ঢাকা, রোববার 5 August 2018, ২১ শ্রাবণ ১৪২৫, ২২ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ছাত্র-ছাত্রীদের উপর দমন-পীড়ন সরকারের জন্য বুমেরাং হতে বাধ্য -ডা. শফিকুর রহমান

অবিলম্বে ছাত্র-ছাত্রীদের দাবিগুলো মেনে নিয়ে তাদেরকে ক্লাসে ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান বলেন, দীর্ঘ ৭ দিন ধরে কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীরা নিরাপদ সড়কের দাবিতে ক্লাস ছেড়ে রাজপথে নেমে এসেছে। ফলে এ আন্দোলন ঢাকার বাইরেও ছড়িয়ে পড়েছে।
গতকাল শনিবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, তাদের এ দাবির সাথে অভিভাবক এবং বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ইতোমধ্যেই একাত্মতা ঘোষণা করেছেন। ছাত্র-ছাত্রীদের এ দাবি গণ-দাবিতে পরিণত হয়েছে। সরকার দাবি মেনে নিয়েছে বললেও ছাত্র-ছাত্রীরা তা বিশ্বাস করতে পারছে না। তাই ছাত্র-ছাত্রীদেরকে আস্থায় আনার জন্য সরকারকে দৃশ্যমান ও বাস্তব পদক্ষেপ নিতে হবে। কিন্তু আমরা বিস্ময়ের সাথে লক্ষ্য করছি যে, আপামর ছাত্রজনতাসহ গোটা দেশবাসীর এমন একটি প্রাণের দাবি নিয়েও সরকার বিভিন্ন ছলচাতুরির আশ্রয় নিচ্ছে। এক দিকে সরকার ছাত্র-ছাত্রীদের সকল দাবি মেনে নেয়ার ফাঁকা বুলি আওড়াচ্ছেন। অন্যদিকে ছাত্র-ছাত্রীদের এ যৌক্তিক দাবিকে গায়ের জোড়ে স্তব্ধ করে দেয়ার জন্য তাদের ওপর পুলিশ এবং দলীয় সন্ত্রাসীদেরকে লেলিয়ে দিচ্ছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছি।
তিনি বলেন, অবিলম্বে ছাত্র-ছাত্রীদের ওপর এই নোংড়া হামলা বন্ধ করতে হবে। ইতিহাস সাক্ষী ছাত্র-ছাত্রীরা যখন কোনো ন্যায্য দাবি আদায়ের জন্য রাস্তায় নেমেছে তখন সে দাবি আদায় করেই ছেড়েছে। অতএব দমন-পীড়নের আশ্রয় নেয়া ফ্যাসিবাদী সরকারের জন্য বুমেরাং হতে বাধ্য।
তিনি আরো বলেন, আমরা বিস্ময়ের সাথে লক্ষ্য করছি, আন্দোলনকারী ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষ থেকে যানবাহন চলাচলে কোনো ধরনের অহেতুক বাঁধা-বিঘœ সৃষ্টি না করা সত্ত্বেও সরকারের মদদপুষ্ট যানবাহন মালিক ও শ্রমিকরা অযৌক্তিকভাবে যানবাহন চলাচল বন্ধ রেখে গোটা জাতিকে পণবন্দী করে ফেলেছে। জাতি তাদের এই চাতুরিপনার অবসান চায়।
পরিশেষে ছাত্র-ছাত্রীদের এ যৌক্তিক দাবি পুরোপুরি মেনে নিয়ে অবিলম্বে বাস্তব ও দৃশ্যমান পদক্ষেপ নেয়ার জন্য তিনি সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ