ঢাকা, শনিবার 28 July 2018,১৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৪ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রামে সারাদিন গ্যাস সরবরাহ বন্ধ ॥ চরম ভোগান্তিতে নগরবাসী

চট্টগ্রাম ব্যুরো : গতকাল শুক্রবার চট্টগ্রাম মহানগরীতে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ ছিল। ভোর থেকে হঠাৎ গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকায় আবাসিক গ্রাহকরা চরম ভোগান্তিতে পড়ে। সারাদিন চুলা জ্বলেনি নগরীর অধিকাংশ এলাকায়। ফলে সকালের নাস্তা ও দুপুরের খাওয়া তৈরি করতে না পারায় অধিকাংশ মানুষ অভুক্ত থাকার খবর পাওয়া গেছে। মাটির চুলা, ইটের চুলা, ইলেকট্রিক চুলা, কেরোসিনের স্টোভ দিয়ে কিছু কিছু পরিবার জরুরি রান্না সারলেও অনেকেই ভিড় করেন খাবারের দোকান ও রেস্টুরেন্টে। সেখানেও খাবার সংগ্রহের জন্য ছিল লম্বা লাইন। অনেকে খাবার না পেয়ে ফেরত গেছে। আর্থিকভাবে সামর্থ্যবানদের দেখা গেছে এলপি গ্যাস সিলিন্ডারসহ নতুন চুলা কিনছেন।
 নগরবাসী অনেকের অভিযোগ, বিনা নোটিশে গৃহস্থালি লাইনের গ্যাস বন্ধ। সকাল থেকে চুলা জ্বলেনি। দুপুরে বাচ্চাদের কান্না সহ্য করতে না পেরে হোটেল থেকে হোটেলে ঘুরছি। কিন্তু ভাত কিনতে পারছি না। সব জায়গায় লম্বা লাইন। অলিগলি ও মোড়ের সব রেস্টুরেন্টে ছিল ভিড়। কেউ কেউ মোটরসাইকেল, প্রাইভেট কার ও রিকশা নিয়ে এক হোটেল থেকে আরেক হোটেলে ঘুরেছেন খাবার কেনার জন্য।
কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের কর্মকর্তারা বলছেন, ফৌজদারহাট থেকে পুরো চট্টগ্রামে প্রধান সংযোগস্থলে কাজ চলছে। তাই তিন দিন এ গ্যাস সংকট দেখা যেতে পারে।
কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক মনজুরুল হক বলেন, প্রধান সংযোগস্থলে কাজ চলায় কিছুটা বিঘ্ন ঘটছে। ঘণ্টাখানেক পর যেসব জায়গায় গ্যাস সংকট দেখা দিয়েছে সেসব জায়গায় গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক হবে।
পায়েল হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের ফাঁসির দাবি
গতকাল শুক্রবার সকালে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে হানিফ পরিবহনের বাসে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সাইদুর রহমান পায়েল হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের ফাঁসির দাবি করা হয়েছে। মানববন্ধন কর্মসূচিতে সন্দ্বীপ ও হালিশহরের বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনের সদস্যরা মানববন্ধনে অংশ নেন। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, পায়েলকে যে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে এটা কোনো সুস্থ মানুষের কাজ হতে পারে না। মানুষ নামের দানবেরাই তাকে হত্যা করেছে। হানিফ পরিবহনের যে চালক, সহযোগী মিলে পায়েলকে হত্যা করেছে তাদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনতে হবে। পায়েলকে ফিরে পাওয়া না গেলেও তার মতো আর কাউকে যাতে নির্মমভাবে প্রাণ দিতে না হয় সেটি নিশ্চিত করতে হবে। হানিফ পরিবহন বয়কটের দাবি জানিয়ে তারা বলেন, হানিফ পরিবহনের মালিকের অপরাধের তালিকা খতিয়ে দেখে বিচারের আওতায় আনতে হবে। পরিবহন সেক্টরে তারা যে নৈরাজ্য করছে তার লাগাম টেনে ধরতে হবে। সন্দ্বীপ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি একেএম বেলায়েত হোসেনের সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচিতে পায়েলের বড় মামা কামরুজ্জামান চৌধুরী টিটু, মেজো মামা গোলাম সোহরাওয়ার্দী বিপ্লব, ছোট মামা বাহার চৌধুরী শিপন, সমকালের চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান সারোয়ার সুমন, চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালক সারওয়ার হাসান জামিল, মানবাধিকারকর্মী আমিনুল হক বাবু, সন্দ্বীপ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবু ইউছুপ রিপন, উত্তর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রুমানা নাসরিন বক্তব্য দেন। একাত্মতা ঘোষণা করেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম, সন্দ্বীপ এসোসিয়েশনের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউল হাসান শিবলু, প্রচার সম্পাদক কাজী জিয়া উদ্দিন সোহেল, সাংবাদিক এম শামসুল হুদা, চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজান প্রমুখ।
ব্যাংকের কর্মকর্তাকে কুপিয়ে ২ লাখ টাকা ছিনতাই
চট্টগ্রামে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইদ্রিস ও তার চাচাত ভাই মো. জাকারিয়ার কাছ থেকে দুই লাখ টাকা ছিনতাই করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে পটিয়া উপজেলার হাইদগাঁও ইউনিয়নের মাহাদাবাদ আওলার বাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় তাদেরকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করা হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় জাকারিয়া ও ইদ্রিসকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ইদ্রিস এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের পটিয়া শাখার জুনিয়ার অফিসার এবং জাকারিয়া পটিয়া সাব-রেজিষ্ট্্রার অফিসের দলিল লেখক। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, আহত ইদ্রিস তার নিজ প্রয়োজনে ব্যাংক থেকে দুই লাখ টাকা উত্তোলন করে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে তার চাচাত ভাই জাকারিয়াসহ মোটরসাইকেল করে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। সন্ধ্যা ৭টার দিকে হাইদগাঁও আওলার বাড়ি এলাকায় ছয়-সাতজনের একটি দল তাদের মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে। এ সময় ছিনতাইকারীরা তাদের রামদা দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে টাকাসহ ব্যাগ নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন জড়ো হন। তাদের উদ্ধার করে পটিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাতে তাদেরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। চট্টগ্রাম মেডিকেল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম জানান, ধারালো অস্ত্রের কুপে জাকারিয়ার মাথা ফেটে গেছে। এছাড়া তার শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ইদ্রিসের এক হাতের কুপের আঘাত রয়েছে। ইদ্রিস বলেন, ব্যাংক থেকে তুলে নেয়া দুই লাখ টাকা ব্যাগে ছিল। ছিনতাইকারীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে সব টাকা নিয়ে গেছে।এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার গভীর রাতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এতে স্থানীয় সন্ত্রাসী আবু হান, মোহাম্মদ ইউনূচ, আইয়ুব খান, জাহাঙ্গীর আলম ও মোহাম্মদ মুছাকে আসামি করা হয়েছে।
পঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নিয়ামত উল্লাহ  বলেন, আসামীদের গ্রেফতার ও ছিনতাই হওয়া টাকা উদ্ধারে বিভিন্ন স্থানে পুলিশের অভিযান চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ