ঢাকা, শুক্রবার 27 July 2018,১২ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৩ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সৈয়দ আলী আহসানের ১৬তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

 

“এ এক আলোর ঝরণাধারাÑ এসো স্বস্তি অনুভব করি” এই ব্যানারে গত বুধবার সিএনসি কবি শিক্ষাবিদ জাতীয় অধ্যাপক সৈয়দ আলী আহসানের ১৬তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন করে। ‘মনীসী’র জায়গায় সিএনসি এবার তাকে ‘জীবনশিল্পী’ অভিধায় অভিষিক্ত করে। আলোচনায় উঠে আসে এই ধারায়। এই ধীমান- জ্ঞানবানই ছিলেন জাতীয় সংস্কৃতি কমিশনের চেয়ারম্যান। সিএনসি’র সভাপতি এম.এ মালেকের সভাপতিত্বে নজরুল একাডেমিতে অনুষ্ঠিত এই স্মরণ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন প্রফেসর ড. মাহমুদ শাহ কোরেশী। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় গ্রন্থ কেন্দ্রের সাবেক পরিচালক ফজলে রাব্বি, কবি জাহানারা আরজু, প্রফেসর চেমন আরা, প্রবীণ সাংবাদিক আবদুর রহিম, অধ্যাপক মুহম্মদ মতিউর রহমান। স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন সিএনসি’র নির্বাহী পরিচালক মাহবুবুল হক। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন, কবি হাসান আলিম, ইতিহাস গবেষক মোহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম, গবেষক শাহ আবদুল হালিম, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এম.এ হান্নান প্রমুখ।

প্রধান অতিথি বলেন, জাতি সৈয়দ আলী আহসানকে কখনো ভুলবে না। আমাদের সাহিত্য সংস্কৃতি ও মননের জগতে তিনি কালজয়ী অবদান রেখে গেছেন।

অনুষ্ঠানের বিশেষ এক পর্বে কবি জাহানারা আরজু, প্রফেসর চেমন আরা, প্রফেসর ড. মাহমুদ শাহ কোরেশী, সাংবাদিক আবদুর রহিম ও কবি আল মুজাহিদীকে ‘সৈয়দ আলী আহসান সিএনসি পদক-২০১৮’ প্রদান করা হয়।

সঙ্গীত ও কবিতাপাঠে অংশগ্রহণ করেন শিল্পী মাসুদ রানা, কবি হোসেন আদর, কবি সাঈদ জুবায়ের, বিমল সাহা, কবি জাফর পাঠান, শাহনাজ খান, জেসমিন রুম প্রমুখ।

অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন নূরুল ইসলাম খান মামুন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ