ঢাকা, রোববার 29 July 2018, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৫ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সৎ ও যোগ্য নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠিত হলেই মানুষের কল্যাণ নিশ্চিত হবে -আবু বক্কর সিদ্দিক মেয়র

নালিতাবাড়ী পৌরসভার মেয়র আবু বক্কর সিদ্দীক

সম্প্রতি শেরপুরের সীমান্তবর্তী নালিতাবাড়ী পৌরসভার উন্নয়ন কর্মকান্ড, আধুনিকায়ন রাজস্ব আদায় ও প্রশাসনিক দক্ষতার দরুণ বাংলাদেশের দ্বিতীয় শ্রেণির পৌরসভায় উন্নীত হয়েছে। আর দেশে উত্তরবঙ্গের কৃষি শিল্প ও বাণিজ্যিক কেন্দ্র হিসেবে খ্যাত নালিতাবাড়ী সমৃদ্ধ অর্থনীতিই প্রধানত ভূমিকা রেখেছে। এসব বিষয়াদী নিয়ে সম্প্রতি দৈনিক সংগ্রামের সাংবাদিক আল-হেলাল পৌরসভা মেয়র আবু বক্কর সিদ্দিক এর সাথে তার অস্থায়ী অফিস কক্ষে একান্ত সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেন। তা নি¤েœ তুলে ধরা হলো।
পৌর মেয়র হিসেবে নালিতাবাড়ীকে কিভাবে মূল্যায়ন করছেন।
মেয়র : শেরপুর জেলার মধ্যে নালিতাবাড়ি উপজেলা পর্যায়ে একটি সুন্দর ও গোছানো পৌরসভা, নালিতাবাড়ী। ইতিহাস ঐতিহ্য কৃষি শিল্প বাণিজ্য ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সম্ভাবনাময়ী জনপদ। এখানে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করলে সমৃদ্ধশীল নগর সভ্যতা গড়ে তোলা সম্ভব। যা ইতোমধ্যেই হাজারো প্রতিকুলতার মধ্য দিয়ে আমার পরিষদবর্গ প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছে।
মেয়র হিসেবে আপনার উল্লেখযোগ্য উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড কি?
মেয়র ঃ একজন মেয়রের সামান্য ক্ষমতায় পৌরসভায় পর্যাপ্ত পরিমাণে উন্নয়ন করা সম্ভব নয়। আমাদের এলাকার মাননীয় মন্ত্রী আমার অভিভাবক অগ্নিকন্যা বেগম মতিয়া চৌধুরীর সার্বিক সহযোগিতায় অত্র পৌরসভায় যথেষ্ট পরিমাণে উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে। যেমন ১০ কোটি টাকার জলবায়ু পরিবর্তন ফান্ড আমরা পেয়েছি। তার মধ্যে ২ কোটি টাকার একটি ড্রেন নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ করেছি। যা জলাবদ্ধতা নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প হতে প্রায় ২ কোটি ৬৩ লক্ষ বাৎসরিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) প্রায় ২ কোটি ৩০ লক্ষ টাকা। পৌর ভবন নির্মাণের জন্য প্রায় ৩ কোটি ৫৩ লক্ষ টাকা। ৪০টি পৌরসভা ও গ্রোথ সেন্টারে অবস্থিত পানি সরবরাহ এবং এনভায়রনমেন্টাল স্যানিটেশন প্রকল্প হতে প্রায় ২ কোটি ৬২ লক্ষ টাকা যাহা প্রায় ১৩ কোটি টাকার কাজ সমাপ্তির পথে। ইতিমধ্যে আমার দায়িত্ব গ্রহণের ২ বৎসরের মধ্যে অত্র কাজগুলো বাস্তবায়নের পথে।
পৌরসভার বর্তমানে প্রধান প্রধান সমস্যা কি?
মেয়র ঃ ১৯৯৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়া নালিতাবাড়ী পৌরসভাতে ২৮ হাজার জনসংখ্যা রয়েছে। মোট ভোটার সংখ্যা ১৮৭৮৮ জন। আয়তন ৯.২৯ বর্গ কিলোমিটার। উন্নয়ন কর্মকান্ডের পাশাপাশি কিছু সমস্যা রয়েছে। যেমন, নিরাপদ পানি, ড্রেনেজ ব্যবস্থা, নদীভাঙ্গন, বৈদ্যুতিক খুঁটি ইত্যাদি।
সংগ্রাম- যৌতুক প্রথা বাল্য বিবাহ ও মাদক সেবনসহ মাসাজিক অপরাধ নিরসনে আপনার বক্তব্য কি?
মেয়র ঃ এটি একটি জাতীয় সমস্যা। এই সমস্যা নিরসনে রাষ্ট্র, সমাজ ও পারিবারিকভাবে সচেতনতা গড়ে তুলতে হবে। বর্তমান পরিষদ এই সমস্ত সমস্যাগুলিকে নিরসনের জন্য, নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থা সবসময় সহযোগিতা করে যাচ্ছে। জন সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন জায়গায় ক্যাম্প স্থাপন করে কাজ করে যাচ্ছি। এজন্য নালিতাবাড়ী পৌরসভারও নিজস্ব কর্মসূচী রয়েছে।
ধন্যবাদ।
মেয়র ঃ আপনাকে ও দৈনিক সংগ্রামকে ধন্যবাদ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ