ঢাকা, বৃহস্পতিবার 2 August 2018, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৯ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আদ্ব-দ্বীন হাসপাতালে মৃত নবজাতক এনআইসিইউতে রেখে বাণিজ্যে!

খুলনা অফিস : খুলনা মহানগরীর বয়রায় অবস্থিত আদ্ব দ্বীন আকিজ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত নবজাতককে এনআইসিইউতে রেখে বাণিজ্যের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১০টার দিকে ভুক্তভোগী পরিবারের প্রতিবাদের মুখে চিকিৎসকসহ হাসপাতালটির কর্মকর্তারা গা ঢাকা দেন। ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা গেছে, ডাচ বাংলা ব্যাংকের কর্মকর্তা দেবাশিষ সরকার গত ২৭ জুলাই নগরীর আদ্ব দ্বীন আকিজ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নবজাতক পুত্র সন্তানকে ভর্তি করেন খুমেক হাসপাতালের শিশু বিভাগের চিকিৎসকের পরামর্শে। আদ্ব দ্বীন হাসপাতালের চিকিৎসকরা নবজাতক ওই শিশুকে তাদের এনআইসিইউতে ভর্তি করেন। দেবাশীষ সরকার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের চাহিদা মতো সকল পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও টাকা পয়সা পরিশোধও করেছিলেন। ওই ইউনিটটি সর্ব সাধারণের প্রবেশাধিকার না থাকায় কি ধরনের চিকিৎসা হচ্ছে তা জানতেই পারছিলেন না শিশুটির পরিবার। কিন্তু মঙ্গলবার বিকেলে হাসপাতাল থেকে ফোনে ব্লাডের প্রয়োজন বলে জানানো হলে তিনি তার মামা শ্বশুরকে দ্রুত তা জোগাড়ের জন্য বলেন। তার মামা শ্বশুর ওই ওয়ার্ডে গেলে তাকে বলা হয়, ব্লাড লাগবে না ৫ হাজার টাকা দেন। তখন তিনি বিষয়টি দেবাশীষকে জানান। দেবাশীষ হাসপাতালে ছুটে আসেন। তখন চিকিৎসক ফারহানা করিম জানান, শিশুটি সন্ধ্যায় মারা গেছে। এ সময় নবজাতক সন্তানের পেট ফুটো করা দেখে তিনি সন্দেহ করেন।
দেবাশীষ অভিযোগ করে বলেন, আমার সন্তান হয়তো দু’দিন আগেই মারা গেছে। এরা ব্যবসার জন্য পেট ফুটো করে এনআইসিইউতে রেখেছে। তিনি আরও বলেন, হাসপাতাল থেকে একেক সময় একেক ধরনের পরামর্শ আসে। লাইফ সাপোর্টের নামেও টাকা নিয়েছে। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার নামে টাকা নিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এ ব্যাপারে ওই ওয়ার্ডের মেডিকেল অফিসার কেয়া রানী জানান, সন্ধ্যার দিকে নবজাতকটির মৃত্যু হয়েছে। ওই সময় সিনিয়র চিকিৎসকরা উপস্থিত ছিলেন। হাসপাতালের কর্তৃপক্ষের বক্তব্য নিতে অনেক দরজায় ধর্ণা দিয়েও কারো দেখা মেলেনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ