ঢাকা, বুধবার 1 August 2018, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৮ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

দেশি মাছ ধরতে ব্যবহৃত হচ্ছে বাঁশের তৈরি ধিয়াল

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) : চলনবিলে দেশী মাছ ধরার বাসন তৈরী ও বেচাকেনার দৃশ্য -সংগ্রাম

শাহজাহান তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ): বর্ষা মৌসুম শুরুর আগেই সিরাজগঞ্জের কাজিপুর, চৌহালী, তাড়াশ ও রায়গঞ্জ উপজেলার খাল-বিল-নালায় পানির প্রবাহ বেড়েছে। সেই সঙ্গে নানা প্রজাতির দেশি জাতের মাছের পোনার বিচরণ বাড়ছে। আর তাই অত্র উপজেলায় ধুম পড়েছে বাঁশের ধিয়াল ক্রয় করার।
চিংড়ি ও দেশি বিভিন্ন প্রজাতির মাছের ছোট পোনা ধরার জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে বাঁশের তৈরি এই বিশেষ ফাঁদ। মাছ ধরার এ ফাঁদের পরিচিতি ধিয়াল নামে। গ্রামাঞ্চলে মাছ ধরার সবচেয়ে আদি উপকরণের মধ্যে একটি হচ্ছে বাঁশের তৈরি ধিয়াল ও দারকি।
গ্রীষ্মের শুরু থেকে গ্রামাঞ্চলের খাল-বিল ও নদী-নালায় ধিয়াল দিয়ে মাছ ধরার ধুম পড়ে যায়। যা চলতে থাকে ভাদ্র-আশ্বিন মাস পর্যন্ত।
অত্র উপজেলার হাট-বাজার গুলোতে মাছ ধরার এই উপকরণটির বিক্রি ইতোমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে। এসব এলাকার বাজারে প্রতিদিন হাজার হাজার ধিয়াল বিক্রি হচ্ছে।
তাড়াশ  উপজেলায় বিভিন্ন হাট বাজার ছাড়া ও সকাল ও বিকেলে ধিয়াল পাওয়া যায়। মাছ ধরার এই ফাঁদ নিয়ে বিক্রেতারা বেশ হাঁসি খুশি।
 বৃহস্পতিবার তাড়াশ উপজেলার নওগাঁ  হাটে ধিয়াল ক্রয়-  ভীড় দেখা যায়। তাড়াশের মহিষলুটি  বিরাট মাছের আড়ৎ চলে প্রতিদিন।  এখানে  চলনবিলের মিষ্টি পানির মাছ প্রচুর উঠে।  এখান থেকে পাইকারী দরে মাছ কিনে নিয়ে ব্যবসায়ীরা অন্যান্য উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে বিক্রি করেন। চলনবিলের মাছ দেশের ২০ জেলার চলে যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ