ঢাকা, শনিবার 28 July 2018,১৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৪ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বোদায় করতোয়া নদীতে ভাঙন ॥ হুমকির মুখে সড়ক ও ফসলি জমি

বোদা উপজেলার করতোয়া নদীর রাস্তাঘাট ব্যাপক ভাঙনের মুখে পড়েছে ছবিটি আউলিয়া ঘাট হতে বড়শশী যাওয়ার রাস্তা

বোদা (পঞ্চগড়) সংবাদদাতা : পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় করতোয়া নদীতে ভাঙন শুরু হয়েছে। বর্ষার পানি বৃদ্ধি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নদীতে এই ভাঙন আরও প্রবল আকার ধারণ করেছে। গত দুই সপ্তাহে করতোয়া নদীর প্রায় কয়েকটি গ্রাম, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ হুমকির মুখে পড়েছে। গত বৃহস্পতিবার সরেজমিন ওই ভাঙন কবলিত এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ফসলি জমি সহ বসতভিটা ভাঙ্গনের কবলে পড়েছে। অব্যাহত ভাঙনে পাকা রাস্তা, ফসলি জমি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও মসজিদ হুমকির মধ্যে রয়েছে। বেংহারী বনগ্রাম ইউনিয়নের সোনাচান্দী ও ডাঙ্গাপাড়া, কাজলদিঘী কালিয়াগঞ্জ ইউনিয়নের বোয়ালমারী বারুণী গ্রাম, মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়নের কাউয়াখাল, বড়শশী ইউনিয়নের বিলুপ্ত ছিটমহল সরকারপাড়া, বদেশ্বরী বাড়ি, সর্দারপাড়া গ্রামে নদী ভাঙ্গন অব্যাহত রয়েছে। অব্যাহত নদী ভাঙনে পাকা ও কাচা রাস্তাসহ বিপুল পরিমাণ ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। বড়শশী ইউনিয়নের ইউ,পি চেয়ারম্যান মোঃ আফজাল হোসেন জানান, বড়শশী ইউনিয়নের রাস্তা ঘাট ও বেশ কয়েকটি গ্রাম নদী ভাঙ্গনের কবলে পড়েছে। এ বিষয়ে তিনি একটি আবেদন পত্র পানি উন্নয়ন বোর্ডে প্রেরণ করেছেন। বেংহারী বনগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ আবু জানান, তার ইউনিয়নের সবচেয়ে সোনাচান্দী গ্রামটি নদী ভাঙনের কবলে পড়েছে। তিনিও একটি আবেদনপত্র পানি উন্নয়ন বোর্ডে প্রেরণ করেছেন। কাজলদিঘী কালিয়াগঞ্জ ইউনিয়নের ইউ’পি চেয়ারম্যান আলাউদ্দীন আলাল নদী ভাঙ্গন বিষয়ে বলেন, এ ইউনিয়নের নদী ভাঙনের কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। তবে বেশি নদী ভাঙনের মুখে পড়েছে বোয়ালবামী বারুণী গ্রামটি। মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়নের ইউ’পি চেয়ারম্যান আবু আনছার মোঃ রেজাউল করিম শামীম বলেন কাউয়া খাল ও আউলিয়ার ঘাট এলাকায় সবচেয়ে বেশি নদী ভাঙনের কবলে পড়েছে। তিনি এ বিষয়ে উদ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদনপত্র প্রেরণ করবেন। সরজমিন পরিদর্শন কালে বড়শশী ইউনিয়নের সরকার পাড়া গ্রামের মজিবর রহমান বলেন আমার বাপ-দাদার ভিটা করতোয়া নদীর গর্র্ভে বিলিন হয়েছে গেছে। আমার বাড়ি ভিটা বর্তমানে নদী ভাঙনের হুমকির মুখে পড়েছে। বোদা হতে বড়শশী ইউনিয়নের যাওয়ার একটি মাত্র রাস্তা মাড়েয়া আউলিয়ার ঘাট পার হওয়ার পড়ে নদী গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। স্থানীয় মানুষ জনসহ দুরদুরান্তের মানুষদের বিকল্প রাস্তা দিয়ে বড়শশী যেতে হচ্ছে। বর্তমানে নদী ভাঙ্গন এলাকার পরিবারের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ