ঢাকা, শুক্রবার 3 August 2018, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৫, ২০ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কুমিল্লায় ছুরিকাঘাতে স্বর্ণ কারিগর নিহত অটো চালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

 

কুমিল্লা অফিস : কুমিল্লা নগরীতে পৃথক ঘটনায় ছুরিকাঘাতে বিল্লাল নামের একজন স্বর্ণ কারিগর এবং অপর ঘটনায় আলী আশরাফ নামের এক অটো চালককে গলাকেটে  হত্যা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে নগরীর কেন্দ্রীয় ঈদগা মাঠের পেছেনে এবং ডুমুরিয়া চাঁনপুর এলাকায় এসব ঘটনা ঘটে। 

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার ভোর রাত ৩টার দিকে নগরীর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ’র পেছনে সিএনজি স্ট্যান্ডে পশ্চিমপাশে বিল্লাল হোসেনকে ছুরিকাঘাত করলে তার চিৎকারে টহলরত পুলিশ এগিয়ে গিয়ে ধাওয়া করে হৃদয় নামের এক যুবককে আটক করে। ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত বিল্লালকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া পর চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত বিল্লাল হোসেন (৩০) নগরীর জামতলা এলাকার ছিদ্দিকুর রহমানের ছেলে। নিহতের স্ত্রী হামিদা আক্তার জানান, ‘তার স্বামী আগে স্বর্ণ কারিগর হিসেবে কাজ করলেও বেশ কিছু দিন ধরে সে পুলিশের সোর্স হিসেবে কাজ করতো।’  কোতয়ালী মডেল থানার এএসআই শাওন দাস জানান, ‘আটককৃত হৃদয় ছিনতাইকারী, সে নগরের কাপ্তানবাজার এলাকার মেহেদী হাসানের ছেলে, তাকে ঘটনাস্থল থেকে ধাওয়া করে আটক করার পর হত্যাকান্ডের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে, লাশ মর্গে নেয়া হয়েছে।’ 

অপর ঘটনায় নগরীর চাঁনপুর কেরানীবাড়ির পাশে পুরাতন গোমতীর নদীর পাড় থেকে আলী আশ্রাফ (২৮) নামের এক অটো চালককে দুর্বৃত্তরা গলা কেটে হত্যা করেছে। সে মুরাদনগর উপজেলার বাবুটিপাড়া গ্রামের মৃত হুজুরা মিয়ার ছেলে। সে পরিবার নগরীর কালিয়াজুড়ি এলাকায় ভাড়া থাকতো। কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, হত্যাকান্ডের কারণ এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

পানিতে  ডুবে  ২ স্কুল ছাত্রের মৃত্যু 

কুমিল্লায়  জন্মদিনের উৎসব শেষে পানিতে ডুবে  শিহাব ও ফাহিম নামে দুই স্কুল ছাত্রের করুন মৃত্যু হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার বিকাল পৌনে ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। 

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা -জিলা স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র শিহাবের জন্মদিন আজ ছিল, তাই তার সহপাঠীরা ধর্মসাগর পাড়ে রানীর কুঠিতে একিত্রত হয়ে শিহাবের জন্মদিনের কেক কাটে এবং আনন্দ উচ্ছাস করে। জন্ম দিনের অনুষ্ঠান শেষে বিকাল পৌনে ৩টার দিকে আরও কয়েকজন বন্ধুসহ  ধর্মসাগরে নামে। এক পর্যায়ে শিহাব ও ফাহিম পানিতে তলিয়ে যায়। তাদের খুঁজে পেতে পরে খবর দেয়া হয় ফায়ার সার্ভিসকে। সহপাঠি, স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিস প্রায় আধাঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে শিহাব ও ফাহিমের নিথর দেহ উদ্ধার করে প্রথমে একটি প্রাইভেট হাসপাতাল এবং পরে কুমিল্লা  মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তার উভয়কে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে উভয়ের স্বজন ও সহপাঠিরা হাসপাতালে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। স্কুল ছাত্র শিহাব চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানায় কর্মরত  এসআই আবদুল মান্নানের ছেলে। ফাহিম বাগিচাগাঁও এলাকার সাখাওয়াত হোসেনের ছেলে।

কোতয়ালী মডেল থানার ওসি (তদন্ত ) সালাহ উদ্দিন জানান, ২ ছাত্রের লাশ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রাখা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ