ঢাকা, বৃহস্পতিবার 2 August 2018, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৯ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নিয়ম ভাঙায় শাহবাগে বাণিজ্যমন্ত্রীর গাড়ি ঘুরিয়ে দিয়েছে শিক্ষার্থীরা

স্টাফ রিপোর্টার: নিয়ম ভেঙে উল্টো পথে যাওয়ার সময় বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের গাড়ি ঘুরিয়ে দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। গতকাল বুধবার রাজধানীর শাহবাগ এলাকা দিয়ে উল্টোপথে যাওয়ার সময় মন্ত্রীর বিএমডব্লিউ গাড়ি আটকে দেয় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। পুলিশ প্রোটোকলে থাকা গাড়িটি শেষ পর্যন্ত ওই পথেই ফিরে যেতে বাধ্য হয়।
বুধবার দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় গাড়িটি প্রায় ১০-১৫ মিনিট আটকে রাখা হয়। এদিন সকাল থেকে নিরাপদ সড়কের দাবিতে শাহবাগে অবস্থান নেন বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাস্তার একপাশে শিক্ষার্থীদের অবস্থানের কারণে বাণিজ্যমন্ত্রীর গাড়িটি পুলিশ প্রোটোকলসহ শাহাবাগ থেকে উল্টো পথে এগিয়ে যায়। কিন্তু শিক্ষার্থীদের বাধার মুখে প্রায় ১৫ মিনিট গাড়িটি সেখানে আটকে থাকে। এ সময় তোফায়েল আহমেদ গাড়ি থেকে নেমে আসেন এবং শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেন।
শিক্ষার্থীরা মন্ত্রীর কাছে সড়ক দুর্ঘটনার বিচার চেয়ে ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’ বলে স্লোগান দিতে থাকেন। এর আগে পুলিশ প্রোটোকলে থাকা কর্মকর্তা গাড়িটি ছেড়ে দেয়ার অনুরোধ জানালে শিক্ষার্থীরা ‘আইন সবার জন্য সমান’ বলেও স্লোাগান দেন। পরে প্রোটোকলসহ গাড়িটি যে পথে আসছিল সে পথে ফিরে যায়।
এদিকে রাজধানীর শাহবাগে বুধবার  সচিবালয় থেকে উল্টো পথ দিয়ে গাড়ি নিয়ে বাংলামোটরে যাওয়ার সময় বিক্ষোভকারী শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে পড়ার কথা অস্বীকার করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, ‘আমাকে বিক্ষোভকারী শিক্ষার্থীরা আটকায়নি, আমি নিজেই নেমে তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। ’
 তোফায়েল আহমেদ সাংবাদিকদের  বলেন, ‘আমার গাড়ি বাংলামোটর এসে পৌঁছালে বিক্ষোভকারীদের সামনে পড়ে। এ সময় আমি গাড়ি থেকে নেমে বিক্ষোভকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলি। আমি শিক্ষার্থীদের বলি, ‘এই ঘটনায় আমি নিজেও কষ্ট পেয়েছি। দুটি কোমলমতি ছাত্রছাত্রীর এই মৃত্যু মেনে নেওয়া যায় না। তারা যে আবেগের প্রকাশ ঘটিয়েছে এটি সঠিক।’
তিনি আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বলেন, ‘ইতোমধ্যে সরকার এই বিষয়ে ব্যবস্থা নিয়েছে। অভিযুক্ত চালক ও হেলপারদের গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীরা তার কথা ধৈর্য ধরে শুনেন বলে তিনি  জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ