ঢাকা, শনিবার 28 July 2018,১৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৪ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন মেয়র নির্বাচন ২০১৮

রাজশাহী : গতকাল শুক্রবার রাজশাহী সিটি মেয়র নির্বাচনে (বামে) বিএনপি’র বুলবুল ও (ডানে) আ’লীগের লিটনের জনসংযোগ -সংগ্রাম

ধানের শীষের গণসংযোগ
নির্বাচনী সকল প্রকার
সন্ত্রাস রুখে দেয়া হবে -বুলবুল
রাজশাহী অফিস : গতকাল শুক্রবার সকালে বিএনপি ও ২০ দলীয় মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল নগরীর ৬ ও ৮ নং ওয়ার্ডের লক্ষীপুর এলাকার কাঁচা বাজার ঝাউতলা, লক্ষিপুর মোড় ও কাজিহাটাসহ বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় বৃষ্টি উপেক্ষা করে প্রচারণায় অংশ নেন এং ধানের শীষের জন্য ভোট প্রার্থনা করেন। তিনি বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। আওয়ামী লীগ প্রার্থী নির্বাচনে জোর করে বিজয়ী হওয়ার বাইরে থেকে অর্ধ লক্ষাধিক লোক ভাড়া করে নিয়ে এসেছে।
বুলবুল সাংবাদিকদের বলেন, রাজশাহীর প্রতিটি আবাসিক হোটেল ও অন্যান্য আবাসস্থল ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগ দখল করে নিয়েছে। রাজশাহীর সকল মেস  থেকে শিক্ষার্থীদের বের করে দিয়েছে। এমনকি ভোটের পূর্বের রাতে ব্যালট পেপারে নৌকার পক্ষে সিল মেরে বাক্সবন্দী করে রাখার ষড়যন্ত্র করছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। এই সকল অবৈধ কার্যক্রম যেন কেউ করতে না পারে তা কঠোর হস্তে দমন করার জন্য নির্বাচন কমিশনের প্রতি অনুরোধ করেন। সেইসাথে প্রতিটি  ভোট কেন্দ্রে ব্যবহৃত প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সার্চ লাইট সংযোগ করার জন্য কর্তৃপক্ষের নিকট দাবী জানান। এছাড়াও নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হওয়ার স্বার্থে পুনরায় নির্বাচনের পূর্বে সেনা মোতায়েনের দাবী জানান বুলবুল। তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ ভোটের দৌঁড়ে পিছিয়ে থেকে নিজেকে বিজয়ী করার জন্য ভোট জালিয়াতি, কারচুপি ও জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির জন্য ইতিমধ্যে ছাত্রলীগ ও পুলিশ লীগকে পাড়া মহল্লায় বিএনপি ও ২০ দলীয় জোট নেতাদের গ্রেফতার, নির্যাতন ও ভয়ভীতি দেখানো এবং বাড়ি ছাড়া করার কাজে লাগিয়েছে। তিনি বলেন, রাজশাহী একটি শান্তিপ্রিয় নগরী। এই নগরীকে কোনভাবেই অশান্ত করতে দেয়া হবে না। সকল প্রকার সন্ত্রাস রুখে দেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারী দেন বুলবুল। জনগণের নিরাপত্তা, নগরীকে একটি মেগাসিটিতে পরিণত, স্মার্ট সিটি হিসেবে রাজশাহীকে গড়ে তোলা এবং বেগম জিয়ার মুক্তির জন্য ধানের শীষে ভোট প্রদান করার জন্য ভোটারদের নিকট অনুরোধ করেন তিনি। গণসংযোগে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি’র উপদেষ্টা, সাবেক মেয়র ও এমপি মিজানুর রহমান মিনু, উপদেষ্টা হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. শফিকুল হক মিলন, রাজপাড়া থানা বিএনপি সভাপতি শওকত আলী, সাধারণ সম্পাদক আলী হোসেন, তানোর পৌরসভার মেয়র মিজানুর রহমান, ৫নং ওয়ার্ডের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম লিটন, মহানগর যুবদলের সাবেক সভাপতি ওয়ালিউল হক রানা, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান রিটন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন বাবলু, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি আসাদুজ্জামান জনি, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রবি প্রমুখ।

আওয়ামী লীগের জনসংযোগ
আগের রাতে নৌকায়
সিল মারার অভিযোগ
উর্বর মস্তিষ্কের -লিটন
রাজশাহী অফিস : রাজশাহী সিটি ভোটের আগের রাতে নৌকায় সিল মারা ব্যালট ‘লুকিয়ে রাখার’ যে অভিযোগ বিএনপি প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল করেছেন, সেটাকে ‘কাল্পনিক ও উর্বব মস্তিষ্কের’ বলে অভিহিত করেছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।
শুক্রবার দুপুরে তালাইমারি মোড়ে গণসংযোগে গিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বলেন, “এটিও তাদের নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চক্রান্ত বা ষড়যন্ত্র বলে আমি মনে করি। আমরা এমন কোনো ঘটনা জানি না, শুনিওনি। মনেও করছি না।” শুক্রবার সকালে বিএনপি নেতা বুলবুল অভিযোগ করেন, নির্বাচনে ৯০ শতাংশ প্রিজাইডিং ও পোলিং অফিসার ‘আওয়ামী ঘরানার’ লোক থেকে বাছাই করা হয়েছে। তাদের মাধ্যমে ভোটের আগের রাতে নৌকায় সিলমারা ব্যালট ভোটকেন্দ্রে লুকিয়ে রাখা হতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন বুলবুল। লিটন বলেন, প্রথম দিন থেকেই তারা এই রকম নানা অভিযোগ দিয়ে আসছিল, এর মধ্যে নানা নাটকীয় ঘটনাও তারা ঘটিয়েছে। তার মধ্যে ধরাও পড়েছে সেগুলি। জুমার নামাজের পর জাহাজঘাট এলাকা থেকে প্রচার শুরু করেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী। পরে বড়কুঠি ও কুমারপাড়া এলাকায় গিয়ে ভোটারদের কাছে নৌকার পক্ষে সমর্থন চান লিটন। নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে পরিবেশ শান্ত রাখার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা যে বার্তাটি আমাদের কর্মীদের সবসময় দিয়েছি, বিভিন্ন কর্মীসভার মাধ্যমে দিয়েছি, সেটি হল তারা যেন কোনো অবস্থাতেই পরিবেশ পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয় এমন কোনো আচরণ না করে। প্রয়োজনে পরিবেশ শান্ত রাখার জন্য যদি কিছুটা নতজানুও হতে হয়, তাও যেন তারা পরিবেশকে শান্ত রাখে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ