ঢাকা, বুধবার 1 August 2018, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৮ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মেয়রপ্রার্থী মুরাদের দাবী রাসিক নির্বাচন সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য হয়নি

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে কারচুপি, জাল ভোট এবং ভয়ভীতিতে পরিপূর্ণ বলে আখ্যায়িত করে এই নির্বাচন কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয় বলে দাবী করেছেন রাসিক নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী এডভোকেট মুরাদ মোর্শেদ।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে গণসংহতি আন্দোলন রাজশাহী জেলা কার্যালয়ে রাসিক নির্বাচন পরবর্তী এক সাংবাদিক সম্মেলনে এড. মুরাদ বলেন, নির্বাচনে অনিয়মের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। এতে বলা হয়, বিভিন্ন কেন্দ্রে তাদের পোলিং এজেন্টদের ঢুকতে দেয়া হয়নি। তবে, সেসব স্থানে প্রিজাইডিং অফিসারদের সাথে বারবার কথা বলার পর আনুমানিক ১০টার দিকে সেসব পোলিং এজেন্ট ঢুকতে পারে। কিন্তু ততক্ষণে নির্বাচনের ২ ঘণ্টা পার হয়ে গেছে। এছাড়া, পরে ভোট গণনার সময় সেসব পোলিং এজেন্টদের আবার থাকতে দেয়া হয়নি, কারণ হিসেবে বলা হয়েছে যে, তাদের নাম খাতায় এন্ট্রি করা হয়নি! গণনার সময় মেয়রপ্রার্থী হিসেবে স্বয়ং মুরাদ মোর্শেদ উপস্থিত থাকতে চাইলেও প্রিজাইডিং অফিসার তার সাথে দেখা পর্যন্ত করেননি। অনেকে ভোট দিতে গিয়ে দেখে যে, তাদের ভোট দেয়া হয়ে গেছে। অনেক কেন্দ্রের মূল দরজার সামনে নৌকা প্রতীকের কর্মীদের ভীড় করে উচ্চস্বরে স্লোগান দিতে দেখা যায়- যা নির্বাচন আচরণবিধির সুস্পষ্ট লংঘন। উপরন্তু, এটির মাধ্যমে একটি ভীতির পরিবেশ তৈরি করা হয়। অনেক কেন্দ্র পরিদর্শনের সময় ভোটারদের অভিমতে ও নিজেদের কর্মীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ভোটকেন্দ্রের সামনেই টাকা লেনদেন করা হয়। ভোটারদেরকে কোথাও ১ হাজার কোথাও ৩ হাজার টাকায় ভোট কেনা হয়েছে। সেসব কেন্দ্রে যদি ভোটে নৌকা না জেতে তাহলে তাদের ওপর বিপদ নেমে আসবে বলে হুমকিও দেয়া হয়। অনেক কেন্দ্রে ব্যাপক আকারে জাল ভোট দেয়া হয়। বিশেষত নগরীর নি¤œবিত্ত এলাকায় অনেক ভোটারদেরকে মেয়র প্রার্থীর ব্যালট বাদে দু’টি করে ব্যালট সরবরাহ করা হয়। অনেক কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত রেখে দীর্ঘ লাইন থাকা সত্ত্বেও তাদেরকে ভোট দেবার সুযোগ দেয়া হয়নি। এধরণের আরো অসংখ্য ঘটনায় এটি পরিষ্কার যে, এই নির্বাচনের দিনে ব্যাপক ভোট কারচুপি এবং জাল ভোট প্রদানের ঘটনা ঘটেছে। উপরন্তু, নির্বাচন আচরণবিধি সমস্ত দিক থেকেই লংঘিত হয় শুরু থেকে। ফলে সমস্ত বিবেচনায় রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে কোনোভাবেই একটি গ্রহণযোগ্য ও সুষ্ঠু নির্বাচন বলা যায় না। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাসদ রাজশাহী জেলা সমন্বয়ক আলফাজ হোসেন, গণসংহতি জেলা সদস্য হাসিব রেজা, গণসংহতি রাজপাড়া থানা সম্পাদক লিসা আরজুমান্দ, রাজপাড়া থানার সদস্য নিতাই রায়, মতিহার থানা সদস্য হাসান আহম্মাদ বোয়ালিয়া থানা সদস্য জিন্নাত আরা মিমসহ আরো অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ