ঢাকা, বৃহস্পতিবার 2 August 2018, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৯ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ট্রাম্পের সঙ্গে কোনোদিন বৈঠকে বসবেন না রুহানি -আইআরজিসি

১ আগস্ট,ইন্টারনেট: প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি কখনও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন না; জানিয়ে দিয়েছে ইরানের সামরিক বাহিনী ইসলামিক রেভুল্যুশনারি গার্ড কর্প- আইআরজিসি। সোমবার রুহানির সঙ্গে বৈঠকের আগ্রহ প্রকাশ করেন ট্রাম্প। মঙ্গলবার রাতে আইআরজিসি’র প্রধান মেজর জেনারেল মোহাম্মাদ আলী জাফারি ট্রাম্পের সঙ্গে তার দেশের প্রেসিডেন্টের বৈঠকের সম্ভাবনা নাকচ করে দেন। সোমবার হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ‘ কোনও পূর্বশর্ত ছাড়াই’ যেকোনও সময়ে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে বৈঠকের প্রস্তাব দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, ‘আমি যে কারও সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে পারি। আমি আলোচনায় বিশ্বাস করি।’ ট্রাম্প বলেন, ‘যদি তারা দেখা করতে চায়, আমরাও দেখা করবো।’ট্রাম্পের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় জেনারেল জাফারি বলেন, ইরানের জনগণ তাদের দায়িত্বশীলদেরকে কখনোই বড় শয়তান আমেরিকার সঙ্গে আলোচনায় বসার অনুমতি দেবে না। ট্রাম্পের উদ্দেশে তিনি বলেন, ইরান উত্তর কোরিয়া নয় যে আমেরিকার আহ্বানে ইতিবাচক সাড়া দেবে। তিনি দাবি করেন, আধিপত্যবাদ মেনে নিতে প্রস্তুত দেশগুলোর সঙ্গে ইসলামপ্রিয় ইরানি জনগণের ব্যাপক পার্থক্য রয়েছে। জেনারেল জাফারি বলেন, ইরানি জাতি কখনো হুমকি বরদাশত করে না এবং বিদেশিদের যেকোনো চাপের মুখে তাদের মধ্যে ঐক্য ও সংহতি বেড়ে যায়। ২০১৫ সালের জুলাইয়ে ভিয়েনায় পারমাণবিক ইস্যুতে ইরানের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করে ছয় পরাশক্তি। দুই মাস আগে ওই চুক্তি থেকে বেরিয়ে যায় যুক্তরাষ্ট্র। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনের তরফ থেকে হুমকি দেওয়া হয়, ইরানের ওপর বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা আরোপের। সম্প্রতি ট্রাম্প প্রশাসনের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ইরানের তেল রফতানি আয় শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে চায় তারা। এজন্য বিভিন্ন দেশের ওপর হুমকি ও চাপ প্রয়োগ অব্যাহত রেখেছেন তারা। চলতি মাসের শুরুতে ইরানের প্রেসিডেন্ট রুহানির মধ্যে শত্রুতামূলক হুমকি-ধামকির পর এবার ট্রাম্প বৈঠকের প্রস্তাব দিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ