ঢাকা, বৃহস্পতিবার 2 August 2018, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৯ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চাঁদাবাজদের পৈচাশিক হামলায় হোমনায় বালু ব্যবসায়ী নিহত

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) সংবাদদাতা : হোমনায় চাঁদাবাজদের পৈচাশিক হামলায় এক বালু ব্যবসায়ীর মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটেছে। অস্ত্র, মাদক ও চাঁদাবাজদের ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেনা। হোমনা সদরেই তাদের অবস্থান রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় অবলিলায় দিনের পর দিন চলছে দুর্বৃত্তদের নৈরাজ্য কিন্তু দেখার কেই নেই এমন অভিযোগ ভুক্তভোগীদের। উপজেলার নিলখী ইউনিয়নের মধ্যকান্দি গ্রামের মৃত সিরাজ মুক্তারের ছেলে বাবলু মিয়া (৩৪) দীর্ঘদিন ধরে জমির মাটি কিনে ছোট ড্রেজার মেশিনের মাধ্যমে বিভিন্ন স্থানে জমি, ডোবা, নালা ভরাটের ব্যবসা করে আসছিলেন। বাবলুর বড় ভাই রাসেল ও চাচা নাছির উদ্দিন জানান, সম্প্রতি প্রতিবেশি জলিল আমিনের প্ররোচনায় তার ছেলেরা সহ এলাকার অস্ত্রবাজ ও মাদক ব্যবসায়ীরা বাবলুর কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবী করে আসছিল। গত মঙ্গলবার দুপুরে বাড়ীর অদূরে হোমনা ঘারমোড়া সড়কে চাঁদাবাজরা একত্রিত হয়ে দাবী পূরণের আহবান জানায় বাবলুর কাছে। দাবী পূরণ না করায় তারা ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে এলোপাতারি কুপিয়ে ও পিটিয়ে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় রাস্তায় ফেলে রেখে চলে যায়। পরে এলাকাবাসী ও পরিবারের লোকজন বাবলুকে উদ্ধার করে হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বুধবার সকাল প্রায় ৮ টায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। এ ঘটনায় থানার ওসি রসুল আহমদ নিজামী জানান, অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পারিবারিক সূত্র জানায়, ময়না তদন্ত ও দাফন শেষে মামলা প্রক্রিয়া শুরু হবে। হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়ে এলাকাবাসী বলেন, অন্যথায় চাঁদাবাজরা ঘরে বসেই বহু গুণে চাঁদার টাকা পেয়ে যাবে।
১০ লাখ টাকার সম্পদ বিনষ্ট: মঙ্গলবার দিবাগত রাত দেড়টায় দাউদকান্দি উপজেলার মারুকা ইউনিয়নের ভরনপাড়ায় এক অগ্নিকান্ডে আনু মিয়া বেপারী বাড়ীর তিনটি ঘর মালামাল সহ পুড়ে প্রায় দশ লাখ টাকার ক্ষয় ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে। এর আগে পাল পাড়ায় মজিবুলের দুটি ও ধনেশ্বরে আরো দুটি ঘর পুড়েছে। বিদ্যুতের শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে এলাকাবাসীর ধারণা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ