ঢাকা, বৃহস্পতিবার 2 August 2018, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৯ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নির্লজ্জ মিথ্যাচার করে অপসাংবাদিকতার আরেকটি ঘৃণ্য নজির স্থাপন করেছে -ছাত্রশিবির

দৈনিক যুগান্তরের অনলাইন ভার্সনে ভারত থেকে প্রকাশিত আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনকে উদ্ধৃত করে “জামায়াত-শিবিরের অস্ত্র আসে ভারত থেকে” শীর্ষক প্রতিবেদনে ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে মিথ্যা ও বানোয়াট খবর প্রকাশের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।
গতকাল বুধবার দেয়া যৌথ প্রতিবাদ বার্তায় ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত ও সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেন, জামায়াত-শিবিরকে নিয়ে অপপ্রচার করতে গিয়ে নির্লজ্জ মিথ্যাচার করে অপসাংবাদিকতার আরেকটি ঘৃণ্য নজির স্থাপন করেছে যুগান্তর। প্রতিবেদনে ভারত থেকে প্রকাশিত আনন্দবাজার পত্রিকার একটি প্রতিবেদনের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, জামায়াত-শিবিরের অস্ত্র আসে ভারত থেকে। অথচ আনন্দবাজার পত্রিকার ঐ প্রতিবেদনে জামায়াত-শিবিরের কোন নামই উল্লেখ করা হয়নি। বরং অস্ত্র উদ্ধারের সাথে সংশ্লিষ্ট হিসেবে স্পষ্ট ভাবে প্রতিবেদনে জামাত-উল-মুজাহিদিন নামের জঙ্গি সংগঠনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। অথচ যুগান্তর এমন একটি সুস্পষ্ট প্রতিবেদনকে মিথ্যা দিয়ে ঢেকে দিয়ে চাতুরতার সাথে জামায়াত শিবিরের নামে চালিয়ে দিয়েছে। এ জঘন্য অপকর্মটি শুধু ঘৃন্য অপপ্রচারই নয় বরং সাংবাদিকতার নীতিমালার সুস্পষ্ট লঙ্ঘনও। সাংবাদিকতা পেশার প্রতি নূন্যতম শ্রদ্ধাবোধ থাকলে যুগান্তর কর্তৃপক্ষ এমন নিকৃষ্ট মিথ্যাচার করতে পারত না। এ প্রতিবেদন দেশের স্বাধীনতা-সার্ভভৌমত্বের উপর ভয়ঙ্কর ষড়যন্ত্রের অংশ। এদেশের দেশ ও ইসলাম প্রিয় জনতার প্রতি পার্শ্ববর্তী দেশের বিদ্ধেষমূলক মনোভাবকে প্রসার করতে যুগান্তর আত্মঘাতি ভূমিকা পালন করছে। তারা যুগান্তর কর্তৃপক্ষের এই নির্লজ্জ মিথ্যাচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।
নেতৃদ্বয় বলেন, সাংবাদিকতার মূল উদ্দেশ্য হল জাতির সামনে সত্যকে উন্মোচিত করা। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক ভাবে যুগান্তরের মত কিছু গণমাধ্যম সত্যকে মিথ্যা দিয়ে ঢেকে দিয়ে যেখানে সেখানে জামায়াত-শিবিরকে জড়িয়ে অপপ্রচার করাকে তাদের কুঅভ্যাসে পরিণত করেছে। তারা মূলত সাংবাদিকতার লেবাসে বিদ্ধেষপূর্ণ দলীয় এজেন্ডা বাস্তবায়নের কাজ করছে। যা সাংবাদিকতার মহান পেশাকে কলুষিত করছে। গণমাধ্যম থেকে জাতি কখনই একপেশে বিদ্ধেষমূলক ভূমিকা আশা করে না। আমরা আশা করি যুগান্তর কর্তৃপক্ষ প্রতিবাদটি যথাস্থানে ছাপিয়ে বিভ্রান্তি নিরসন করে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিবেন। একই সাথে সত্য প্রকাশের স্বার্থে এমন মিথ্যা ও বানোয়াট প্রতিবেদন প্রকাশ থেকে বিরত থাকবেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ