ঢাকা, রোববার 29 July 2018, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৫ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মামলার বাদী ও পরিবারকে জীবন নাশের হুমকি

মুন্সীগঞ্জ সংবাদদাতা: মুন্সীগঞ্জ শ্রীনগর উপজেলার কোলাপাড়া ইউনিয়নের নাওপাড়া গ্রামের তৃতীয় শ্রেনীর এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে গলাটিপে হত্যার চেষ্টার দীর্ঘ প্রায় ৯ মাস পেরিয়ে গেলেও পলাতক আসামী এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি শ্রীনগর থানা পুলিশ। গত ২৭ নভেম্বর সোমবার বিকেল ৫ টার দিকে উপজেলার নাওপাড়া গ্রামের প্রভাবশালী মোস্তফা সিকদারের ছেলে রাইদ (২১) প্রতিবেশী রিনা বেগমের ফাঁকা বাড়িতে প্রবেশ করে তার ৩য় শ্রেনিতে পড়ুয়া  মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। স্কুল ছাত্রীর মা রিনা বেগম পাশের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করতে যান। এই সুযোগে প্রভাবশালী মোস্তফা সিকদারের ছেলে রাইদ ধর্ষণের উদ্দ্যেশে স্কুল ছাত্রীর ঘরের ভিতর প্রবেশ করে। ছাত্রীকে যৌন উত্তেজক করার জন্য মোবাইলে অশ্লীল ভিডিও দেখায়। ছাত্রী ভিডিওটি দেখতে না চাইলে, পরবর্তীতে বখাটে রাইদ ছাত্রীকে প্রথমে ২ শত টাকা ও পরে ১ হাজার টাকার প্রলোভন দেখায়। ছাত্রী এতেও রাজি না হওয়ায় বখাটে রাইদ স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ছাত্রী ধস্তাধস্তি করে ছুটে চিৎকার দিতে গেলে রাইদ ঐ স্কুল ছাত্রীর গলা চেপে ধরে। এ ঘটনা কাউকে না বলার জন্য হুমকি দেয়। ছাত্রী কোন রকম প্রাণ বাঁচিয়ে আর্ত চিৎকার দিলে আশ-পাশের লোকজন ছুটে আসলে বখাটে পালিয়ে যায়। ছাত্রীর মা পাশর্^বর্তী বাড়ি থেকে ঝিয়ের কাজ শেষে বাড়িতে ফিরে এলে ছাত্রীটি তার মাকে সব খুলে বলে। পরবর্তীতে বখাটের বাবা গোলাম মোস্তফা মেয়েটির মা সহ তার পরিবারকে এ ঘটনা কাউকে না বলার জন্য হুমকি দেন। এ ব্যাপারে ছাত্রীর মা রিনা বেগম বাদী হয়ে শ্রীনগর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সং/০৩) একটি মামলা করেন। যাহার মামলা নং-৩১(১১)১৭।  এদিকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য পলাতক বখাটে রাইদের বাবা গোলাম মোস্তফা ও গোলাম রসুল ভূক্তভোগী রিনাসহ তার পরিবারকে একের পর এক বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে। অসহায় পরিবারের সদস্যরা তাদের নিরাপত্তার জন্য ১৫/৭/২০১৮ ইংরেজি তারিখে শ্রীনগর থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেছে। যাহার ডায়েরী নং-৬৬৯। এ বিষয়ে শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আলমগীর হোসেন বলেন, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ