ঢাকা, বৃহস্পতিবার 2 August 2018, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৯ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অর্থনীতির হৃদপিণ্ড না বাঁচলে দেশ বাঁচবে না

চট্টগ্রাম ব্যুরো : দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের উদ্যোগে চট্টগ্রাম-ঢাকা মহাসড়কে পণ্য পরিবহনে ওজন নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত সর্বশেষ পরিস্থিতি বিষয়ে এক মতবিনিময় সভা গতকাল বুধবার ১ আগস্ট বিকালে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারস্থ বঙ্গবন্ধু কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় বক্তারা অসম প্রতিযোগিতা থেকে চট্টগ্রামকে বাঁচাতে সারা দেশে আন্তঃজেলা মহাসড়কগুলোতে একযোগে ওজন নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা চালু না হওয়া পর্যন্ত চট্টগ্রাম-ঢাকা মহাসড়কে স্কেল স্থগিত রাখার দাবি জানান।
 চিটাগাং চেম্বার প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলম’র সভাপতিত্বে এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে খাতুনগঞ্জ ট্রেড এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজ এসোসিয়েশন’র সাধারণ সম্পাদক ও চেম্বার পরিচালক ছৈয়দ ছগীর আহমদ, চেম্বার পরিচালক অঞ্জন শেখর দাশ, সাবেক পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ ও নুরুল আলম, প্রাইম মুভার ওনার্স এসোসিয়েশন’র সহ-সভাপতি মোহাম্মদ হারুন, চাকতাই শিল্প ও বণিক সমিতির সভাপতি এস.এম. হারুনুর রশিদ, রাইস মিলস ওনার্স এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি ফরিদ উদ্দিন, চট্টগ্রাম বন্দর ট্রাক মালিক ও কন্ট্রাক্টর এসোসিয়েশন’র সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জহুর আহাম্মদ, চট্টগ্রাম ফ্রেশ ফ্রুটস ভেজিট্যাবলস এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশন’র সভাপতি মাহবুব রানা, চট্টগ্রাম দোকান মালিক সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ সাহাবউদ্দিন, ডাল মিল ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এস এম মহিউদ্দিন (মুহিম), চট্টগ্রাম জেলা দোকান মালিক সমিতি মহানগর সভাপতি সালামত আলী, বিএসআরএম’র ইডি তপন সেন গুপ্ত, চট্টগ্রাম ট্রান্সপোর্ট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি নুরুল আজম, মাঝিরঘাট সার পরিবহন ঠিকাদার সমিতির সভাপতি হারুনুর রশিদ, চিটাগাং চাল ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ওমর আজম এবং জিপিএইচ ইস্পাত’র মিডিয়া এডভাইজর ওসমান গণি চৌধুরী বক্তব্য রাখেন।
অন্যান্যদের মধ্যে চেম্বার পরিচালকদ্বয় মোঃ জহুরুল আলম ও মোঃ আবদুল মান্নান সোহেল, এইচআরসি’র সিনিয়র পরিচালক কাজী রুকুনউদ্দীন আহমেদ, বিজিএপিএমইএ’র পরিচালক কে.এইচ. লতিফুর রহমান (আজিম)সহ বিভিন্ন সেক্টরের ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
 মতবিনিময়ে চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, চট্টগ্রাম বাংলাদেশের অর্থনীতির হৃদপিণ্ড। ব্যবসায়ীরা না বাঁচলে দেশ বাঁচবে না এবং অর্থনৈতিক অগ্রগতি অর্জন সম্ভব হবে না। রপ্তানিতে ৬০ বিলিয়ন ডলার লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে চট্টগ্রাম-ঢাকা মহাসড়ক ৮ লেনে উন্নীতকরণ ও এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ, বিকল্প সেতু নির্মাণ দ্রুতগতিতে সম্পন্ন করতে হবে। তিনি চট্টগ্রাম-ঢাকা মহাসড়কের ওজন নিয়ন্ত্রণের কারণে অত্র অঞ্চলের ব্যবসায়ীদের অসম প্রতিযোগিতা থেকে রক্ষাকল্পে মাননীয় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী এবং সচিব’র সাথে বিগত ৬ মাস যাবত বিভিন্ন সময় যেসব আলোচনা করেছেন তার সংক্ষিপ্ত বিবরণ তুলে ধরেন।
এ প্রসংগে চেম্বার সভাপতি জানান আগামী ৯ আগস্ট মন্ত্রণালয়ে এ সংক্রান্ত একটি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত সভায় এক্ষেত্রে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। সারা দেশে ওজন নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা চালু না হওয়া পর্যন্ত চট্টগ্রাম-ঢাকা মহাসড়কে স্কেল স্থগিত রাখাই উক্ত সভায় চেম্বারের একমাত্র দাবী হবে বলে তিনি জানান। চেম্বার সভাপতি এক্ষেত্রে অন্যান্য সংগঠনের যেসব নেতৃবৃন্দ উক্ত সভায় আমন্ত্রন পেয়েছেন তাঁদের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ