ঢাকা, বুধবার 1 August 2018, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৮ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ক্ষেপণাস্ত্র ইস্যুতে তুরস্ককে মার্কিন চাপ নিয়ে রাশিয়ার হুঁশিয়ারি

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী সার্গেই ল্যাভরভ

৩১ জুলাই, মিডলইস্ট মনিটর : রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা না কিনতে তুরস্ককে যুক্তরাষ্ট্রের চাপ নিয়ে হুঁশিয়ারি জানিয়েছেন রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ। সোমবার তরুণদের এক সমাবেশে দেওয়া ভাষণে যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা করে এই হুঁশিয়ারি জানান তিনি। মধ্যপ্রাচ্যবিষয়ক সংবাদমাধ্যম এখবর জানিয়েছে।

রাশিয়ার কাছ থেকে তুরস্ক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কিনতে চায় জানিয়ে ল্যাভরভ বলেন, কোনও দেশ কার কাছ থেকে বা কোন জিনিস কিনবে সেই অধিকার তাদের রয়েছে, কোনও হুমকি বা আলটিমেটাম দিয়ে তা থেকে আটকানো যাবে না। রাশিয়া বেশ কয়েকটি দেশের কাছে অস্ত্র বিক্রির জন্য চুক্তি করছে। যুক্তরাষ্ট্র এসব চুক্তি না করার জন্য হুমকি ও চাপ দিচ্ছে। যেমন, তুরস্ক, ইন্দোনেশিয়া ও ভারতের বেলায় ঘটছে। ল্যাভরভ সতর্ক করে বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের এই দাবি অনিশ্চয়তা ও সংঘাতের পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে।

১৮ জুন মার্কিন কংগ্রেসে একটি আইন পাস হয় যাতে তুরস্কের কাছে এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান বিক্রি নিষিদ্ধ করা হয়। উভয় দেশের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার পরও মার্কিন কংগ্রেসে এই আইন পাস হয়।

পরে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান জানান, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তাকে নিশ্চয়তা দিয়েছেন কংগ্রেসের উদ্যোগের পরও যুদ্ধবিমান পাবে তুরস্ক।

চলতি বছরের এপ্রিলে রাশিয়ার সেনাবাহিনীর প্রযুক্তি সহায়তা বিভাগের প্রধান দিমিত্রি সুগায়েভ বলেন, বিশ্বের অনেক দেশ এস-৪০০ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে আগ্রহ দেখাচ্ছে, এদের মধ্যে প্রথম দিকে রয়েছে মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার দেশ। বৈশ্বিক বাজারে আকাশ প্রতিরক্ষার নানা অস্ত্র থাকলেও রাশিয়ার সরঞ্জামের চাহিদা স্থিতিশীল রয়েছে।

এস-৪০০ প্রতিরক্ষা তুরস্কের কাছে বিক্রির খবরে তাই সতর্ক অবস্থান নিয়েছেন মার্কিন আইনপ্রণেতারা। বিশেষ করে এস-৪০০ যুক্তরাষ্ট্রের এফ-৩৫ যৌথ ফাইটার জেটের তথ্য সংগ্রহে সক্ষম এমন খবরের পর তারা আরও সতর্কতা দেখায়। এফ-৩৫ যুদ্ধবিমানকে সামরিক ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যয়বহুল অস্ত্র কর্মসূচি বলে ধারণা করা হয়।  বার্ষিক নবায়নযোগ্য যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় প্রতিরক্ষা কর্তৃত্ব আইনের ফাঁস হওয়া এক নথিতে দেখা যায়, তুরস্কের কাছে রাশিয়ার এস-৪০০ সরবরাহ করার আগ পর্যন্ত তাদের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের এফ-৩৫ সরবরাহ বন্ধ রাখতে চাওয়া হয়েছে।

রাশিয়ার সমালোচক হিসেবে পরিচিত ওয়াশিংটনভিত্তিক থিঙ্কট্যাঙ্ক দ্য আটলান্টিক কাউন্সিল গত ২৫ জুলাই এক বিশ্লেষণে বলেছে, রাশিয়ার তৈরি ভূমি থেকে আকাশে উৎক্ষেপণযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মার্কিন যুদ্ধবিমানের ওপর হুমকি তৈরি করেছে। ওই বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, এস-৪০০ প্রতিরক্ষার রাডার এফ-৩৫ বিমানের গোয়েন্দা ও ইলেকট্রনিক সংকেত ধারণে সক্ষম।

দ্য আটলান্টিক কাউন্সিল’র বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, ওই রাডার যদি তুরস্ক চালায় আর তার পাশাপাশি এফ-৩৫ তাদের হাতে থাকলে মস্কো এই যুদ্ধবিমানের প্রয়োজনীয় তথ্য পাওয়ার সুযোগ পাবে। এমনকি ন্যাটো জোটের ভবিষ্যৎ যুদ্ধবিমানগুলো সম্পর্কেও প্রয়োজনীয় উপাত্ত পাওয়ার সুযোগ পাবে মস্কো।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ