলেন, বিএনপির মেয়র বুলবুল গত ৫ বছর রাজশাহীর উন্নয়নের কথা না ভেবে সরকার পতনের আন্দোলনে ব্যস্ত ছিল। এবারো নির্বাচনী ইশতেহারে উন্নয়ন নয়, আছে আন্দোলনের হুমকি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ