ঢাকা, সোমবার 6 August 2018, ২২ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৩ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

এবার ৫০ লাখ টাকায় বসুন্ধরা কিংসে সবুজ

স্পোর্টস রিপোর্টার: ফেডারেশন কাপের মধ্য দিয়ে অক্টোবরে শুরু হচ্ছে ফুটবল মৌসুম। ইতিমধ্যে ফুটবলার দলবদল শুরু হয়ে গেছে। শীর্ষ ক্লাবগুলো দলবদলে এখনো আসেনি। তবে ভেতরে ভেতরে তারাও দলগুছানোর কাজ করছে। বসে নেই ছোট দলগুলোও। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের নবাগত দল বসুন্ধরা কিংস ফুটবলার সংগ্রহে এবার চমক দিয়ে যাচ্ছে। বড় অংকের বাজেটে তারা সেরা দল গঠনের পথে এগিয়ে যাচ্ছে।এর আগে এবারের মৌসুমে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ বাজেট ৬৩ লাখ টাকায় দলে ভিড়িয়েছে ইমন বাবুকে। এবার দলে ভিড়ালো গত মৌসুমে আট গোল করে সবার দৃষ্টি কেড়ে নেয়া তৌহিদুল আলম সবুজকে। স্থানীয় ফুটবলারদের মধ্যে ছিলেন সর্বোচ্চ গোলদাতা।চট্টগ্রাম আবাহনীর হয়ে মাঠ মাতানো এই ফুটবলারের ওপর এবার দৃষ্টি পড়েছে নবাগত বসুন্ধরা কিংসের। একেবারে ৫০ লাখ টাকা পারিশ্রমিকে তাকে দলে ভিড়িয়েছে বসুন্ধরা। গত প্রিমিয়ার লিগে চোটের কারনে বেশ কয়েকটি ম্যাচ খেলতে পারেননি। অন্যথায় গোল সংখ্যা হয়তো আরো বাড়াতে পারতেন।নিজ দলের বিদেশি খেলোয়াড়দের সঙ্গে পাল্লা দিয়েই আট গোল পেয়েছেন। আর এই পারফরম্যান্সই তাকে এনে দিয়েছে ৫০ লাখ টাকার প্রস্তাব।

তিনি জানান, ‘গত মৌসুমে অনেক পরিশ্রম করেছি। প্রথম পর্বে ৬ গোল করেছিলাম। দ্বিতীয় পর্বে দু’গোল এসেছে। তবে আরও গোল আসতে পারতো। নানান কারণে আর হয়ে ওঠেনি। আসলে আমি শেষ পর্যন্ত চেষ্টা করেছি ভালো খেলতে। তাই এবার নতুন দলে যোগ দিয়েছি।’শেখ জামালের দুই ফরোয়ার্ড সলোমান কিং ও রাফায়েল যৌথভাবে ১৫ গোল করে গতবার লিগে শীর্ষে ছিলেন। এছাড়া অন্যান্য বিদেশিরাও ছিলেন আলোচনায়। তাদের সঙ্গে লড়াই দেওয়াটা যে সহজ নয় সেই কথা তুলে ধরেছেন সবুজ, ‘আফ্রিকান খেলোয়াড়দের সঙ্গে অনেক সময় লড়াই করা কঠিন হয়ে পড়ে। যে কারণে সর্বোচ্চ গোলদাতা হতে চাইলেও সম্ভব হয়ে উঠে না।’

অনেক পরিশ্রম করেছেন বলেই নবাগত বসুন্ধরা কিংসের কাছ থেকে এমন প্রস্তাব পেয়েছেন। সেই পরিশ্রমের কথা তুলে ধরে সবুজ বলেছেন, ‘আমি পরিশ্রম করেছি বলেই এবার নতুন দলটি ৫০ লাখ টাকা পারিশ্রমিক দিয়ে আমাকে নিয়েছে। ভালো না খেললে তো এই টাকা পেতাম না। চাইলেই তো কেউ বড় অঙ্কের পারিশ্রমিক পাবে না।’বসুন্ধরা কিংস নবাগত হয়ে ভালো দল গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে এবার। ইতোমধ্যে একাধিক খেলোয়াড়কে দলে নিয়েছে। নতুন দলে সবুজ নিজের লক্ষ্যের কথা জানালেন এভাবে, ‘নতুন দলে ভালো পারিশ্রমিকে যোগ দিয়েছি। আশা আছে আগের চেয়ে বেশি গোল করার। লক্ষ্য আছে দলকে একের পর এক ম্যাচ জেতানোর। দল যেন শিরোপা পায়, সেদিকে দৃষ্টি থাকবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ