ঢাকা, বৃহস্পতিবার 2 August 2018, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৯ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সৈয়দপুর আশ্রয়ণ প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগ দুদকে

সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা : নীলফামারীর সৈয়দপুরে আশ্রয়ণ প্রকল্পে ঘর নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) অভিযোগ করা হয়েছে।  প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির (পিআইসি) সভাপতি ও সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. বজলুর রশীদের বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার এ লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়। দুদক দিনাজপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের (সজেকা) উপপরিচালক মো. বেনজির আহমেদ বরাবর অভিযোগটি করেন সৈয়দপুরের নিয়ামতপুর বাঙ্গালীপুরের বাসিন্দা সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মো. মোতালেব হোসেন ওরফে হক।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সৈয়দপুর উপজেলায় ৩০০ ঘর তৈরির জন্য তিন কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে। নীতিমালা অনুযায়ী প্রকল্পটি বাস্তবায়নে পাঁচ সদস্যের কমিটির সভাপতি হচ্ছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। এদিকে গত জুন মাস থেকে সৈয়দপুর উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের এ কাজ একসঙ্গে শুরু হয়েছে। কিন্তু সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. বজলুর রশীদ প্রকল্পের সকল নীতিমালা উপেক্ষা করে এবং পিআইসির অন্যান্য সদস্যদের পাশ কাটিয়ে নিজের ইচ্ছে মাফিক তড়িঘড়ি করে অতি নি¤œমানের উপকরণ সামগ্রী ব্যবহার করে দায়সারা গোছের কাজ করছেন। বিশেষ করে ঘরের পিলার তৈরিতে যে ধরনের উপকরণ ব্যবহার করার নিয়ম ছিল তা না মানায় তৈরিকৃত পিলার স্থাপনকালেই ভেঙ্গে পড়ছে। এছাড়া ঘরের দরজা-জানালায় প্রাক্কলনের কাঠ ব্যবহার না করে অসার ও অপরিপক্ক ইউক্যালিপ্টাস গাছের কাঠ ব্যবহার করায় অল্পদিনের মধ্যেই তা নষ্ট হয়ে যাবে। এমতাবস্থায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য ব্যহত হচ্ছে। এ কারণে তিনি ওই অসৎ, দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তার শাস্তির দাবি জানিয়ে দুদকে অভিযোগ করেন।  দুদক দিনাজপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের (সজেকা) উপপরিচালক মো. বেনজির আহমেদ অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ