ঢাকা, শনিবার 28 July 2018,১৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৪ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

গণতন্ত্রের অধিকার আর লুট হতে দেব না -বি. চৌধুরী

স্টাফ রিপোর্টার : সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিকল্প ধারার সভাপতি অধ্যাপক একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, গণতন্ত্রের অধিকার আর লুট হতে দেব না। ভোটে বাধা দিলে হাত ভেঙ্গে দিতে হবে। সরকার চোর ডাকাতকে উৎসাহ দিচ্ছে। জনগণের জীবন বিপন্ন করার অধিকার কোনও সরকারের নেই। দেশের মানুষ মুক্তভাবে বাঁচার অধিকার চায়।
গতকাল শুক্রবার বিকালে চট্টগ্রামে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) চট্টগ্রাম মহানগর আয়োজিত গণসমাবেশ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি আরো বলেন, এক মাঘে শীত যায় না। কোনও সরকার চিরস্থায়ী হয় না। আবার যখন মাঘ মাস আসবে তখন কম্বল খুঁজে পাবেন না।
বি. চৌধুরী বলেন, দেশ আজ গুম, খুন আর লুটের দেশে পরিণত হয়েছে। সরকার বিরোধী দলকে দমন করতে ভুয়া মামলা দিয়ে হাজার হাজার লোককে জেলে বন্দী করে রেখেছে। দেশে হাজার কোটি টাকা লুটের কিছুই হয় না অথচ মাত্র আড়াই কোটি টাকার জন্য তিনবারের প্রধানমন্ত্রীকে কারাবন্দি করে রেখেছে। সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, দেশের স্বাস্থ্য খাত ধ্বংস হয়ে গেছে। দেশে কোনও শাসন ব্যবস্থা নাই। প্রশাসন ভেঙ্গে পড়েছে। যুক্তফ্রন্ট ক্ষমতায় আসলে মানুষের ভোটের অধিকার নিশ্চিত করব। দুর্নীতিমুক্ত সরকার গঠন করব। ব্যাংক লুটকারী, শেয়ার মার্কেট ধ্বংসকারীদের বিচার করা হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, এ সরকার লুটেরা এবং চোরের সরকার। ২০১৪ সালে ভোটারবিহীন ভুয়া নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসে বর্তমান সরকার মানুষের অধিকার এবং সম্পদ লুট করেছে গত নয় বছরে। শেয়ার মার্কেট ধ্বংস, ব্যাংক থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা লুট, খনি থেকে কয়লা লুটসহ একের পর এক লুটের ঘটনা ঘটলেও সরকার কিছুই করছে না। তিনি আরও বলেন, কয়লা চুরির এত বড় ঘটনার পরেও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী কিভাবে এখনো স্বপদে বহাল থাকেন। তাদের তো মন্ত্রী থাকার অধিকার নাই। সময় আসছে জনগণ জেগে উঠবে, তখন নৌকা উন্নয়নের জোয়ারে বানের পানিতে ভেসে যাবে আর ফিরে আসবে না। সরকারের গুম, খুন আর নির্যাতনের বিরুদ্ধে সবাইকে লড়াই করতে হবে।
মান্না বলেন, সরকার আবারও ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি মার্কা নির্বাচনের পরিকল্পনা করছে। কিন্তু এবার দেশের জনগণ তা আর করতে দেবে না। সকলের অংশগ্রহণমূলক গ্রহণযোগ্য নির্বাচন দিতে হবে। ১০০ দিন আগে সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার গঠন করতে হবে।
তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে সেনা মোতায়েন করে সেনাবাহিনীকে ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা দিতে হবে। এ অবৈধ সরকারের অধীনে কোনও নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। জনগণ রাজপথে নামলে কোনও সরকারই টিকতে পারবে না। অতীতেও কোনও সরকার টিকতে পারেনি। আমরা সুশাসনের সরকার চাই।
সরকারকে উদ্দেশ্য করে প্রধান বক্তার বক্তব্যে জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেন, আমরা হাতুড়ি পেটা গণতন্ত্র আর চাই না। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন দিন জনগণ বুঝিয়ে দেবে কারা সত্যিকারের দেশপ্রেমিক। তিনি বলেন, জনগণের প্রতি চোখ রাঙ্গানি আর পুলিশি নির্যাতন বন্ধ করেন। জনগণ জেগে উঠলে কিন্তু রেহাই পাবেন না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ