ঢাকা, সোমবার 6 August 2018, ২২ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৩ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কুমিল্লায় নাওমীকে তুলে নেয়ার অভিযোগ

কুমিল্লা অফিস : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর সাথে ফোনালাপে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উসকে দেওয়ার অভিযোগে কুমিল্লা থেকে মিলহানুর রহমান নাওমী নামে এক আইনজীবীকে তুলে নেয়ার অভিযোগ করেছে তার পরিবার। গতকাল রবিবার সকালে জেলার বরুড়া উপজেলার দেওড়া গ্রামের তার ফুফুর বাড়ি থেকে ঢাকার ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তাকে তুলে নেয়া হয় বলে তারা অভিযোগ করেন। নাওমী কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ২০নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও উনাইসার গ্রামের ছিদ্দিকুর রহমান সুরুজের ছেলে। এদিকে ছেলেকে তুলে নেয়ার বিষয়ে সাংবাদিকদের কাছে বক্তব্য দেয়ার পর দুপুরে পুলিশ নাওমীর বাবা ছিদ্দিকুর রহমান সুরুজকে আটক করে জেলা ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যায়।
জানা যায়, নিরাপদ সড়ক দাবিতে শিক্ষার্থীদের উসকে দেয়ার বিষয়ে বিএনপি নেতা আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর সাথে একজনের অডিও ফোনালাপ আন্দোলনের ৭ম দিন গত শনিবার ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। ওই অডিওতে নাওমীকে ঢাকায় আন্দোলনে সক্রিয় হতে বলেন আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে শনিবার রাতে চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করেন নগর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর। এরপর রবিবার সকালে কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার দেওড়া গ্রাম থেকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে নাওমীকে তুলে নেয়া হয়। পরে সকাল ১০টার দিকে নাওমীর বাবা ছিদ্দিকুর রহমান সুরুজ তার বাড়িতে সাংবাদিকদের জানান,  রোববার ভোর রাতে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে নাওমীর খোঁজে তার উনাইসারের বাড়িতে তল্লাশী চালানো হয়। এখানে তাকে না পেয়ে তারা নাওমীর মামা মনজুরুল ইসলাম ও চাচা ফরিদুল আলমকে সঙ্গে নিয়ে বরুড়া উপজেলার দেওড়া গ্রামে নাওমীর ফুফুর বাড়ি যান। সেখান থেকে তারা নাওমীকে তুলে নিয়ে যায় এবং তার মামা ও চাচাকে ছেড়ে দেয়। তিনি আরও জানান, নাওমী লন্ডনে ব্যারিস্টারী পাস করে গত ৫-৬ মাস আগে দেশে এসেছে। রাজনীতির সাথে সে জড়িত আছে বলেও আমার জানা নেই। সে আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর মেয়ের সাথে লন্ডনে লেখাপড়া করতো। সেই সুবাদে আগামী ১০ আগস্ট নাওমীর চাচাতো বোনের বিয়ে অনুষ্ঠানে দাওয়াত দেওয়ার জন্য বিএনপি নেতা আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে ফোন দিয়েছিল। সে যদি অপরাধ করে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হোক, বিনাদোষে তাকে যেন কোন সাজা দেওয়া না হয়। এদিকে সাংবাদিকদের নিকট নাওমীকে ঢাকার ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নেয়ার বিষয়ে কথা বলার পর দুপুরে নাওমীর বাবা ছিদ্দিকুর রহমান সুরুজকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জেলার সদর দক্ষিণ মডেল থানা পুলিশ বাড়ি থেকে আটক করে নিয়ে যায়। জেলা ডিবির ওসি নাসির উদ্দিন মৃধা জানান, নাওমীর বাবা ছিদ্দিকুর রহমান সুরুজকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিবি কার্যালয়ে আনা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ