ঢাকা, শনিবার 28 July 2018,১৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৪ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ডুমুরিয়ার থুকড়া বায়তুস সালাম যাকাত কমিটির গরু ও ছাগল বিতরণ

খুলনা অফিস : ‘যাকাত ভিত্তিক সমাজ চাই-দারিদ্য্র মুক্ত দেশ চাই’ শ্লোগানকে সামনে রেখে বেকার ও দারিদ্র্যমুক্ত সমাজ গড়ার লক্ষ্যে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার থুকড়া বায়তুস সালাম কেন্দ্রীয় জামে মসজিদকে কেন্দ্র করে গঠিত বায়তুস সালাম যাকাত কমিটির কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে। তারাই ধারাবাহিকতায় গতকাল জুমাবাদ যাকাত কমিটি স্থানীয় অসহায় ও দুস্থদের মাঝে যাকাতের টাকা দিয়ে ক্রয় করা গরু, ছাগল, পল্লী চিকিৎসকের দোকান সংস্কার ও ওষুধ ক্রয় এবং অসহায়ের চিকিৎসার জন্য নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়।
এদের মধ্যে জহর আলী শেখের স্ত্রী মোছা. রাবেয়া বেগম, আবু বক্কার গাজীর মেয়ে মোছা. রত্মা বেগম ও মৃত আব্দুল মালেক সরদারের ছেলে লিটন সরদারকে একটি করে গরু ও মৃত নেছার আলী গাজীর স্ত্রী মোছা. আয়েশা বেগমকে দু’টি এবং মৃত সিদ্দিক আলী বিশ্বাসের ছেলে মো. ইউনুস বিশ্বাসকে একটি ছাগল দেয়া হয়েছে। এছাড়া মৃত যশোর আলী মোল্লার ছেলে মো. বছির উদ্দিন মোল্লার দোকান সংস্কার ও ওষুধ ক্রয় বাবদ নগদ ১০ হাজার টাকা ও নজরুল ইসলামের স্ত্রী মোছা গুলশানারা বেগমকে চিকিৎসার জন্য ৫ হাজার টাকা পেয়েছে।
এ সময় যাকাত কমিটির প্রধান উপদেষ্টা ডা. হাফেজ মাওলানা মো. সাইফুল্লাহ মানসুর, উপদেষ্টা মো. গনি গাজী ও নাসির উদ্দিন খোকন, সভাপতি গাজী মোনায়েম হোসেন, সহ-সভাপতি শেখ রবিউল ইসলাম কমল, সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন, সহ-সম্পাদক জি এম জহির উদ্দিন, কোষাধ্যক্ষ বি.এম আফজাল হোসেন, সদস্য বি.এম আনোয়ার হোসেন, বি.এম হায়দার আলী, জি.এম আজ্জব আলী, জি.এম জহুরুল ইসলাম, জি.এম আব্দুল হালিম, জি.এম আকতার হোসেন উপস্থিত ছিলেন। এ সময় সভাপতি গাজী মোনায়েম হোসেন সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় কমিটির কার্যক্রম তুলে ধরে বলেন, সারা বছর অসহায় ও দুস্থদের মাঝে তাৎক্ষনিক সহযোগীতা করার জন্য একটি রিজার্ভ ফান্ড গঠন করা হয়েছে। এই ফান্ডে বিত্তবানদের যাকাত এবং যে কোন ধরণের সহযোগী করার জন্য তিনি অনুরোধ জানান।
প্রধান উপদেষ্টা ডা. হাফেজ মাওলানা মো. সাইফুল্লাহ মানসুর তার বক্তৃতায় বলেন, আমাদের সমাজকে বেকার ও দারিদ্রমুক্ত করতে হলে জাকাত ভিত্তিক সমাজ ব্যবস্থার কোন বিকল্প নেই। যাকাত প্রতিষ্ঠার মাধ্যমেই দারিদ্রতা ও বেকারত্ব দূর করে ইনসাফ ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব। তিনি কমিটির সকল সদস্যদের নিষ্ঠার সাথে দায়িত্বপালন ও যাকাত প্রদানকারীদের এ মহতী কাজে এগিয়ে আসার উদাত্ত আহ্বান জানান।
উল্লেখ্য, থুকড়া বাজার সংলগ্ন বায়তুস সালাম জামে মসজিদ কেন্দ্রিক ‘মসজিদ ভিত্তিক যাকাত কমিটি’ গঠন করে এক অনন্য নজির স্থাপন করেছে। এ বাজারের ব্যবসায়ী ছাড়াও গ্রামের অনেক স্বচ্ছল ব্যক্তি ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছেন রাজধানী ঢাকাসহ অনেক স্থানে। যাদের যাকাত দেয়ার সামর্থ আছে এবং যাদের যাকাতের অর্থ প্রাপ্য সবারই তালিকা করে ২০১৭ সালের রমযান মাস থেকে এ ‘যাকাত কমিটি’ তাদের কার্যক্রম শুরু করে। এ কমিটি প্রথম বছরে দুইজন অসচ্ছল ব্যক্তিকে যাকাতের টাকা দিয়ে ভ্যান গাড়ি কিনে দেয়। তারা এ ভ্যান চালিয়ে বর্তমানে সুখে শান্তিতে সংসার পরিচালনা করছে। খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার উত্তর-পশ্চিমের একটি গ্রামের নাম থুকড়া। এক সময় খুলনা থেকে সাতক্ষীরা যাতায়াতের জন্য অন্যতম রুট ছিল দৌলতপুর-শাহপুর-খর্ণিয়া সড়ক। এ সড়কের শাহপুরের কাছেই অবস্থি এ থুকড়া গ্রামটি। যারা আজ যাকাতের মাধ্যমে দারিদ্র্যমুক্ত গ্রাম গড়ার স্বপ্ন দেখছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ